• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

স্টোকস নয়, নাইটহুড পাচ্ছেন সাবেক দুই ইংলিশ অধিনায়ক

  ক্রীড়া ডেস্ক

১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:২১
স্ট্রস ও বয়কট
স্যার উপাধি পাচ্ছেন স্ট্রস ও বয়কট (ছবি : সংগৃহীত)

ইংলান্ডকে প্রথম ওয়ানডে বিশ্বকাপ এনে দিয়েছিলেন বেন স্টোকস। তবে তবে এখনই স্যার উপাধি পাওয়া হচ্ছে না তার। ইংলিশ এ অলরাউন্ডারকে টপকে নাইটহুড পাচ্ছেন ইংল্যান্ডের সাবেক দুই অধিনায়ক অ্যান্ড্রু স্ট্রস ও জিওফ্রে বয়কট। বিদায়ী ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মের অনুমোদিত তালিকায় এ দুই সাবেক ওপেনারের নাম রয়েছে নাইটহুডের জন্য।

স্ট্রসের নাইটহুড উপাধি অনেককে বিস্মিত করেছে। তবে ক্রিকেটে তার সময়ের অবদানের কথা ভুললে চলবে না। ২০১০-১১ মৌসুমে তার নেতৃত্বে ২৪ বছর পর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অ্যাশেজ জেতে ইংলিশরা। তার সময়ই টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানে উঠেছিল ইংল্যান্ড। এমনকি ইসিবি টিম ডিরেক্টর হওয়ার পর তার যুগান্তকারী বেশ কিছু সিদ্ধান্তের ফলে ইংল্যান্ড ওয়ানডে দল সাবেকি গড়পড়তার দল থেকে বিশ্বমানের হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করে। এ কারণে এ বছরে ইংলিশরা জয় করে অধরা ওয়ানডে বিশ্বকাপ।

এছাড়া স্ত্রী প্রয়াত হওয়ার পর ক্যান্সার নিয়ে রুথ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন স্ট্রস, যা এরই মধ্যে অনেক সাড়া জাগিয়েছে ব্রিটেনে। ৪২ বছরের স্ট্রস ১০০টি টেস্টে ৪০ দশমিক নয় এক গড়ে ২১টি সেঞ্চুরিসহ সাত হাজার রান করেছেন। ১২৭টি ওয়ানডে ম্যাচে ছয়টি সেঞ্চুরিসহ চার হাজার ২০৫ করেছেন স্ট্রস।  

তবে বয়কটের নাইটহুড পাওয়ার নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। ক্রিকেটার হিসেবে বয়কটের অবদান নিয়ে কারও মনে সংশয় থাকার কথা নয়। ধারাভাষ্যকার হিসেবেও নিজেকে অন্য মাত্রায় প্রতিষ্ঠিত করেছেন বয়কট। তবে সাবেক প্রেমিকাকে নিগ্রহের জন্য ১৯৯৮ সালে বয়কটের তিন মাসের সাসপেন্ডেড জেল হয়। যদিও এই অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করেছেন তিনি। এছাড়া ২০১৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটার ভিভ রিচার্ডস, গ্যারি সোবার্স, কার্টলি অ্যামব্রোসের নাইটহুড পাওয়া নিয়ে বর্ণবৈষম্যমূলক মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। পরে এর জন্য তাকে ক্ষমাও চাইতে হয়েছিল তাকে। 

ক্রিকেট ক্যারিয়ারে বয়কট ছিলেন সমৃদ্ধ তারকা। কলিন কাউড্রে ডেনিস আ্যামিস, কেন বেরিংটন, গ্রাহাম গুচের মতো কিংবদন্তীদের সঙ্গে ওপেনিং করেছেন তিনি। ১৯৬৪ থেকে ১৯৮২ পর্যন্ত সময়ে ইংল্যান্ডের হয়ে ১০৮টি টেস্ট খেলেছেন। প্রথম ব্রিটিশ ক্রিকেটার হিসেবে আট হাজার টেস্ট রান পূর্ণ করেন তিনি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১৫১টি সেঞ্চুরি রয়েছে তাঁর। ১৯৭৮ সালে ইংল্যান্ডকে চারটি টেস্টে নেতৃত্ব দেন বয়কট। ইংল্যান্ডের হয়ে ৩৬টি একদিনের ম্যাচে এক হাজার ৮২ রান করেন জিওফ্রি বয়কট। 

সবশেষ ব্রিটিশ ক্রিকেটার হিসেবে নাইটহুড পান অ্যালিস্টার কুক। এপর্যন্ত ইংল্যান্ডের মোট ১১ জন ক্রিকেটার স্যার উপাধি পেয়েছেন। স্ট্রস ও বয়কটকে ধরলে সেই সংখ্যাটা দাঁড়াবে ১৩। ব্রিটেনের প্রত্যেক বিদায়ী প্রধানমন্ত্রীই বিদায়কালীন সম্মাননা তালিকা প্রদান করতে পারেন। তারপর ক্যাবিনেট থেকে তা অনুমোদন করা হয়। থেরেসা মে ৫৭ জনের তালিকা দিয়েছেন। তাতে রয়েছে বয়কট ও স্ট্রস। 

ওডি/এনএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড