ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ

মাশরাফির ফেরার ম্যাচে বিফলে ইয়াসিরের সেঞ্চুরি

প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০১৯, ২০:৫২

  ক্রীড়া ডেস্ক

আবাহনী লিমিটেডের হয়ে লিগের প্রথম দুই ম্যাচে না খেলা মাশরাফি বিন মর্তুজা মাঠে ফিরেছেন তৃতীয় রাউন্ডে। ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে। ফিরেই ৮ ওভার বল করে ৩৯ রান খরচায় ২ উইকেট তুলে নেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক। তার সতীর্থ বোলাররাও করেন দারুণ বোলিং। তাতে বিফলে গেছে ইয়াসির আলীর দ্বিতীয় লিস্ট 'এ' সেঞ্চুরি। ব্রাদার্সের এই তরুণ ব্যাটসম্যানের অপরাজিত ১০৬ রানের ইনিংসের পরও আবাহনী ম্যাচটা জিতে নিয়েছে ১৪ রানে।

চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। ৩ ম্যাচে ৩ জয়ে তাদের অর্জন পূর্ণ ৬ পয়েন্ট। বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে পুরো ৫০ ওভার খেলে আবাহনীর তোলা ৬ উইকেটে ২৩৬ রানের জবাবে নির্ধারিত ওভারে ব্রাদার্স থামে ৮ উইকেটে ২২২ রানে।

প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে উইকেট ধরে রাখলেও মাঝের ওভারগুলোতে রানের গতি বাড়াতে পারেনি তারকাসমৃদ্ধ আবাহনী। প্রতিপক্ষের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের কারণে। নাজমুল হোসেন শান্ত ও অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত রান পেলেও ব্যাটিং করেন ঢিমেতালে। শান্ত ৭২ বলে ৪৪ ও সৈকত ৯৫ বলে ৫৪ রান করে আউট হন।

১৭৪ রানে ৬ উইকেট হারানো আবাহনী লড়াই করার পুঁজি পায় মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও মাশরাফির ৩২ বলে ৬২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে। সাইফউদ্দিন ৪৫ বলে ৪ চার ও ২ ছয়ে ৫৯ রানে অপরাজিত থাকেন। মাশরাফি খেলেন ১৫ বলে ২৬ রানের গুরুত্বপূর্ণ হার না মানা ইনিংস। হাঁকান ৩ চার ও ১ ছয়। ব্রাদার্সের পক্ষে মেহেদী হাসান ও নাঈম ইসলাম জুনিয়র নেন ২টি করে উইকেট।

ইয়াসির আলী চৌধুরী (ছবি : সংগৃহীত)

লক্ষ্য তাড়া করতে নামা ব্রাদার্সের ইনিংসেও ছিল অবিকল একই চিত্র। জাতীয় দলের রুবেল হোসেন-মাশরাফি-সাইফউদ্দিনদের নিয়ে গড়া আবাহনীর বোলিং আক্রমণের বিপক্ষে এক ইয়াসির ছাড়া দলটির কেউ সুবিধা করতে পারেননি।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানো ব্রাদার্স পুরো ইনিংসে পায়নি পঞ্চাশোর্ধ্ব কোনো জুটি। তবুও ইয়াসিরের কল্যাণে জয়ের স্বপ্ন বুনতে শুরু করেছিল তারা। শেষ ১০ ওভারে ৪ উইকেট হাতে নিয়ে ৭৯ রান দরকার ছিল তাদের। কিন্তু ইয়াসির সেঞ্চুরি হাঁকালেও বাকিরা তাকে সমর্থন না দেওয়ায় লিগে দ্বিতীয় হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।

সবশেষ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) কাঁপানো ইয়াসির প্রিমিয়ার লিগেও আছেন দারুণ ফর্মে। তার ১১২ বলের ইনিংসে ছিল ৮ চার ও ২ ছয়। গেল দুই ম্যাচে যথাক্রমে ৬৫ ও অপরাজিত ৩২ রান করেছিলেন ২৩ বছর বয়সী এই ডানহাতি।

মাশরাফির পাশাপাশি সাব্বির রহমানও নেন ২ উইকেট। ব্যাট হাতে ফিফটি করার পর বল হাতে ১ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরার পুরস্কার পান সাইফউদ্দিন।

এসএইচ