• মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

ফিরমিনো-মানের জোড়া গোল, পা হড়কায়নি লিভারপুল

সাদিও মানে-রবার্তো ফিরমিনো
লিভারপুলের জয়ের দুই নায়ক সাদিও মানে (বামে) ও রবার্তো ফিরমিনো (ছবি : লিভারপুল টুইটার)

পয়েন্ট হারালেই বিপদ! বিশেষ করে প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী এবং পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার সিটি যেহেতু নিজেদের শেষ ম্যাচে জিতে ৪ পয়েন্টে এগিয়ে গেছে। শিরোপার লড়াইয়ে টিকে থাকতে তাই রবিবারের ম্যাচে জয়ের বিকল্প ছিল না লিভাপুলের। অলরেডরা বিকল্প পথে হাঁটেওনি। ম্যাচের শুরুতেই রেলিগেশনের শঙ্কায় থাকা বার্নলি এগিয়ে গেলেও পা হড়কায়নি জুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা। ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার রবার্তো ফিরমিনো এবং সেনেগালের ফরোয়ার্ড সাদিও মানের জোড়া গোলে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে তারা। ম্যান সিটির সঙ্গে ব্যবধান কমিয়ে ফের '১'-এ নিয়ে এসেছে দলটি।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে অ্যানফিল্ডে পুঁচকে বার্নলির বিপক্ষে ৪-২ গোলে জিতেছে লিভারপুল। ৩০ ম্যাচে ২৪তম জয় তুলে নেওয়া ফিরমিনো-মানেদের অর্জন ৭৩ পয়েন্ট। শীর্ষে থাকা পেপ গার্দিওলার সিটিজেনদের সংগ্রহ ৭৪। ৩০ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার ১৭ নম্বরে বার্নলি।

ঘরের মাঠে ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে পিছিয়ে পড়ে লিভারপুল। কর্নার কিক থেকে স্বাগতিক গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকারকে পরাস্ত করে সরাসরি বল জালে জড়ান বার্নলির অ্যাশলে ওয়েস্টউড। তবে টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার জেমস তারকোভস্কি ধাক্কা দিয়েছিলেন অ্যালিসনকে। রেফারির কাছে অভিযোগও জানাতে গিয়েছিলেন এই ব্রাজিলিয়ান। কিন্তু আক্রমণাত্মক আচরণের দায়ে উল্টো তাকেই দেখতে হয় হলুদ কার্ড!

গোল হজমের পর আক্রমণের ধার বাড়ায় লিভারপুল। ফলও আসে হাতেনাতে। দশ মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে তারা। ১৯তম মিনিটে সমতাসূচক গোলটি আসে একরকম ভাগ্যের জোরে! মোহামেদ সালাহর ক্রস বিপদমুক্ত করতে গিয়ে নিজেদের মধ্যে গোলমাল পাকিয়ে ফেলেন বার্নলি গোলরক্ষক টম হিটন ও ডিফেন্ডার তারকোভস্কি। তাতে গোলপোস্টের একেবারে সামনে ফাঁকায় বল পেয়ে যান ফিরমিনো। বাঁ পায়ের আলতো ছোঁয়ায় তা জালে পাঠান তিনি। ২৯তম মিনিটে আরেক ভুল করে বসে বার্নলির রক্ষণভাগ! তার সুযোগ নিয়ে ডি-বক্সের ভেতর থেকে ডান পায়ের বাঁকানো শটে জাল কাঁপান মানে।

দ্বিতীয়ার্ধে লিভারপুল তৃতীয় গোলটিতেও দায় আছে হিটনের! ৬৭তম মিনিটে তার বাজে গোলকিক সরাসরি পৌঁছায় মিশরের ফরোয়ার্ড সালাহর কাছে। একক প্রচেষ্টায় ডি-বক্সে ঢুকে গিয়ে শট নেওয়ার আগমুহূর্তে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার চার্লি টেইলরের দারুণ এক ট্যাকলে বলের নিয়ন্ত্রণ হারান তিনি। ততক্ষণে গোলরক্ষক হিটনও এগিয়ে যান সালাহকে আটকাতে। কিন্তু ভাগ্যদেবী ছিলেন লিভারপুলের পক্ষে! বল পান ফিরমিনো। ফের ফাঁকা গোলপোস্টে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি।

নির্ধারিত সময় শেষে অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটে স্কোরলাইন ৩-২ করেন বার্নলির জোয়ান বার্গ গুডমুন্ডসন। কিন্তু পরের মিনিটেই ফের ব্যবধান বাড়ায় লিভারপুল। ড্যানিয়েল স্টারিজের ডিফেন্সচেরা পাস থেকে দলের চতুর্থ ও নিজের দ্বিতীয় গোল আদায় করে নেন মানে। ফলে চলতি লিগে তার গোল সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬তে।

এসএইচ

সংশ্লিষ্ট ঘটনা সমূহ : ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড