• বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অবশেষে ম্যানইউকে মাটিতে নামাল পিএসজি 

পিএসজি
বল নিয়ন্ত্রণে দু'দলের খেলোয়াড়রা; (ছবি : সংগৃহীত)

দুই বড় তারকা নেইমার এবং এডিনসন কাভানিকে ছাড়াই ইতিহাস গড়ে ফেলল প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। সেরা দুই তারকাকে ছাড়াই ম্যানইউকে তাদেরই মাঠে হারিয়ে দিল পিএসজি। সেই সঙ্গে গড়লো প্রথম ফরাসি ক্লাব হিসেবে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে জয়ের অনন্য কীর্তি।

মঙ্গলবার রাতে ম্যানইউকে তাদেরই মাঠে ২-০ গোলে পরাজিত করে টমাস টুখেলের শিষ্যরা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ঐতিহাসিক জয়ে গোল দুটি করেছেন প্রেসনেল কিম্পেম্বের এবং ফ্রান্স তারকা কিলিয়ান এমবাপে। 

কোচ হোসে মরিনহোর বিদায়ের পর ভারপ্রাপ্ত কোচ ওলে গানার সোলস্কায়ের দায়িত্ব নেওয়ার পর যেন হারতে ভুলে গেছেন ম্যানইউ। এই ম্যাচের আগ পর্যন্ত ১১ ম্যাচ খেলে অপরাজিত ইউনাইটেড; ১০টা জয়, একটা ড্র। সেই ম্যানইউকেই মাটিতে নামাল পিএসজি। এই জয়ে দুই ম্যাচ হাতে রেখে ১০ পয়েন্টের ব্যবধানে লিগ ওয়ানের শীর্ষে ফরাসি জায়ান্টরা। 

মঙ্গলবার রাতে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি লড়াইয়ে নামা দুদলের প্রথমার্ধের পারফরম্যান্স ছিল হতাশাজনক। কেউই তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। ফলে প্রথমার্ধে গোল শূন্যভাবে শেষ হয় দু'দলের খেলা। 

তবে দ্বিতীয়ার্ধের ভাগ্য সহায় হয় পিএসজির। ম্যাচের ৫৩তম মিনিটে ডি মারিয়ার নেওয়া কর্নারে কাছ থেকে বাঁ পায়ের টোকায় পিএসজিকে এগিয়ে নেন ফরাসি ডিফেন্ডার কিম্পেম্বে। 

১-০ গোলে এগিয়ে থেকে খেলায় ফিরে আসে পিএসজি। শুধু তাই নয়, এগিয়ে গিয়ে আরও আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠা পিএসজি প্রতিপক্ষের রক্ষণে প্রচণ্ড চাপ বাড়ায় একের পর এক। সেই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ৬০তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে মারিয়ার ক্রস ছোট ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে প্লেসিং শটে বল ঠিকানায় পাঠান এমবাপে।

ম্যাচের বাকী সময় পিএসজির আক্রমণ সামলাতে ব্যস্ত থাকতে হয়েছে ম্যানইউকে। সোলস্কায়ের অধীনে ইউনাইটেডের এটি প্রথম হার। আগামী ৬ মার্চ ফিরতি পর্বে পিএসজির মাঠে পল পগবাকে ছাড়াই খেলতে যাবে ইউনাইটেড। সূত্র : স্কাই স্পোর্টস 

এএপি 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড