• বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

টি-টোয়েন্টিতে বাংলাওয়াশের কবলে ইংলিশরা

বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের নিয়ে রীতিমতো ছিনিমিনি খেললো টাইগাররা

  ক্রীড়া ডেস্ক

১৪ মার্চ ২০২৩, ১৯:০৪
বাংলাদেশ

বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে রীতিমতো ছিনিমিনি খেলেছে সাকিবের টিম টাইগার্স। ওয়ানডে সিরিজ জিততে না পারলেও বাংলাদেশ টি-২০ ফরম্যাটে তার কঠিন প্রতিশোধ নিল। টি-২০ চ্যাম্পিয়ন ইংলিশদের ঘরের মাঠে ‘বাংলাওয়াশ’ করে ছেড়ে দিল টাইগাররা। তিন ম্যাচের সিরিজের শেষটিতে তুলে নিল ১৬ রানের জয়।

চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টি-২০ ম্যাচে জয় তুলে নিয়ে ইতিহাস গড়েছিল বাংলাদেশ। মিরপুরে ফিরে সিরিজ নিশ্চিত করে নতুন ইতিহাস টাইগারদের। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত শেষ ম্যাচ জিতে ইংলিশদের হোয়াইটওয়াশ করল বাংলাদেশ।

১৫৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শুরুতে হোচট খেলেও কাটিয়ে উঠেছিল বাটলাররা। ওপেনার সল্ট শুন্য রানে আউট গেলেও দলপতি বাটলারকে নিয়ে মালান ভালোই খেলছিল। বাটলার ৪০ এবং মালান ৫৩ করে আউট হলেও আর কোনো ব্যাটারই দাঁড়াতে পারেনি মুস্তাফিজদের সামনে। দুই অংকের কোঠায় পৌঁছাতে সক্ষম হয় ডাকেট (১১) এবং ওকস (১৩)।

বাংলাদেশের হয়ে ২ উইকেট নেন তাসকিন। এছাড়াও সাকিব, মুস্তাফিজ ও তানভীর ১ টি করে উইকেট নেন। ১৪২ রানেই ২০ ওভার শেষ করে ইংলিশ ব্যাটাররা।

ম্যাচের প্রথম ১৫ ওভার শেষে ছিল ১ উইকেটে ১৩১। হাতে ৯ উইকেট। মনে হচ্ছিল, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এবার বড়সড় সংগ্রহ গড়তে যাচ্ছে টাইগাররা। কিন্তু শেষ ৫ ওভারে হতাশার ব্যাটিং উপহার দিলো সাকিব আল হাসানের দল।

মিরপুর শেরে বাংলায় সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টুয়েন্টিতে শেষ পাঁচ ওভারে মাত্র ২৭ রান তুলতে পেরেছে বাংলাদেশ। ২ উইকেটে স্বাগতিকদের ইনিংস থেমেছে ১৫৮ রানেই। অর্থাৎ জিততে হলে ইংল্যান্ডকে করতে হবে ১৫৯ রান।

সিরিজ আগেই নিশ্চিত হয়ে গেছে। তৃতীয় ও শেষ টি-টুয়েন্টি ম্যাচটি তাই বাংলাদেশের জন্য হোয়াইটয়াশ মিশন পূরণের। মিরপুর শেরে বাংলায় গুরুত্বহীন এই ম্যাচে টসভাগ্য গেছে ইংল্যান্ডের পক্ষে।

টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার। তবে দুরন্ত ছন্দে থাকা বাংলাদেশ সিরিজের শেষ ম্যাচেও করেছে উড়ন্ত সূচনা। লিটন দাস আর রনি তালুকদারের ব্যাটে চড়ে পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে বিনা উইকেটেই ৪৬ রান তুলে ফেলে টাইগাররা।

রনি তালুকদার অবশ্য পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে একটা সুযোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু জোফরা আর্চারের বলে শর্ট থার্ড ম্যানে তার সহজ ক্যাচ ফেলে দেন রেহান আহমেদ। ১৭ রানে জীবন পান রনি।

যদিও সেই জীবন কাজে লাগাতে পারেননি রনি। ব্যক্তিগত সংগ্রহে আর ৭ রান যোগ করেই আউট হয়ে যান এই ওপেনার (২২ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ২৪)। আদিল রশিদ বল করে নিজেই নেন ক্যাচ।

দ্বিতীয় উইকেটে লিটন আর নাজমুল হোসেন শান্ত মিলে রীতিমত ঝড় বইয়ে দেন ইংলিশদের ওপর। ৫৭ বলে ৮৪ রানের জুটি গড়েন তারা।

লিটন দাসের ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খারাপ গেছে। খারাপ গেছে প্রথম দুই টি-টুয়েন্টিও। ইংলিশদের বিপক্ষে পাঁচবারের মধ্যে চারবারই লিটন আউট হয়েছেন দশের নিচে। একবার দশ পার করলেও ফেরেন ১২ রানে।

অবশেষে পাঁচবার হোঁচটের পর ইংলিশ পরীক্ষায় পাস করলেন লিটন। পেলেন ফিফটির দেখা। টি-টুয়েন্টি ক্যারিয়ারে লিটনের নবম হাফ সেঞ্চুরির ইনিংসটি থেমেছে ক্যারিয়ারসেরা করেই।

ক্রিস জর্ডানের বলে পুল খেলতে গিয়ে ফিল সল্টকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন লিটন। ৫৭ বলে গড়া তার ৭৩ রানের ইনিংসটিতে ছিল ১০টি চারের সঙ্গে একটি ছক্কার মার।

এরপর সাকিব আল হাসান আর শান্তর জুটিটি তেমন কিছু করতে পারেনি। ১৮ বলে তারা যোগ করেন ১৯ রান। শান্ত ৩৬ বলে ১ চার আর ২ ছক্কায় অপরাজিত থাকেন ৪৭ রানে। ৬ বলে ৪ রানে অপরাজিত থাকেন সাকিব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড