• বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

এবাদতকে নিয়ে ডাবল সেঞ্চুরির আশা জাগাচ্ছেন মুশফিক

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

২৪ মে ২০২২, ১২:৩২
মুশফিকুর রহিম (ছবি: সংগৃহীত)

ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশকে একাই আগলে রেখেছেন মুশফিকুর রহিম। প্রবল চাপের মুখে লিটন দাসের সঙ্গে মহাকাব্যিক জুটি গড়ার পর এবার ডাবল সেঞ্চুরির আশা জাগিয়েছেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল। দলীয় ৫ উইকেটে ২৭৭ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করা বাংলাদেশ ৩০০ রানের আগেই হারিয়ে ফেলে লিটন দাসকে। ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি হাঁকানো লিটন ২৪৬ বল মোকাবিলায় ১৬টি চার ও ১টি ছক্কার সহায়তায় করেন ১৪১ রান। তার বিদায়ে ভাঙে মুশফিক-লিটনের ২৭২ রানের জুটি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যেকোনো উইকেটে এটাই বাংলাদেশের সেরা জুটি। এছাড়া ষষ্ঠ উইকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ এবং ২৫ রানের নিচে ৫ উইকেট হারানো দলের পক্ষে ষষ্ঠ উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি।

এপর ক্রিজে নামেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। তবে কোনো রান করার আগেই নিজের তৃতীয় বলে কাসুন রাজিথা বলকে খোঁচা মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন। দীর্ঘ সময় পর টেস্টে ফেরা মোসাদ্দেক বিদায় নিলে ২৯৬ রানেই সপ্তম উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

এরপর দ্রুত রান তোলার চেষ্টা করেছেন মুশফিক। তাকে দারুণ সঙ্গ দিচ্ছিলেন তাইজুল ইসলাম। অষ্টম উইকেটে দুজনের জুটি অর্ধশততে পৌঁছে যেত আর একটি রান এলেই। বিদায়ের আগে ৩৭ বলে ১৫ রান করেন তাইজুল। আসিথা ফার্নান্দোর বাউন্সারে বেসামাল হয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ তুলে দেন তিনি।

মধ্যাহ্ন বিরতির আগে খালেদ আহমেদকেও একই কায়দায় ফেরান আসিথা। নিঃসঙ্গ শেরপা মুশফিকের ডাবল সেঞ্চুরির আশা তাই ক্রমশ মিলিয়ে যায়। তবে এবাদত হোসেন চৌধুরী রয়েসয়ে খেলে মোকাবিলা করে ফেলেছেন ১৬ বল। কোনো রান করতে না পারলেও এবাদতের ক্যারিয়ারে এটাই এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বল মোকাবিলার রেকর্ড।

৩০ মিনিট দেরিতে পাওয়া মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়ার আগে ১১৩ ওভার ব্যাট করে ৯ উইকেটে ৩৬১ রান জড়ো করেছে বাংলাদেশ। ৩৪০ বল মোকাবিলায় ১৭১ রান করে অপরাজিত আছেন ২১টি চার হাঁকানো মুশফিক।

ওডি/কেএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড