• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিদায়ের আগে রেকর্ডবুকে মুম্বাইয়ের তোলপাড়

  ক্রীড়া ডেস্ক

০৯ অক্টোবর ২০২১, ১১:২৭
বিদায়ের আগে রেকর্ডবুকে মুম্বাইয়ের তোলপাড়
(ছবি : সংগৃহীত)

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেটের চলতি আসরের প্রথম রাউন্ডের খেলা শেষ হয়ে গেছে শুক্রবার রাতে। আগেই নিশ্চিত ছিল কোন তিন দল খেলবে এবারের আসরের প্লে-অফে।

শুক্রবার শেষ ম্যাচে প্রায় অসম্ভব এক সমীকরণ মেলাতে পারলে চতুর্থ দল হিসেবে প্লে-অফের টিকিট পেত মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।

সেই মিশনে আগে ব্যাট করে ৯ উইকেটে ২৩৫ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছিল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু প্রতিপক্ষ সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ৬৪ রানের মধ্যে আটকে রাখার প্রায় অসম্ভব লক্ষ্যটি পূরণ করতে পারেনি তারা। যে কারণে কলকাতার সমান ১৪ পয়েন্ট নিয়েও নেট রানরেটের কারণে বাদ পড়ে গেছে তারা।

তবে বিদায় নিলেও নিজেদের শেষ ম্যাচে রেকর্ডবুকে ঝড় তুলেছে পাঁচবারের আইপিএল চ্যাম্পিয়নরা। তরুণ বাঁহাতি ওপেনার ইশান কিশান ও টপঅর্ডার সূর্যকুমার যাদবের আশি ছাড়ানো দুইটি ঝড়ো ইনিংসে রেকর্ডের পাতাও ওলটপালট হয়েছে বেশ কয়েকটি। তবু আক্ষেপটা রয়েই গেছে, প্লে-অফের টিকিট না পাওয়ার।

হায়দরাবাদের বিপক্ষে ম্যাচটিতে নিজেদের আইপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড গড়েছে মুম্বাই। এর আগে ২০১৭ সালে পাঞ্জাবের বিপক্ষে ৬ উইকেটে ২২৩ রান করেছিল তারা। এবার করলো ৯ উইকেটে ২৩৫ রান। এছাড়া আরব আমিরাতে আইপিএলের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ এটি। গত আসরে আমিরাতে কলকাতার বিপক্ষে ৪ উইকেটে ২২৮ রান করেছিল দিল্লি।

মুম্বাইকে বড় সংগ্রহ এনে দেয়ার পথে মাত্র ১৬ বলে হাফসেঞ্চুরি করেন ইশান কিশান। যা কি না মুম্বাইয়ের দ্রুততম হাফসেঞ্চুরির রেকর্ড। এতদিন ধরে ১৭ বলে ফিফটির রেকর্ড ছিলো কাইরন পোলার্ড, হার্দিক পান্ডিয়া ও ইশান কিশানেরই। এবার তা এককভাবে নিজের করে নিলেন ইশান।

শুধু তাই নয়, আরব আমিরাতের মাটিতে আইপিএলের দ্রুততম ফিফটির রেকর্ডটিও নিজের করে নিয়েছেন ইশান। আমিরাতে হওয়া আইপিএলের গত আসরে হায়দরাবাদের বিপক্ষেই ১৭ বলে ফিফটি করেছিলেন নিকোলাস পুরান। যা এবার ভেঙে দিলেন মুম্বাইয়ের তরুণ বাঁহাতি।

রেকর্ডময় ইনিংস খেলার পথে মাত্র চার ওভারের মধ্যেই ব্যক্তিগত ফিফটি তুলে নেন ইশান কিশান। আইপিএলে এর আগে মাত্র একজন খেলোয়াড় চার ওভারের মধ্যে করতে পেরেছেন ফিফটি। ২০১৮ সালে দিল্লির বিপক্ষে ২.৫ ওভার ও ২০১৯ সালে ঠিক ৪ ওভারেই চেন্নাইয়ের বিপক্ষে ফিফটি পেরিয়েছেন লোকেশ রাহুল।

শুক্রবারের ম্যাচে পাওয়ার প্লে'তে ১ উইকেট হারিয়ে ৮৩ রান করেছে মুম্বাই। আইপিএলে এটি তাদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পাওয়ার প্লে স্কোর। ২০১৮ সালে দিল্লির বিপক্ষে বিনা উইকেটে ৮৪ রান করেছিল তারা।

ইনিংসের প্রথম ১০ ওভার শেষে মুম্বাইয়ের স্কোর ছিল ৩ উইকেটে ১৩১ রান। যা কি না আইপিএল ইতিহাসে প্রথম দশ ওভারে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। এর আগে ২০১৪ সালে হায়দরাবাদের বিপক্ষে পাঞ্জাবও নিজেদের প্রথম ১০ ওভারে ঠিক ১৩১ রানই করেছিল।

বিশাল দলীয় সংগ্রহ গড়ার পথে মুম্বাইয়ের ইনিংসে এসেছে ৩০টি চারের মার। আইপিএলের এক ইনিংসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বাউন্ডারির রেকর্ড এটি। ২০১৭ সালে গুজরাট লায়নসের বিপক্ষে ৩১টি চার মেরেছিল দিল্লি।

ম্যাচটিতে ইশান খেলেছেন ৩২ বলে ৮৪ রানের ইনিংস আর সূর্যের ব্যাট থেকে এসেছে ৪০ বলে ৮২ রান। আইপিএল ইতিহাসে এবারই প্রথম এক ইনিংসে দুইজন ব্যাটসম্যান দুইশর বেশি স্ট্রাইকরেটে ৮০+ রানের ইনিংস খেলার নজির গড়লেন।

ওডি/

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড