• শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ফুটবলার থেকে যেভাবে দেশসেরা অ্যাথলেট হলেন জহির

  ক্রীড়া ডেস্ক

০৮ জুন ২০২১, ১১:৩৫
অ্যাথলেট জহির রায়হান
অ্যাথলেট জহির রায়হান। (ছবি: সংগৃহীত)

ফুটবলার থেকে এখন দেশের সেরা অ্যাথলেট জহির রায়হান। সুযোগ পাচ্ছেন জাপানের টোকিও অলিম্পিক গেমসে খেলার। ২২ বছর বয়সী জহির রায়হান শেরপুর সদর উপজেলার ৮ নং লছমনপুর ইউনিয়নের বলাইয়ের চর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক ও শিখা দম্পতির ২য় সন্তান।

অনুশীলনের এক ফাঁকে কথা হয় দেশসেরা অ্যাথলেট জহির রায়হানের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘আমি যখন প্রাথমিকে পড়াশোনা করি তখন থেকেই খেলাধুলা পছন্দ করতাম। কিন্তু আমার পরিবার সেটি পছন্দ করতো না। এক পর্যায়ে যখন স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণ করে পুরস্কার পেতাম। তখন মা-বাবা বুঝতে পারলেন যে আমি খেলাধুলায় ভালো করবো।’

‘এরপর থেকে শেরপুরের স্থানীয় ফুটবল কোচ সাধন বসাকের কাছে আমি ফুটবল খেলা শিখতাম। দীর্ঘ কয়েক বছর খেলাধুলা করার পর ২০১২ সালে বিকেএসপিতে সুযোগ পাই। তারপর ঢাকাতে ট্যালেন্ট হান্ট একটি প্রোগ্রামে নির্বাচিত হয়ে অ্যাথলেট হিসেবে খেলার জন্য মনোনীত হই।’

জহির আরও বলছিলেন, ‘২০১৭ সালে কেনিয়ার নাইবোরিতে ১ম বারের মত সেমিফাইনাল খেলি। তারপর দেশে এসে ৬ মাস ইনজুরি কাটিয়ে সামার ন্যাশনালে ২০০ ও ৪০০ মি স্প্রিন্টে স্বর্ন জিতি। তখন আমার ভাবনা ছিল কিভাবে অতীতের রেকর্ড ভাঙ্গা যায়। এরপর ২০১৯ সালে ৪০০ মি স্প্রিন্টে ৩২ বছরের রেকর্ড ব্রেক করি। ২০২০ সালে উচ্চ মাধ্যমিকে পাস করে বাংলাদেশ নৌ বাহিনীতে যোগদান করি। আমি ফেডারেশন কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানাই কারণ তারা আমাকে টোকিও অলিম্পিকে খেলার জন্য মনোনীত করেছেন।’

তার সাফল্যে গর্বিত শেরপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা হুইপ আতিউর রহমান আতিকও। তিনি বলেন, ‘জহির শেরপুরের গর্ব। যখন জানলাম সে শেরপুরে এসেছে তখন নিজ ইচ্ছায় তার সাথে দেখা করার জন্য আগ্রহ করি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন ক্রীড়ামোদী মানুষ। আমি আশা করি জহির টোকিও অলিম্পিকে মাথা উঁচু করে খেলে শেখ হাসিনা তথা বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করবে।’

জহিরের বাবা শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক। তিনিও ছেলের সাফল্যে আনন্দিত, ‘আমি একজন ক্রীড়া শিক্ষক। সদর উপজেলার চরশ্রীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে কর্মরত আছি। একজন ক্রীড়া শিক্ষক হিসেবে জহিরকে গাইড করতাম। তাকে নিয়ে সবসময় স্বপ্ন দেখতাম। আজ আমার সে স্বপ্ন পূরন হয়েছে। জহির এখন দেশসেরা একজন অ্যাথলিট। শুধু তাই নয় সে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে ৪০০ মি স্প্রিন্টে টোকিও অলিম্পিকে অংশ নেবে। এটা যে একজন বাবার জন্য কতটা গর্বের তা বুঝাতে পারবো না।’

জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মানিক দত্ত জানালেন তারা পাশে আছেন জহিরের, ‘জহির বিশ্বে বাংলাদেশ ও শেরপুরের প্রতিনিধিত্ব করবে। তার মাধ্যেমে পুরো বিশ্ব বাংলাদেশকে জানবে চিনবে। আমরা আশা করি জহির টোকিও অলিম্পিকে ৪০০ মি স্প্রিন্টে অংশগ্রহণ করে স্বর্ণ জিতে তার মা বাবার মুখ উজ্জ্বল করবে। শেরপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন সবসময় জহিরের পাশে আছে।’

যদিও কথা যতটা সহজে বলা গেল, কাজ ততোটা সহজ নয়। অলিম্পিকে এখনো পদক জিততে পারেনি বাংলাদেশ।

ওডি/জেআই

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড