• সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

যমুনায় বৈঠার ছন্দ : লাখো মানুষের ঢল

  সোহেল রানা, সিরাজগঞ্জ

১০ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:৫৯
নৌকা বাইচ
সিরাজগঞ্জে যমুনা নদীতে নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ঢাক-ঢোলের তালে গ্রাম বাংলার গান আর বৈঠার ছন্দ মাতিয়ে তুলেছিল যমুনার ঢেউকে। আর সেই ছন্দে তাল মিলিয়ে নদীর তীরে সিরাজগঞ্জে লাখ লাখ শিশু-কিশোর-কিশোরী এমনকি বয়োবৃদ্ধ পর্যন্ত নেচে-গেয়ে নৌকা বাইচ উপভোগ করেছেন। 

গত বছরের ন্যায় এ বছরও সিরাজগঞ্জের মানুষকে একটু নির্মল আনন্দ-বিনোদন এবং গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) বিকালে জেলা পরিষদ নদীর শহর রক্ষা বাঁধ হার্ড পয়েন্টে নৗকা বাইচের আয়োজন করেন। 

নৌকা বাইচ শুরুর আগে বিকাল ৩টা থেকে নদী তীর মানুষে ভরে যায়। শুধু সিরাজগঞ্জ জেলা নয় আশপাশের কয়েকটি জেলা থেকেও হাজার হাজার বিনোদন প্রেমী নৌকা বাইচ দেখতে এসেছিল যমুনার তীরে। 

(ছবি : দৈনিক অধিকার)

বিভিন্ন জেলার নৌকার বাইসালরা নৌকা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে (ছবি : দৈনিক অধিকার)

সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল, পাবনা, সরিষাবাড়ী ও জামালপুরসহ বিভিন্ন জেলার নৌকার বাইসালরা নৌকা প্রতিযোগিতায় ‘পানসি, কোষা, ছিপ, খেলনা ও সরঙ্গা মিলে মোট ৩০টির মতো নৌকা অংশগ্রহণ করে। শেষে সন্ধ্যায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার হিসেবে ফ্রিজ-টেলিভিশন তুলে দেওয়া হয়। নৌকা বাইচ দেখতে পেয়ে সবাই বিপুল আনন্দ উপভোগ করেছে। নৌকা বাইচকে কেন্দ্র করে যমুনার তীরবর্তী এলাকায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা নানা-পসরা সাজিয়ে বসেছিল।

নৌকা বাইচ দেখতে আসা বয়োবৃদ্ধ আবুল কাশেম জানান, আগে প্রচুর নৌকা বাইচ হত। কিন্তু ইদানিং তা হারিয়ে যাচ্ছে। তাই একটু আনন্দ উপভোগ করার জন্য নৌকা বাইচ দেখতে এসেছি।

শিশু তানিম জানান, বাবার সঙ্গে নৌকা বাইচ দেখতে এসেছি। খুব মজা করলাম। সকলেই প্রতি বছর যমুনায় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার দাবি জানিয়েছেন।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ বিশ্বাস জানান, যমুনা বিধৌত সিরাজগঞ্জ জেলার মানুষকে বন্যা পরবর্তীতে নির্মল বিনোদন এবং গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্যই এ ধরনের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়াও বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচনি প্রতীক নৌকা। তাই নৌকার ঐতিহ্য ধরে রাখাই নৌকা বাইচের আয়োজন।

সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তী জানান, বিনোদন প্রেমী মানুষ যাতে সুন্দরভাবে নৌকা বাইচের আনন্দ উপভোগ করতে পারে এ জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছিল বলে জানান তিনি। 

সংসদ সদস্য ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না জানান, সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গিমুক্ত দেশ গড়তে খেলাধুলা ও বিনোদনের বিকল্প নেই। যুব সমাজকে মাদক ও সন্ত্রাস থেকে বিরত রাখতে পারে সুস্থ ধারার সংস্কৃতি ও বাংলার ঐতিহ্য খেলাধুলা। আর এ কারণেই বাংলার ঐতিহ্য নৌকা বাইচের আয়োজন। আজ লাখ লাখ মানুষ নৌকা বাইচ দেখতে যমুনা পাড়ে উপস্থিত হয়েছে। তাদের মনে আনন্দে বইছে। বিশেষ করে শিশুরা বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ সম্পর্কে জানতে পারছে। 

ওডি/এএসএল

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড