• সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ছাউনি আছে যাত্রী নেই!

  শাহেদ হোসাইন ছোটন, বোয়ালখালী, চট্টগ্রাম

০৩ জুলাই ২০১৯, ০৫:৩৯
যাত্রী ছাউনি
যাত্রী সাধারণের বিশ্রামের জন্য নির্মিত যাত্রী ছাউনি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে চলাচলে যাত্রী সাধারণের বিশ্রামের জন্য নির্মিত যাত্রী ছাউনিগুলো দীর্ঘদিন ধরে বেদখল হয়ে পড়েছে। এতে যাত্রী সাধারণকে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। 

সরেজমিনে উপজেলার সদর, গোমদন্ডী ফুলতল, শাকপুরা চৌমুহনী, পেতন আউলিয়া মাজার এলাকায় অবস্থিত ছাত্র ছাউনিগুলোতে এমন চিত্র দেখা যায়। 

উপজেলা সদর যাত্রী ছাউনি : কয়দিন আগে ওই যাত্রী ছাউনি কাপড়ের দোকান ছিল। বর্তমানে কাপড়ের দোকান না থাকলে পাগল ও মাদকাসক্ত লোকজনের অবস্থান, ফ্লোরে পানি জমে থাকায় ওই যাত্রী ছাউনিতে যাত্রী সাধারণের বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ নেই। তবে ওই যাত্রী ছাউনিটি স্থানীয় এক প্রভাবশালী ব্যক্তি দখল করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

শাকপুরা চৌমুহনী যাত্রী ছাউনি : স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সৌজন্যে এটি বাস্তবায়ন করলে বর্তমানে ওই যাত্রী ছাউনির সামনে সিএনজি অটো টেক্সির স্টেশন করায় সেটি এখন ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। রাতের বেলায় ওই যাত্রী ছাউনিতে চলে গাঁজা ও ইয়াবা সেবন। সিএনজি টেক্সি চালকেরা এটিকে এক ধরনের দখলে নিয়ে নেওয়ায় সেখানে কোনো যাত্রী, জনসাধারণ বিশ্রাম করার বা বৃষ্টির দিনে আশ্রয় নেওয়ার সুযোগ নেই। 

(ছবি : দৈনিক অধিকার)

যাত্রী ছাউনির সামনে সিএনজি অটো টেক্সির স্টেশন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

গোমদন্ডী ফুলতল যাত্রী ছাউনি : বোয়ালখালী উপজেলার দ্বিতীয় বৃহত্তম এলাকা গোমদন্ডী ফুলতল। অনেক সময় চট্টগ্রাম শহরে চলাচলরত যাত্রী সাধারণ উপজেলা সদর, শাকপুরা চৌমুহনীতে গাড়ী না পেলেও গাড়ী পাওয়ার আশায় গোমদন্ডী ফুলতল আসে। কিন্তু এখানে নির্মিত যাত্রী ছাউনিটি দেখভালের অভাবে ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। স্থানীয় অটো টেম্পো চালক-হেলপারদের অঘোষিত দখলে চলে যাওয়ায় এখানে যাত্রী সাধারণের বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ নেই। বর্তমানে এখানে ময়লা-আবর্জনা জমে সাধারণ যাত্রীদের ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।  

পেতন আউলিয়া মাজার গেট যাত্রী ছাউনি : পেতন আউলিয়া মাজার গেট এলাকায় যাত্রীদের সুবিধার্থে নির্মিত যাত্রী ছাউনিটি এখন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। সেখানে মৌসুমী ব্যবসায়ীরা বাঙ্গি-তরমুজ এবং অন্যান্য মৌসুমী ফলের দোকান খুলে বসায় এটি এখন যাত্রী সাধারণ ব্যবহার করতে পারছে না। জানা যায়, এ যাত্রী ছাউনিটি যাত্রীদের সুবিধার্থে স্থানীয় আহমদ হোসেন সওদাগর এটি নির্মাণ করেন। কিন্তু পরিতাপের বিষয় যাত্রীদের জন্য নির্মিত যাত্রী ছাউনিটি এখন মৌসুমী ব্যবসায়ী ও সিএনজি চালকদের দখলে।  

(ছবি : দৈনিক অধিকার)

ব্যবসায়ী ও মাদকাসক্তদের দখলে যাত্রী ছাউনি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

কালুরঘাট যাত্রী ছাউনি : স্থানীয় সাংসদ আলহাজ মঈন উদ্দিন খান বাদলের তত্বাবধানে এটি নির্মিত হলেও রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে এটি এখন বিলুপ্তির পথে।

সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে এসব যাত্রী ছাউনি নির্মিত হলেও রক্ষণাবেক্ষণ এবং উপজেলা ও পৌর প্রশাসকের দেখভালের অভাবে এসব যাত্রী ছাউনিগুলো ব্যবহার অনুপযোগী এবং বেদখল হয়ে যাচ্ছে। 

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বোয়ালখালী পৌরসভার মেয়র হাজী আবুল কালাম আবু বলেন, ‘যাত্রী ছাউনিগুলো পৌরসভা এলাকায় হলে যেহেতু পৌরসভার অর্থায়নে নির্মিত হয়নি, সেহেতু রক্ষণাবেক্ষণ ও আমাদের উপর বর্তায় না।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আছিয়া খাতুন বলেন, ‘বেদখল যাত্রী ছাউনিগুলো শীঘ্রই চলাচলরত যাত্রী সাধারণের জন্য ব্যবহার উপযোগী করে উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।’ 

ওডি/এএসএল
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪, ০১৯০৭৪৮৪৮০০ 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড