• সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মাস্ক নিয়ে রুবেল-মিমি দম্পতির অনন্য উদ্যোগ

  মনিরুল ইসলাম মনি

২০ মার্চ ২০২০, ১৭:৩৭
মাস্ক
কল্যাণপুরে একটি বাসের মধ্যে মাস্ক বিক্রি করছেন জোবায়ের রুবেল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

মহামারি ঘোষিত করোনা ভাইরাসের প্রকোপে ইতোমধ্যেই দেশের বাজারে ২০ টাকার মাস্ক বিক্রি হচ্ছে ৫০-৭০ টাকায়। কিন্তু এসব অসৎ ব্যবসায়ীদের রুখে দিতে ২০ টাকা মূল্যে মাস্ক বিক্রি করছেন জোবায়ের রুবেল ও আফসানা মিমি দম্পতি। 

শুক্রবার (২০ মার্চ) রাজধানীর কল্যাণপুর বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়। বাজারে মাস্কের দাম বেশি হওয়ায় তারা এমন উদ্যোগ নিয়েছেন বলে জানান। 

এই দম্পতির এমন উদ্যোগের ব্যাপারে কথা হয় দৈনিক অধিকারের সঙ্গে। তারা দৈনিক অধিকারকে বলেন, সাধারণ মানুষকে ২০ টাকা দামে মাস্ক পৌঁছে দেওয়ার উদ্দেশ্যে বাজারে খোঁজ নিই। খোঁজ নিয়ে আমরা দেখতে পাই প্রতিটি মাস্কের পাইকারি দামই পড়বে ২৫-৩০ টাকা। কিন্তু আমাদের লক্ষ্য ছিল ২০ টাকার মধ্যে মাস্ক বিক্রি করা। 

জোবায়ের রুবেল বলেন, বাজারের অবস্থা দেখে আমি আমাদের আরিফ হুসাইন মামাকে ফোন করি। আরিফ মামা পেশায় একজন টি শার্ট এবং ক্যাপ ব্যবসায়ী। মামাকে অনুরোধ করি যেন আমাদের জন্য কম খরচে মাস্ক তৈরি করে দেন। তিনি খুব খুশি মনে অনেক খুঁজে খুঁজে কাপড় এবং সমস্ত কিছু ম্যানেজ করে রাতারাতি আমাদের মাস্ক তৈরি করে দেন। আমাদের প্রতিদিন ৫০০ মাস্ক সরবরাহ করছেন তিনি।

নিজের জীবনের ঝুঁকি নেওয়া মহান এই মানুষটি আরও বলেন, আমরা প্রতিটি মাস্ক ২০ টাকা করে বিক্রি করছি। তবে কেউ দুটি নিতে চাইলে এর জন্য অতিরিক্ত ১০ টাকা নিচ্ছি। আমরা কল্যাণপুর বাসস্ট্যান্ড ও বিভিন্ন বাসের মধ্যে এগুলো বিক্রি করছি। তবে আমাদের আরিফ মামার প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা। তিনি না থাকলে আমরা এত কম দামে মানসম্মত ও নিরাপদ মাস্ক বিক্রি করতে পারতাম না। মাস্ক বিক্রিতে আমাদের সঙ্গে প্রতিদিন কাজ করেছন রাসেল রানা নামের ঢাকা কলেজের এক শিক্ষার্থী।

আফসানা মিমি বলেন, ঢাকা থেকে অসংখ্য মানুষ গ্রামের দিকে যাচ্ছেন। এখন জেলা শহরেও মাস্কের চাহিদা আরও বাড়ছে। সেই চাহিদার কথা মাথায় রেখে শনিবার (২১ মার্চ) থেকে বিভিন্ন জেলায় মাস্ক পাঠানোর ব্যবস্থা করব। আমরা ইতোমধ্যেই সিরাজগঞ্জ, রাজশাহী, যশোর ও চট্টগ্রাম রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ বিভিন্ন জায়গায় প্রায় পাঁচ হাজার মাস্কের প্রি অর্ডার নিয়েছি। প্রতিটি মাস্ক সেখানে পৌঁছানো পর্যন্ত ২০ টাকার মধ্যে হয়ে যাবে বলে আমরা আশা করছি। 

এমন উদ্যোগের সারথী আরিফ হোসেন বলেন, পৃথিবীর এই দুর্যোগের সময় সরকারকে দোষারোপ নয়, শুধু ব্যবসায়ী চিন্তাও নয়, জরুরি অবস্থায় সব সময় চিন্তা করা উচিৎ আমার নিজের কী করার আছে। যা দিয়ে মানুষের উপকার হবে। যতদিন লাগবে আমি র্টি শাট বানানো বন্ধ করে মাস্ক তৈরি করতে থাকব। 

আফসানা মিমি পেশায় একজন গৃহিণী। সংসারজীবনে এক সন্তানের মা। রাজধানীর লালমাটিয়া মহিলা কলেজে বাংলায় মাস্টার্স পড়ছেন। সংসার আর পড়ালেখা সামলিয়ে সংসারবিডি.কম নামের একটি ই-কমার্স সাইট পরিচালনাও করেন তিনি। সেখানে কেবল মেয়েদের হ্যান্ড্রিক্রাফট আইটেম অনলাইনে বিক্রি করা হয়।

জোবায়ের রুবেলের পড়াশোনা মার্কেটিংয়ে। তিনি সুখের স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা এবং এক্সট্রা পিআরের অন্যতম উদ্যোক্তা। 

ওডি/এমআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড