• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন

স্প্যাম কল থেকে মুক্তির উপায় জেনে নিন

  প্রযুক্তি ডেস্ক

১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৩:৫৯
স্প্যাম কল
(ছবি: সংগৃহীত)

জরুরি কোনো মিটিংয়ে আছেন, এমন সময় আপনার ফোনটি বেজে উঠলো। আপনি ফোন রিসিভ করার সাথে সাথে অপর পাশ থেকে মিষ্টি কণ্ঠস্বরে বললো, আমি কাস্টমার কেয়ার সার্ভিস থেকে বলছি। আপনার কি এখন একটু সময় হবে? ঠিক এই সময় মেজাজ কার না খারাপ হয়? 

প্রায়শই কম বেশি সবাইকে এই ধরনের পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। নানা ধরনের একাধিক স্প্যাম কল দিনভর বিরক্ত করতে থাকে। যেমন- কাস্টমার কেয়ার, জীবনবিমা, ক্রেডিট কার্ড পরিষেবা প্রভৃতি,যা সাধারণত কাজের থেকে অকাজেরই বেশি হয়। 

তবে চাইলে সহজেই এর থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এর জন্য নিচের নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করতে হবে। 

স্প্যাম কল এড়ানোর সবচেয়ে জনপ্রিয় ও সহজ পদ্ধতি হচ্ছে ডু নট ডিসটার্ব সার্ভিস। খুব সহজেই এই সার্ভিসটি চালু করা যায়। যে নম্বর থেকে কল এসেছে, সেই নম্বরে ‘Start 0’ টাইপ করে এসএমএস পাঠান। ফলে ভয়েস কল অথবা এসএমএসের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এই নম্বর থেকে স্প্যাম কল আসা বন্ধ হয়ে যাবে।

এই ঝামেলা থেকে মুক্তি পেতে অবাঞ্ছিত কলটির নম্বর দেখে সেটিকে ব্লক লিস্টে ফেলে দিন। আর ট্রু কলার অ্যাপ ব্যবহার করলে ফোন রিসিভ করার আগেই সেটি দেখিয়ে দেয়, সেটি স্প্যাম কল কি না। তখন ফোন বাজলে কলটি কেটে নম্বরটি ব্লক করে দিলেই মিলবে মুক্তি। 

প্রতিটি ফোনেই রিপোর্ট স্প্যাম অপশনটি আছে। যদি কোনো নম্বর থেকে এ ধরনের ফোন আসে, তাহলে তবে সরকারের কাছে অনলাইনে অভিযোগও জানাতে পারেন। 

অনেক সময়ে নানা অনলাইন সাইটে সার্ফিং করতে গেলে নিজের মোবাইল নম্বরটি দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। আর নানা তথ্য পেতে তা অনেকেই সেটি করে। কিন্তু এ ধরনের ওয়েবসাইটে মোবাইল নম্বর দেওয়া মানে নিজের বিপদই বাড়ানো। কারণ অনেক ওয়েবসাইটই স্প্যামারদের মোবাইল নম্বর বিক্রি করে।

এছাড়া প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ করলেই একাধিক স্প্যাম কল ব্লকার অ্যাপ পাওয়া যাবে। সেখান থেকে কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিন। আর এভাবেই এই বিপত্তি থেকে মুক্তি পান। 

ওডি/টিএফ 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড