• বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

বিলুপ্তির হুমকিতে ১০ লাখ প্রাণী ও উদ্ভিদ প্রজাতি!

  প্রযুক্তি ডেস্ক

১২ মে ২০১৯, ১৯:০৬
সামুদ্রিক প্রাণী
বিলুপ্তির মুখে প্রাণী ও উদ্ভিদ প্রজাতি (ছবি : সংগৃহীত)

ইন্টারগভর্নমেন্টাল সায়েন্স-পলিসি প্ল্যাটফর্ম অন বায়োডাইভারসিটি অ্যান্ড ইকোসিস্টেম সার্ভিসেসের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে সম্প্রতি উঠে এসেছে, পৃথিবীর প্রায় ১০ লাখ প্রাণী ও উদ্ভিদ প্রজাতি বিলুপ্তির হুমকিতে আছে।

আর মানুষের কর্মকাণ্ডের কারণে পৃথীবীর চার ভাগের তিন ভাগ স্থলভূমি ও সামুদ্রিক পরিবেশের তিন ভাগের দুইভাগই পরিবর্তিত হচ্ছে। শহরগুলোর জনসংখ্যা মাত্র ৩০ বছরের মধ্যে বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। এছাড়া ৮৫ শতাংশেরও বেশি জলাভূমি হারিয়ে গেছে। ফলে এসব প্রতিক্রিয়ায় পৃথিবীর সামগ্রিক প্রাণী ও উদ্ভিদকুল বিলুপ্তির হুমকিতে পড়েছে।

১৫ হাজার গবেষণাপত্রের সমন্বয়ে তৈরি প্রতিবেদনটি চলতি মাসের ৬ তারিখ প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, পৃথিবীর ৪০ শতাংশেরও বেশি উভচর প্রাণী বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় আছে। এক-তৃতীয়াংশ সামুদ্রিক স্তন্যপায়ী প্রাণী, হাঙর ও কোরালও হারিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় আছে। এমনকি ১০ শতাংশ কীটপতঙ্গও  বিলুপ্তির দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে আছে।

অন্যদিকে ব্রিটিশ সাময়িকী দ্য ইকোনমিস্টে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্যাকটেরিয়া, অ্যামিবা ও ফাঙ্গাসের  মতো এককোষী প্রাণীদের ছাড়াও পৃথিবীতে প্রায় ৮০ লাখ প্রজাতির জীবজন্তু ও উদ্ভিদ আছে। এই প্রতিবেদনে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব ন্যাচারের (আইইউসিএন) তথ্য ব্যবহার করে গবেষকেরা দেখাতে চেয়েছেন যে কতো শতাংশ জীবজন্তু ও উদ্ভিদ বিলুপ্তির শঙ্কায় আছে। 

প্রায় চার ভাগের এক ভাগ প্রজাতি বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার শঙ্কায় আছে বলে আইইউসিএন আশঙ্কা করছে। শুধু তাই নয়, বিলুপ্তির শঙ্কায় থাকা প্রজাতিদের মধ্যে বেশির ভাগই অমেরুদণ্ডী। বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, সে তুলনায় কীটপতঙ্গের বিলুপ্ত হওয়ার হার অনেকটা কম। এছাড়া পৃথিবীতে থাকা ৮০ লাখ জীবজন্তু ও উদ্ভিদের প্রজাতির মধ্যে প্রায় ৫৫ লাখ প্রজাতিই পতঙ্গ। এর মধ্যে ১০ শতাংশ বা সাড়ে ৫ লাখ প্রজাতির পতঙ্গ বিলুপ্তির মুখে আছে।

ওডি/টিএফ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড