• রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পণ্য দান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অ্যামাজন 

  প্রযুক্তি ডেস্ক

১৫ আগস্ট ২০১৯, ১৫:৪৮
অ্যামাজন
(ছবি: সংগৃহীত)

মার্কিন ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজন এবার তাদের অবিক্রিত পণ্য দাতব্য সংস্থায় দান করার ঘোষণা দিয়েছে। 

যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যে অ্যামাজনের গুদামে যেসব বিক্রেতা তাদের পণ্য রাখেন তাদের জন্যই ফুলফুলমিন্ট বাই অ্যামাজন ডোনেশনস নামের এক প্রকল্প চালু করা হয়েছে। 

প্রকল্পটি চলতি বছরের ১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে। যখন কোনো বিক্রেতা তাদের অবিক্রিত পণ্য নষ্ট করে ফেলার সিদ্ধান্ত নেবেন, তখনই তাদের এসব পণ্য দানের তালিকায় তোলা হবে।  তবে বিক্রেতা চাইলে এই প্রকল্প থেকে বেরও হয়ে আসতে পারবেন। 

এক ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে সম্প্রতি অ্যামাজন এই প্রকল্পের ঘোষণা দিয়েছে।সেখানে জানানো হয়েছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গুড ৩৬০ এবং যুক্তরাজ্যের নিউলাইফ এবং বার্নার্ডোর মতো অলাভজনক সংস্থাগুলোর মাধ্যমে পণ্য দান করা হবে। 

মূলত অ্যামাজনের গুদামে যেসব পণ্য অবিক্রিত রয়েছে এবং নষ্ট করাটা জরুরী সেগুলো এই প্রকল্পের মাধ্যমে দান করা হবে। এতে গুদামে খালি জায়গাও বাড়বে। ফলে উচ্ছিষ্ট পণ্যগুলো কাজ আসবে বলেও প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। 

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, অ্যামাজন নিয়মিতভাবে গুদামের অবিক্রিত পণ্য ধ্বংস করে থাকে। ফরাসী টিভির পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা গত বছর শুধু ফ্রান্সেই ৩০ লাখ পণ্য বিনষ্ট করেছে। ধারণা করা হচ্ছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবিক্রিত পণ্যের পরিমাণ অন্যান্য দেশের চেয়ে আরও বেশি হবে।

এই প্রকল্পের মাধ্যমে অ্যামাজনের অবিক্রিত পণ্য ফেরত নেওয়ার চেয়ে তৃতীয় পক্ষের বিক্রেতাদের খরচ কমবে। বিক্রি হয়নি এমন পণ্য ফেরত বিক্রেতা ফেরত নিতে চাইলে অ্যামাজনকে দিতে হয় ৫০ সেন্ট। আর এই পণ্য ধ্বংস করতে দিতে হবে ১৫ সেন্ট।

খবর সিএনবিসি  

ওডি/টিএফ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড