• মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ৩৫ °সে
  • বেটা ভার্সন

হ্যাকার থেকে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট সুরক্ষায় কী করবেন?

  প্রযুক্তি ডেস্ক

১৫ মে ২০১৯, ১৫:৪৩
হোয়াটসঅ্যাপ

দূর থেকে নজরদারি সফটওয়্যার ‘স্পাইওয়্যার’ প্রবেশ করিয়ে জনপ্রিয় ম্যাসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপে আক্রমণ চালিয়েছে হ্যাকাররা। 

জানা গেছে, বিশ্বের কয়েক কোটি হোয়াটসঅ্যাপের গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য এখন হ্যাকারদের দখলে। সমস্যার সমাধান করতে হোয়াটসঅ্যাপ তাই নতুন আপডেট পাঠিয়েছে। তারা সব গ্রাহককে নতুন আপডেট অ্যাকটিভ করার পরামর্শ দিয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীকে নতুন আপডেট অ্যাকটিভ না করলে বড় বিপদের মুখে পড়তে পারে বলেও তারা হুঁশিয়ারি জানিয়েছে। 

বিবৃতিতে হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, এই সমস্যাটি মে মাসের শুরুতেই ধরা পড়ে। হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের এজন্য কিছুই করার নেই। ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ কল এলেই ম্যালওয়্যার ঢুকে পড়ছে।  

বর্তমানে বিশ্বের প্রায় ১৫০ কোটি মানুষ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন। হ্যাকারদের হাত থেকে বাঁচতে যত দ্রুত সম্ভব হোয়াটসঅ্যাপের নতুন আপডেট ডাউনলোড করে অ্যাকটিভ করে নেওয়া জরুরি বলে ওই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। তবে ম্যানুয়েলি এই নতুন আপডেট করে নিতে হবে। 

এছাড়া হোয়াটসঅ্যাপে নিরাপদ থাকতে নিম্নোক্ত পদক্ষেপগুলো নিতে পারেন। 

ব্যাকআপ সেটিং বদলানো 

কেউ যদি তার বন্ধুদের সাথে হোয়াটসঅ্যাপের কথাবার্তা আইক্লাউডে বা গুগলড্রাইভে ব্যাকআপ করে রাখেন তাহলে সেটি এনক্রিপ্টেড নয় অর্থাৎ গোপনীয়তার সুরক্ষা এ ক্ষেত্রে কাজ করবে না। 

এজন্য গোপনীয়তা বজায় রাখতে চাইলে ব্যাকআপ ডিজ্যাবল অর্থাৎ অকার্যকর করে দিলে কিছুটা সুরক্ষা পাওয়া যেতে পারে। সেটিং-এ গিয়ে চ্যাট ব্যাকআপ অপশন থেকে এটি করা যাবে। 

টু-ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন 

তথ্য নিরাপদ এবং অন্যের ধরাছোঁয়ার বাইরে রাখার জন্য মোবাইল বা ডিজিটাল ডিভাইসে টু-ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন করা যেতে পারে। 
এর মাধ্যমে অনলাইন অ্যাকাউন্টে ব্যাক্তি নিজে ছাড়া অন্য কারও ঢোকার পথে একটা অতিরিক্ত নিরাপত্তা দেয়াল তুলে দেওয়া যায়। সেটিংস এ গিয়ে এটি পরিবর্তন করা যাবে।

প্রাইভেসিতে গিয়ে সব অপশনগুলো পরখ করুন 

সব ধরনের অ্যাপেরই নানা রকম নিরাপত্তা ও গোপনীয়তা রক্ষার ব্যবস্থা আছে। এটি সেটিং>অ্যাকাউন্ট>প্রাইভেসিতে গিয়ে খুঁজে পাওয়া যাবে। সেখান থেকেই প্রোফাইল ফটো, বা লোকেশনসহ যাবতীয় তথ্য নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

এছাড়া 'read receipt' অর্থাৎ কারও পাঠানো বার্তাটি যে আপনি পড়েছেন তার প্রমাণস্বরূপ সেই টিক চিহ্নের সুইচ অফ করে দিতে পারেন।
    
ওডি/টিএফ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড