• রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

ম্যালওয়্যার ইনফেকশনের শীর্ষে বাংলাদেশ, আক্রান্ত ৩৬ শতাংশ মোবাইল

ম্যালওয়্যার
ম্যালওয়্যার প্রোগ্রামে আক্রান্ত মোবাইল ফোন ও কম্পিউটার (ছবি: প্রতীকী)

যুক্তরাজ্যের গবেষণা প্রতিষ্ঠান কমপারিটেকের গবেষণা অনুযায়ী, ম্যালওয়্যার বা ক্ষতিকর প্রোগ্রামে দেশের মোবাইল ফোনের ৩৬ শতাংশ ও ডেক্সটপ কম্পিউটারের ২০ শতাংশ আক্রান্ত। সে হিসেবে বিশ্বের ৬০টি দেশের মধ্যে খারাপ সাইবার নিরাপত্তার তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৬ষ্ঠ। আর বাংলাদেশ মোবাইলে ম্যালওয়্যার ইনফেকশনের দিক থেকে শীর্ষে অবস্থান করছে।  
 
প্রতিষ্ঠানটি সাইবার নিরাপত্তা প্রস্তুতি, হালনাগাদ সাইবার নিরাপত্তা সংক্রান্ত আইন বিবেচনায় এ গবেষণা করেছে। 

বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমপিআইএ) হিসাব অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে ৯ কোটি মোবাইল ফোন ও ১৫ কোটি সিম সক্রিয় রয়েছে। এর মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারী ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ। আর কম্পিউটার বিক্রেতাদের সূত্রে জানা গেছে, প্রতি বছর দেশে বর্তমানে ১ লাখ ২০ হাজার ইউনিট পিসি বিক্রি হচ্ছে।  
 
যুক্তরাজ্যের গবেষণা প্রতিষ্ঠান কমপারিটেকের তালিকায় বাংলাদেশের স্কোর ৪৭ দশমিক ২১। তালিকায় বাংলাদেশের পেছনে রয়েছে উজবেকিস্তান, তাঞ্জানিয়া, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া ও  আলজেরিয়া। সাইবার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সবচেয়ে শোচনীয় অবস্থায় আছে আলজেরিয়া। তাদের স্কোর ৫৫ দশমিক ৭৫। তালিকায় বাংলাদেশের চেয়ে ৪৭ দশমিক ১০ পয়েন্ট নিয়ে এক ধাপ এগিয়ে আছে পাকিস্তান। বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ ভারতের অবস্থান ১৫তম। তাদের স্কোর ৩৯ দশমিক ৩০। 

তালিকায় যে দেশের স্কোর সবচেয়ে কম, সে দেশ সাইবার নিরাপত্তায় তত বেশি শক্তিশালী। তালিকায় সাইবার নিরাপত্তার দিক থেকে শীর্ষে রয়েছে জাপান। তাদের স্কোর মাত্র ৮ দশমিক ৮ স্কোর। পরবর্তী অবস্থানে আছে যথাক্রমে ফ্রান্স, কানাডা, ডেনমার্ক, যুক্তরাষ্ট্র, আয়ারল্যান্ড, সুইডেন, যুক্তরাজ্য, নেদারল্যান্ডস, সিঙ্গাপুর ও অস্ট্রেলিয়া।

প্রতিবেদনের জন্য কমপারিটেক যে বিষয়গুলো বিবেচনা করেছে, সেখানে বাংলাদেশের সাইবার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে শোচনীয় অবস্থানের জন্য মোবাইল ফোন ম্যালওয়্যার ও কম্পিউটার ম্যালওয়্যারের বিষয়টি বেশি গুরুত্ব পেয়েছে। 

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে আইওটি বা টেলনেট ক্ষেত্রে আক্রমণ দশমিক ৩৮ শতাংশ, আর্থিক খাতে আক্রমণ ১ দশমিক ৩ শতাংশ এবং ক্রিপটোমাইনারসের আক্রমণ ৩ দশমিক ৩১ শতাংশ। 

তারা আরও বলেছে, কিছু কিছু ক্ষেত্রে কয়েকটি দেশের দুর্বলতা ও কিছু ক্ষেত্রে শক্ত অবস্থান রয়েছে। সাইবার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বাংলাদেশসহ প্রতিটি দেশে আরও উন্নতি করার সুযোগ রয়েছে। এজন্য কম্পিউটার ও মোবাইল ফোন খাতে আরও নিরাপত্তা বাড়ানো, সাইবার নিরাপত্তা আইন শক্তিশালী করার মতো বিষয়গুলোতে গুরুত্ব দিতে হবে বলে উল্লেখ করেন তারা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড