• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

অপেক্ষার নাম ওয়ানপ্লাস সেভেন

ওয়ানপ্লাস সেভেন
ওয়ানপ্লাস সেভেন (ছবি: ফার্স্টস্পট ডট কম)

নতুন কোম্পানি হিসেবে বাজারে এসেই রীতিমতো আলোড়ন তুলেছে ওয়ান প্লাস। কোম্পানির সবেশেষ ফোন ওয়ান প্লাস সিক্স টি নিজেদের ঐতিহ্য অনুযায়ী বিল্ড আপ কোয়ালিটি এবং নাগালের মধ্যে দামের ব্যাপারে কোন প্রকার ছাড় দেয়নি। বাজারে সিক্স টির ব্যাপক চাহিদার মাঝেই নতুনভাবে বাজারে আসার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে তাদের নতুন ফোন ওয়ান প্লাস সেভেন নিয়ে।

স্বাভাবিকভাবেই নতুন এই ফোনে কোম্পানি তাদের আগের ফোন সিক্স টি এর সকল সীমাবদ্ধতা এবং আকর্ষণীয় ফিচারগুলোকে আরো বেশি বাড়িয়ে নিতে চাইছে। শোনা যাচ্ছে ওয়ান প্লাস সেভেনের মাধ্যমেই ইনস্ক্রিনেই প্রথমবারের মত ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর আনতে যাচ্ছে এই ফোন কোম্পানি। তবে চায়না এই কোম্পানির সবচেয়ে বড় চমক আনতে যাচ্ছে অন্যভাবে। ওয়ানপ্লাস সেভেনই অন্যতম ফোন যা স্ন্যাপড্রাগন এইট ফিফটিফাইফ চিপসেট (Snapdragon 855 chipset) ব্যবহার করতে যাচ্ছে। ওয়ানপ্লাস সেভেন নিয়ে জল্পনা কল্পনা অবশ্য এখানেই শেষ না সারা বিশ্বের সব গেজেটপ্রেমী মানুষের আগ্রহের প্রায় অনেকটা অংশ জুড়ে আছে এই ফোন।

কবে আসছে ওয়ানপ্লাস সেভেন এবং এর সম্ভাব্য দাম

প্রাথমিক ধারণা অনুযায়ী ২০১৯ সালের মাঝামাঝি বাজারে আসতে পারে চায়না ব্র্যান্ড ওয়ান প্লাসের নতুন ফোনটি। বিগত ২০১৮ সালের মে মাসে ওয়ানপ্লাস সিক্স টি বাজারে আসে। তাই স্বাভাবিকভাবেই অনুমান করা হচ্ছে ওয়ানপ্লাস সেভেনও মে মাসেই সবার সামনে হাজির হতে যাচ্ছে। যদিও এর আগের দুইবছর ওয়ানপ্লাস ফাইভ এবং ওয়ানপ্লাস থ্রি বাজারে আসে জুন মাসে। তাই মে মাসের পরই প্রযুক্তি জগতের আগ্রহ জুন মাসে আসা ওয়ান প্লাসের ঘোষণার দিকে।

সারাবিশ্বের মধ্যবিত্ত সমাজের কথা চিন্তা করে বাজারে আনা ওয়ানপ্লাস সিক্স টির প্রথম বাজারমূল্য ছিল ৫৪৯ ইউএস ডলার। ইউরো অঙ্কে যা ৪৯৯ ইউরো। ওশেনিয়ান অঞ্চলে যার দাম ছিল ৫৯৯ অস্ট্রেলিয়ান ডলার। এবং পরিস্থিতি অনুযায়ী ওয়ানপ্লাস নিজেদের ফোনের দাম প্রতিনিয়ত কিছুনা কিছু বাড়িয়েই চলেছে। মধ্যবিত্ত সমাজ থেকে ফোন হয়ে যাচ্ছে উচ্চ মধ্যবিত্ত সমাজের উপযোগী। তাই নতুন ফোনের দাম এরচেয়ে বেশি হলেও অবাক হবার কিছুই থাকছেনা।

তবে এখানেই সকল কথা শেষ হচ্ছেনা। আপনি যদি নতুন এই ফোনে ফাইভ জি প্রযুক্তি আশা করতেন তবে দামের অঙ্কে পরিবর্তন হবে আরো বেশি। ওয়ানপ্লাস এরই মাঝে নিশ্চিত করেছে তারা বাজারে ফাইভ জি ফোন আনার জন্য বদ্ধপরিকর। কিন্তু বলা যাচ্ছেনা নতুন ওয়ানপ্লাস সেভেনেই সেই সুবিধা আসছে কিনা। কোম্পানির সিইও নিশ্চিত করেছেন ফাইভ জি ফোনের মূল্য সবশেষ ফোর জি নেক্সট এর তুলনায় ২০০ থেকে ৩০০ ডলার বেশি হতে পারে। তাই দামের ব্যাপারে ওয়ানপ্লাস সেভেন এখন পর্যন্ত অধরা এক ফোন বলেই বিবেচিত হচ্ছে।

গুঞ্জনের ভারে ভারী ওয়ানপ্লাস সেভেন

সবচেয়ে বড় গুঞ্জন ওয়ানপ্লাস সেভেনই হতে যাচ্ছে চায়না এই কোম্পানির প্রথম ফাইভ জি ফোন। যদিও এখন পর্যন্ত নিশ্চিত না ফাইভ জি কি একই মডেলের নতুন সেট আনবে নাকি সম্পূর্ণ আলাদা কোন মডেল। আবার ফাইভ জি নিয়ে একেবারেই আলাদাভাবে ওয়ানপ্লাস সেভেন টি আসার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছেনা।

ওয়ানপ্লাস এর ঘোষণা অনুযায়ী ইউরোপের বাজারে তারাই প্রথম ফাইভ জি সেট আনতে যাচ্ছে। সেই লক্ষ্যে নেটওয়ার্ক কোম্পানি ইই (EE) এর সাথে খানিক কথাও এগিয়ে রেখেছে চায়না এই কোম্পানি। ধারণা করা হচ্ছে ২০১৯ এর কোন এক পর্যায়ে যুক্তরাজ্যের বাজারে আসছে এই ফোন। তবে সেটা কি ওয়ানপ্লাস সেভেন নাকি ওয়ানপ্লাস সেভেন টি তা নিয়ে খোলাসা নয় কিছুই।

এখন পর্যন্ত ওয়ানপ্লাস সেভেনের ছড়িয়ে পড়া ছবি অনুযায়ী খুব বেশি ধারণা পাওয়া না গেলেও খুব সম্ভব নতুন প্রযুক্তির স্লাইড আউট ক্যামেরার সাথে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে বহুল প্রতিক্ষার এই ফোন।

এরই সাথে থাকছে স্ন্যাপড্রাগন এইট ফিফিটিফাইভ চিপসেট। যা ছাড়িয়ে যাচ্ছে আগের বারের স্ন্যাপড্রাগন এইটফরটিফাইভ (Snapdragon 845) কে। সেই সাথে র‍্যাম নিয়েও চমক থাকছে এই সেটে। ওয়ানপ্লাস সিক্স টি তে আট জিবি র‍্যামের পর ওয়ানপলাস সেভেনে তা কমার কোন প্রকার সুযোগ আসম্ভবত থাকছেনা। এছাড়া গ্রাহক চাহিদার কথা মাথায় রেখে সংযুক্ত হতে পারে মাইক্রো এসডি কার্দ স্লট।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড