• মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৬  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

শিরোনাম :

থেরেসা মে : ব্রেক্সিট ইস্যুতে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ভোট জানুয়ারিতে||'নির্বাচনে জনগণের অধিকার নিশ্চিত করতে ব্রিটিশ সরকারের পদক্ষেপ আহ্বান'||রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রস্তাব আলোচনা বর্জন করেছে চীন ও রাশিয়া||৩০০ কোটি টাকায় দুটি রুশ হেলিকপ্টার কিনছে বিজিবি||বরখাস্ত ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ হোসে মরিনহো||সু চি’কে দেওয়া পুরস্কার প্রত্যাহার করল দক্ষিণ কোরিয়া||নির্বাচনি পরিবেশ স্বাভাবিক, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডও বিদ্যমান : সিইসি||জামায়াতের ২২ নেতার ‘ধানের শীষ’ বাতিলে আদালতে রুল||যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে বসেছে বিএনপি   ||প্রতিশোধের রাজনীতি বন্ধের অঙ্গীকার করল বিএনপি 

বদলে যাচ্ছে কিলোগ্রাম, অ্যাম্পিয়ার, কেলভিন এবং মোলের সংজ্ঞা

  জুবায়ের আহাম্মেদ ২০ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:৩৫

সংজ্ঞা
বদল হচ্ছে কিলোগ্রাম, অ্যাম্পিয়ার, কেলভিন এবং মোলের সংজ্ঞায়

অবশেষে বদলে যাচ্ছে কিলোগ্রাম, অ্যাম্পিয়ার, কেলভিন এবং মোলের সংজ্ঞা। বিশ্বের ৬০ টি দেশের বিজ্ঞানীরা ভোটাভুটির মাধ্যমে নতুন এই ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তে একমত হয়েছেন। এর আগে দীর্ঘদিন ঘরে তাত্ত্বিক উপায়ে বিশ্বের সাতটি মৌলিক এককের সংজ্ঞায়ন করা হয়েছিল। 

ভরের একক হিসেবে নির্ধারিত কিলোগ্রাম বা কেজির সংজ্ঞা দিতে একটি আদর্শ পদার্থ ধরে নেওয়া হয়েছিল যাকে বলা হতো “ইন্টারন্যাশনাল প্রোটোটাইপ অফ কিলোগ্রাম।” দীর্ঘদিন যাবৎ এটি ফ্রান্সের স্যাভ্রেতে অবস্থিত “ইন্টারন্যাশনাল ব্যুরো অফ ওয়েইটস অ্যান্ড মেজারস” (BIPM) কার্যালয়ের ভূগর্ভস্থ একটি ভল্টে সুরক্ষিত ছিল। নতুন এই সিদ্ধান্তের ফলে আগের প্রোটোটাইপের আলোকে করা ভরের এককের সংজ্ঞা বদলে যাবে। এর পরিবর্তে পদার্থবিজ্ঞানের ধ্রুবক প্রতীক বা সংখ্যার মাধ্যমে কিলোগ্রামসহ অন্যান্য এককের সংজ্ঞায়ন করা হবে। 

ফ্রান্সের ভার্সাইতে “ইন্টারন্যাশনাল ব্যুরো অফ ওয়েইটস অ্যান্ড মেজারস” এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত ভর এবং পরিমাপ বিষয়ক এক সাধারণ সম্মেলনের নতুন এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এর ফলে সাতটি মৌলিক এককের সবকটিই এখন বাস্তব জগতের বিভিন্ন ধ্রুবকের মাধ্যমে পরিচিত হবে। এর ফলাফল হিসেবে বিজ্ঞানীরা আশা করছেন এর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক একক ব্যবহারে ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ণ থাকবে এবং একই সাথে নতুন নতুন বিভিন্ন গবেষণা কাজে কোয়ান্টাম প্রযুক্তিতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। নতুন এই একক আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালের ২০ মে থেকে কার্যকর হবে, এবং এরই সঙ্গে সঙ্গে মোউলিক এককের ক্ষেত্রে বিভিন্ন বস্তুগত ধারণা এবং সংজ্ঞায়ন পদ্ধতির অবসান ঘটবে। 

দীর্ঘ ১৩০ বছর ধরে কিলোগ্রামের সংজ্ঞায়নের জন্য ব্যবহার হওয়া আদর্শ প্লাটিনামের সিলিন্ডারের ভর এই ঘোষণার পরপরই অবসরে যাচ্ছে। নতুন সংজ্ঞায়নের জন্য বিজ্ঞানীরা বেছে নিচ্ছেন প্লাংক ধ্রুবককে, যা কোয়ান্টাম ফিজিক্সের একেবারেই প্রাথমিক একটি ধারণার অন্তর্ভুক্ত। দীর্ঘদিন ধরে সিলিন্ডারের আয়তন এবং সদৃশ সিলিন্ডারের উপস্থিতির সম্ভাবনা বিবেচনায় আনা হলে প্রোটোটাইপ বা নমুনা পদার্থ ব্যবহার করে সংজ্ঞায়ন অশুদ্ধ এবং অনিশ্চিত ছিল বলে বিজ্ঞানীরা মত দিয়েছেন। কিন্তু প্লাংক ধ্রুবক যে কোন সময় যে কোন পরিস্থিতে সহজে ব্যবহার করার জন্য সর্বদা উপযোগী।

“ইন্টারন্যাশনাল ব্যুরো অফ ওয়েইটস অ্যান্ড মেজারস” এর পরিচালক মার্টিন মিল্টন বলেন, মৌলিক এককের এরূপ সংশোধন বিজ্ঞানের অগ্রগতির ক্ষেত্রে একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। তিনি বলেন, একক সমূহের (যেমন ভর বা সময়) সংজ্ঞায়নের জন্য পদার্থবিজ্ঞানের প্রাথমিক এসব ধ্রুবকের ব্যবহার আমাদের দৈনন্দিন বিজ্ঞান বুঝতে, নিত্যনতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন করতে কিংবা নতুন যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বিজ্ঞান এবং সাধারণ মানুষ উভয়পক্ষকে ব্যাপক সাহায্য করতে সক্ষম হবে।”

নতুন এই সংজ্ঞায়ন পদ্ধতি মোট সাত মৌলিক এককের চারটি এককে পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে। এই চারটি একক হলো - ভরের একক কিলোগ্রাম, তড়িতপ্রবাহের একক অ্যাম্পিয়ার, তাপমাত্রার একক কেলভিন এবং পদার্থের পরিমাপের একক মোল। 

নতুন সংজ্ঞা অনুযায়ী-

১। কিলোগ্রাম – সংজ্ঞায়িত হবে প্লাংক ধ্রুবকের মাধ্যমে। 

২। অ্যাম্পিয়ার – সংজ্ঞায়িত হবে প্রাথমিক আধানের মাধ্যমে

৩। কেলভিন – সংজ্ঞায়িত হবে বোল্টজম্যান ধ্রুবকের মাধ্যমে। 

৪। মোল – মোল সংজ্ঞায়নে ব্যবহার করা হবে অ্যাভোগেড্রো ধ্রুবক।

যদিও নতুন এই পদ্ধতিতে প্রতি এককের ক্ষেত্রে কোনো পরিবর্তন আসছে না, যার অর্থ এক কিলোগ্রামে আগের ভরের সমতুল্যতাই বজায় থাকছে। নতুন এই চার একক সেকেন্ড, মিটার এবং ক্যান্ডেলার সাথে যুক্ত হওয়ার মাধ্যমে সবকটি এককের মাঝে সমন্বয় সাধনের ব্যবস্থা করে রাখছে।

নতুন এই সংজ্ঞায়নের ফলে সবকটি একক একই সাথে প্রযুক্তিগত উন্নয়নে পারস্পরিক সম্পর্ক বজায় রাখতে সক্ষম হবে। আজ থেকে অনেক বছর আগে, ১৯৬৭ সালে পরিবর্তন হওয়া সেকেন্ডের সংজ্ঞা বর্তমান সময়ে যোগাযোগ, জিপিএস কিংবা ইন্টারনেট জগতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে। বিজ্ঞানীরা আশা প্রকাশ করছেন সাম্প্রতিক বৈঠকে নেওয়া এই পরিবর্তিত সংজ্ঞায়ন নতুন এক পৃথিবীর সূচনা করে দেবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড