• শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বেসিস সদস্যদের প্রতি আব্দুল আজিজের আহ্বান

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৯ এপ্রিল ২০২৪, ০০:০৫
Abdul Aziz

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচনে অ্যাফিলিয়েট ক্যাটাগরির‌ পরিচালক প্রার্থী যাচাই.কম লি. এর চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ। বেসিসের উন্নয়নের লক্ষ্যে কিছু বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে অনুরোধ করেছেন।

বেসিস নির্বাচন নিয়ে দৈনিক অধিকারের সাথে আলাপকালে আজ (২৮ এপ্রিল) এ কথা বলেন।

নিজের সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, আমি খুবই সাধারণ একজন মানুষ। আমি আগামী বেসিস নির্বাচনে অ্যাফিলিয়েট ক্যাটাগরির‌ একজন ‌প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছি।

নির্বাচনী প্রতিপক্ষের প্রতি পজিটিভ দৃষ্টিভঙ্গি প্রদর্শনপূর্বক তিনি বলেন, আমার সাথে অত্যন্ত সফল এবং যোগ্য আরও দুইজন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। তাই আমি ধারণা করছি এইবারের বেসিস নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। তিনি বলেন, আমি বিগত সময়ে বেসিসের FinTech Digtal Payment এবং BASIS infras. & Hi forum এর standing committees তে একজন সদস্য হিসেবে কাজ করেছি এবং বেসিসের প্রায় সকল আয়োজনে একজন সক্রিয় বেসিস সদস্য হিসেবে উপস্থিত থেকে শেখার এবং জানার ও সেবা করার চেষ্টা করেছি।

তার কথায়, আমি বিশ্বাস করি শ্রদ্ধেয় বেসিস সদস্যগণ আমাদের তিনজন প্রার্থী থেকে যাকে নির্বাচিত করবেন তিনি বেসিস এবং বেসিসের সদস্যদের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রাখবেন। আমি যদি নির্বাচিত হতে পারি, আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সকল প্রার্থীদেরকে সাথে নিয়ে এবং সম্মানিত বেসিস সদস্যেদের দেশীয় বিভিন্ন সকল উদ্যোগ সমূহকে সাস্টেইনেবল প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন এসোসিয়েশনের বর্তমান নেতৃবৃন্দের এবং বিগত সময়ে বিভিন্ন এসোসিয়েশনে নেতৃত্ব দিয়েছেন এমন শ্রদ্ধেয় অভিভাবকদের সাথে উনাদের দীর্ঘ অভিজ্ঞতার আলোকে উনাদের সাথে আলোচনা করে এবং পরামর্শ নিয়ে, নির্দেশনা মেনে এবং দল মত নির্বিশেষে সকল শ্রদ্ধেয় সদস্য নেতৃবৃন্দের সহযোগিতা, পরামর্শ নিয়ে ব্যবসা বান্ধব পরিবেশ তৈরিতে বিভিন্ন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করবো।

আব্দুল আজিজ বলেন, আমি মূলত বাংলাদেশে গ্লোবাল মার্কেটপ্লেস তৈরি করার স্বপ্ন দেখছি। আমি স্বপ্ন দেখি বাংলাদেশে অ্যামাজন এবং আলিবাবার মতো গ্লোবাল মার্কেটপ্লেস তৈরি হবে। বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে যে কোন গ্রাহক অনলাইনে বাংলাদেশের পণ্য অর্ডার করবে এবং বাংলাদেশের পণ্য সারা বিশ্বে ডেলিভারি হবে। আমি সরকারের সাথে ক্রস বর্ডার এবং লোকাল এবং ইন্টারন্যাশনাল পেমেন্ট ব্যবসা বান্ধব পলিসি নিয়ে কাজ করতে চাই। পলিসি নিয়ে কাজ করতে হলে সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত হবার বিকল্প নাই এবং সংগঠনের প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার বিকল্প নাই।

তিনি বলেন, আমি শুধু ই-কমার্স বিজনেস এর সাথে সম্পৃক্ত না। আমি আমার কর্মজীবন শুরু করি বাংলাদেশ সরকারের রেলওয়ের প্রকৌশল বিভাগে সরকারি চাকরি দিয়ে। সরকারি চাকরি‌ শুরুর দুই মাসের মধ্যে চাকরি ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি পরিবারের এবং আমার নিকটজনদের সান্নিধ্যে সবসময় থাকতে চেয়েছি। সরকারি চাকরি ছেড়ে গার্মেন্টস বায়িং হাউজ দিয়ে সৎভাবে আমার বিজনেস শুরু করি এবং পরবর্তীতে আমকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয় নাই। আমার নিকটজনদের সহযোগিতা‌ এবং পরামর্শ নিয়ে আমি বর্তমানে সফটওয়্যার, মার্কেটপ্লেস, গার্মেন্টস, টেক্সটাইল , ইলেকট্রনিক্স এবং প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়া, এগ্রো,‌ ট্রাভেল, আমদানি এবং রপ্তানিসহ অসংখ্য সফল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছি এবং নতুন নতুন প্রতিষ্ঠান তৈরি করে অসংখ্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছি। আমি ব্যবসার পাশাপাশি বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠান স্কুল, কলেজ, মেডিকেল ইনস্টিটিউট, মাদ্রাসা , পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠা করতে করেছি । আপনারা অনেকেই অবগত রয়েছেন আমি সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা। আমাদের সকল প্রতিষ্ঠানগুলো সফলতা এবং সুনামের সহিত পরিচালিত হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, আমার বিভিন্ন বিজনেসের কারণে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন এসোসিয়েশনের সদস্য হতে হয়েছে। কিন্তু আমি বেসিস এবং ই-ক্যাব এই দুইটি এসোসিয়েশনে আমি নিয়মিত সময় দিচ্ছি।

এই পরিচালক পদপ্রার্থী বলেন, আমাদের সকল প্রতিষ্ঠানে আমাদের নিজস্ব তৈরি করা ইআরপি সফটওয়্যার ব্যবহার হচ্ছে। আমাদের সফটওয়্যারের অসংখ্য গ্রাহক রয়েছে। আমি একজন সফল ব্যবসায়ী। আমার নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস রয়েছে, আমি যেহেতু এতোগুলো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছি, তাই আমি নির্বাচিত হলে আমার দীর্ঘ ১৬ বছরের কর্মজীবনের এক্সপেরিয়েন্স কাজে লাগিয়ে ইনশাআল্লাহ আমি বেসিসের জন্য সবচেয়ে বেশী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবো।

তার কথায়, আমি একজন সৎ এবং দেশপ্রেমিক বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। আমার বাবা দেশের জন্য নিজের জীবন বাজি রেখে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো। বাবাকে দেখেছি সকলের বিপদে এবং দুঃসময়ের পাশে দাঁড়াতে। বাবার আদর্শ আমি বুকে ধারণ করি । আইসিটি সেক্টেরের এই দুঃসময়ে আমি নিজেকে বেসিসের সদস্যদের কল্যাণে একজন কর্মী হিসেবে এবং সৈনিক হিসেবে নিজেকে এবং নিজের সময়কে উৎসর্গ করতে চাই।

তিনি আরও বলেন, সততা আমার সবচেয়ে বড় শক্তি! আমি সততা এবং স্বচ্ছতার সহিত আমাদের সকল বিজনেস পরিচালনা করছি। আলহামদুলিল্লাহ আমার বিরুদ্ধে কেউ কোনোদিন বিন্দুমাত্র আর্থিক অনিয়মের কোনো অভিযোগ উপস্থাপন করে প্রমাণ করতে পারবে না। ইনশাআল্লাহ আমি সৎভাবে আমার বাকিটা জীবন অতিবাহিত করতে চাই।

তিনি বলেন, বেসিস বাংলাদেশর একমাত্র সংগঠন, যেই সংগঠনের প্রায় সকল উদ্যোক্তাগণ উচ্চ শিক্ষিত। বিশেষ করে অ্যাফিলিয়েট ক্যাটাগরির সদস্যগণের মধ্যে রয়েছে মার্কেটপ্লেস, এগ্রোটেক, ফিনটেক, ইন্সুটেক, ট্রেইনিং ইনস্টিটিউট এবং এডটেক, ডিজিটাল মার্কেটিং এবং মিডিয়া, ফ্রিল্যান্সার, পেমেন্ট, সার্ভিস প্লাটফর্ম, OTA, মিউজিক ,‌ অনলাইন জব মার্কেটপ্লেস, অনলাইন স্টক মার্কেট, এজেন্সি এবং ট্রেডিং বিজনেস ইত্যাদি। অ্যাফিলিয়েট ক্যাটাগরির প্রতিষ্ঠানের অনেক প্রতিনিধির তালিকায় দেশবরেণ্য বিভিন্ন শিল্পপতিও রয়েছেন।

আব্দুল আজিজ আরও বলেন, বেসিসের সম্মানিত এবং শ্রদ্ধেয় সদস্যদের ভোট নগদ টাকা দিয়ে, ঘুষ দিয়ে বা গিফট দিয়ে কোনভাবেই পাওয়া সম্ভব নয়! ভোট পাবার জন্য যেই কাজটা করা দরকার, সেই কাজটি আমি সঠিকভাবে করতে সক্ষম হয়েছি। আমি প্রতিটি সম্মানিত সদস্যবৃন্দের সাথে উনাদের অফিসে গিয়ে দেখা করেছি। এমনকি একজন সদস্যের সাথে দেখা করার জন্য অনেকবার অফিসে গিয়ে ৭ বারের চেষ্টায় দেখা করার সুযোগ পেয়েছি। আমি সম্মানিত সদস্যবৃন্দের সাথে দেখা করে সকলের দোয়া নিয়েছি এবং সদস্যদের বিভিন্ন সমস্যার কথা শুনেছি এবং বেসিসের নির্বাচিত প্রার্থীদের নিকট প্রত্যাশার কথা শুনেছি এবং লিপিবদ্ধ করেছি। আমি নির্বাচিত হলে বেসিসের জন্য এবং বেসিসের শ্রদ্ধেয় সদস্যদের জন্য কি কি কাজ করবো তা সদস্যের নিকট তুলে ধরেছি।

তার কথায়, সকল সদস্য অত্যন্ত বিচক্ষণ! আমার বিশ্বাস সাংগঠনিকভাবে দক্ষ, যোগ্য প্রার্থীকে সবাই বিপুল ভোটে নির্বাচিত করবে। ইনশাআল্লাহ আমি আশাবাদী বেসিসের সকল নির্বাচনের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর সাথে ভোটের পার্থক্যের ব্যবধানের ইতিহাস তৈরি করে বিজয়ী হবো এবং বেসিসের জন্য এবং বেসিসের সদস্যদের কল্যাণে আগামী দুই বছর নিজকে নিয়োজিত রাখার সুযোগ পাবো‌।

তিনি সবার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ভালোবাসা ও দোয়া কামনা করেছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড