• মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

করোনার টিকা হতে পারে ‘ইথানল’, সরকার চাইলেই গবেষণা

  স্বাস্থ্য ডেস্ক

০৮ এপ্রিল ২০২০, ২০:৩২
করোনা ভাইরাস
করোনা ভাইরাস (ফাইল ছবি)

দেশে দেশে ভয়াল থাবা বসিয়েছে মহামারি করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯। বিশ্বব্যাপী দাপিয়ে বেড়ানো এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে হন্যে হয়ে বিজ্ঞানীরা নানা গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন। সংকটপূর্ণ এই সময়ে আশার কথা জানালেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের করোনা ভাইরাস গবেষক অধ্যাপক ড. মো. আলিমুল ইসলাম। প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণাকারী এই অধ্যাপক মনে করেন, ইথানলের মাধ্যমে কোভিড-১৯ ভাইরাসকে বধ করা সম্ভব।

তবে তিনি জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে তিনি আশাবাদী হলেও এখনো ল্যাবরেটরিতে গবেষণা করেননি। কিন্তু সরকার চাইলে তিনি এ বিষয়ে গবেষণা করতে প্রস্তুত আছেন। শ্বাসতন্ত্রের সংক্রামক রোগে ইথানল বেশ কার্যকরী। তিনি নিজেই নিজের দেহে তা প্রয়োগ করে সুফল পেয়েছেন। অধ্যাপক আলিমুল ইসলাম তার এমন মতামতটি নিজের ফেসবুকে পেইজেও শেয়ার করেছেন। সেখানে তারই এক শিক্ষার্থী জানিয়েছেন যে, জাপানেরও একজন গবেষক একইভাবে গবেষণা চালিয়ে সফল হয়েছেন।

ড. আলিমুল ইসলাম একজন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্বনামধন্য গবেষক। তিনি এর আগে ডেঙ্গু, চিকনগুনিয়া, সার্স করোনা-১-সহ বিভিন্ন ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করেছেন। ২০০৩ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত তিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) অধীনেও কাজ করেছেন। ড. আলিমুল বলেন, যে কোনো ভাইরাসের দুটি আবরণ থাকে। ইথানল কিংবা সাবান প্রয়োগে ওই দুটি স্তর গলে যায়। এমতাবস্থায় ধ্বংস হতে অনেকটাই বাধ্য ভাইরাসটি। বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের এই বিজ্ঞানী জানান, আরএনএ গোত্রের করোনা ভাইরাসের বেশ কয়েকটি জাত রয়েছে। কোভিড-১৯ তার একটি। করোনার কোনো কোনো গোত্রকে ইথানল প্রয়োগে ধ্বংস করা যায়। আরএনএ গোত্রের প্রতিটি ভাইরাসের চরিত্র প্রায় কাছাকাছি বলে ইথানলে কোভিড-১৯ সারবে বলে মনে করছেন তিনি।

এ ক্ষেত্রে করোনা আক্রান্ত রোগী কী মাত্রায় এই ইথানল ব্যবহার করবেন সেটিও জানিয়েছেন দেশের এই বিজ্ঞানী। তিনি বলেন, ইথানল-মিশ্রিত কুসুম গরম পানির কুলকুচি করে বা বাষ্প টেনে এর সুফল পাওয়া যেতে পারে। তবে ড. আলিমুল বলেন এটি কোনো চিকিৎসা নয়, চিকিৎসা সহায়ক পদ্ধতি।

তিনি বলেন, সাধারণ সর্দি জ্বর কাশি ও গলা ব্যথাসহ শ্বাসকষ্টের রোগীরাও এটি করে ফল পেতে পারেন। করোনায় আক্রান্ত রোগীরাও এটি করে কার্যকর ফল পেতে পারেন। তবে ইথানল ব্যবহারে সরকারের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অনুমতি নিতে হবে। কারণ ক্লিনিক ও ল্যাবরেটরিতে গবেষণার কাজ ছাড়া এর ব্যবহারে অনুমতি নেই। সরকার চাইলেই এটি সম্ভব।

আরও পড়ুন : খুসখুসে কাশি মানেই কী করোনার থাবা? ড. আলিমুল বলেন, তিনি নিজে ও তার আটজন ছাত্র ইথানল ব্যবহার করে এরই মধ্যে জ্বর ও সর্দি কাশিসহ শ্বাসকষ্টের সমস্যা থেকে মুক্তি পেয়েছেন। তবে ইথানল ব্যবহারে অ্যালার্জি রয়েছে এমন হৃদরোগী, অ্যাজমা ও ডায়াবেটিস রোগীদের এটি ব্যবহার বারণ বলেও জানান তিনি। সরকার চাইলে এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের নিয়ে গবেষণা শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

ওডি

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড