• বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সোমবারের মধ্যে গ্রামীণফোনকে ১ হাজার কোটি টাকা দেওয়ার নির্দেশ

  প্রযুক্তি ডেস্ক

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪:৩৪
গ্রামীণফোন
বিটিআরসি ও গ্রামীণফোনের লোগো (ছবি : সম্পাদিত)

গ্রামীণফোনকে বিটিআরসির পাওনা ২ হাজার কোটি টাকার মধ্যে অন্তত ১ হাজার কোটি টাকা আগামী সোমবারের (২৪ ফেব্রুয়ারি) মধ্যে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আপিল বিভাগ। 

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রিভিউ আবেদনের শুনানি নিয়ে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ৭ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ এই আদেশ দেন। 

আদেশে বলা হয়েছে, বিটিআরসি গ্রামীণফোনের কাছে যে টাকা পাওনা আছে তা কমানোর কোনো সুযোগ নেই। এক্ষেত্রে গ্রামীণফোনকে আগামী সোমবারের মধ্যে অন্তত ১ হাজার কোটি টাকা দিতে হবে। বাকি টাকার বিষয়ে সেদিন পরবর্তী আদেশ দেওয়া হবে।

কিন্তু গ্রামীণফোনের আইনজীবী ৬ মাস সময় চেয়ে বলেন, গ্রামীণফোন ৫৭৫ কোটি টাকা দিতে চায়। এই আবেদন আদালত গ্রাহ্য না করে ১ হাজার কোটি টাকা দিতে বলে বিটিআরসিকে। এসময় আদালত বলেন, শুধু টাকা কমালেই হবে না, টাকা দিতেও হবে। 

এর আগে গ্রামীণফোনের নতুন প্রধান নির্বাহী বলেছিলেন, সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) ২ হাজার কোটি টাকা পাওনার মধ্যে বিটিআরসিকে ৫৭৫ কোটি টাকা পরিশোধ করতে গ্রামীণফোন প্রস্তুত। বাকি টাকা পরিশোধের ক্ষেত্রে আদালতের রায় অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। কিন্তু উচ্চ আদালতের আদেশ ছাড়া বিটিআরসি ৫৭৫ কোটি টাকা নেবে না। যদি ২৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে পুরো টাকা না দেওয়া হয়, তবে গ্রামীণফোনে প্রশাসক নিয়োগ দেয়া হবে বলেও জানিয়েছে তারা। 

আরও পড়ুন : টেলিটকে ৮ হাজার ৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে সৌদি

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ গত বছরের ২৪ নভেম্বর বিটিআরসির দাবি করা ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকার মধ্যে ২ হাজার কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ দেন গ্রামীণফোনকে। এই টাকা ৩ মাসের মধ্যে পরিশোধ করতে বলা হয়। 

এই নির্দেশনার পর কোম্পানিটি বিটিআরসির পাওনা দাবির একটি অংশ পরিশোধ করতে রাজি হয়। কিন্তু ২ হাজার কোটি টাকা নয়। তারা ১২ কিস্তিতে ৫৭৫ কোটি টাকা পরিশোধ করতে চায়। সম্প্রতি দেশের শীর্ষ এই অপারেটর এই দাবি নিয়ে আপিল বিভাগে রিভিউ আবেদন করে। 

ওডি/এওয়াইআর 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড