• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রিজিকের পেরেশানি আর নয়

  ধর্ম ও জীবন ডেস্ক

১৫ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:৫৪
Rizq_odhikar
ছবি : প্রতীকী

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘নিশ্চয়ই কোন প্রাণী ততক্ষণ পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করবে না, যতক্ষণ না তার জন্য বরাদ্দ জীবিকা শেষ হয়; যদিও তা পেতে দেরি হয়। সুতরাং তোমরা আল্লাহ তায়ালাকে ভয় করো এবং জীবিকা সন্ধানে মধ্যমপন্থা অবলম্বন করো। যা হালাল তা গ্রহণ করো এবং যা হারাম তা বর্জন করো।’ [সুনানু ইবনি মাজাহ: ২১৪৪] 

অতএব, রিজিকের ব্যাপারে খুব বেশি চিন্তা করার কোনো প্রয়োজন নেই। হতাশ হওয়ারও কোনো সুযোগ নেই। আমাদের জন্য বরাদ্দ রিজিক আমরা পাবই- সেটা যেকোনো উপায়েই হোক-না কেন। তবে, সেই সময়টার জন্য সবর করতে হবে।

আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘আর যে আল্লাহকে ভয় করে, তার জন্য তিনি (সমস্যা থেকে) বের হওয়ার উপায় করে দেন এবং তাকে এমন স্থান থেকে রিজিক দান করেন, যা সে কল্পনাও করতে পারে না। আর যে আল্লাহর উপর ভরসা করে তিনি তার জন্য যথেষ্ট। নিশ্চয়ই আল্লাহ তার কাজ চূড়ান্তকারী। অবশ্যই আল্লাহ প্রত্যেক কাজের জন্য একটি (নির্দিষ্ট) পরিমাণ ঠিক করে রেখেছেন।’ [সুরা তালাক : ২-৩]

যতটুকু রিজিক হলে জীবন চলে যাবে, ততটুকু থেকে আল্লাহ কাউকে বঞ্চিত করেন না। স্বাচ্ছন্দ্যে জীবন কাটানোর জন্য বা বিলাসিতার জন্য মানুষ রিজিক নিয়ে বেশি অভিযোগ করে এবং আল্লাহর অবাধ্যতায় লিপ্ত হয়ে সীমালঙ্ঘন করে। সুতরাং, হে আদম সন্তান! তুমি রিজিকের ব্যাপারে সবর করো। দুনিয়াতে যা কামাই করবে, তার এক পয়সাও কবরে নিতে পারবে না। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘সেই ব্যক্তি প্রকৃত সফল, যে ইসলাম গ্রহণ করেছে, আর তাকে জীবন ধারণে (অভাবও নয়; বিলাসও নয়) পর্যাপ্ত পরিমাণ রিজিক দেওয়া হয়েছে এবং আল্লাহ তাকে যা দিয়েছেন তাতে সে তুষ্ট থেকেছে।’ [সহিহ মুসলিম : ২৪৭৩, সুনানুত তিরমিযি: ২৩৪৮]

অতএব, রিজিকের পেরেশানিতে আল্লাহকে ভুলে যেও না। অভাবে পতিত হলে আল্লাহর কাছেই ফিরে যাও। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি অভাবে পতিত হয়, এরপর তা সে মানুষের কাছে সোপর্দ করে (অভাব দূরীকরণে মানুষের ওপর নির্ভরশীল হয়), তার অভাব মোচন করা হয় না। পক্ষান্তরে যে অভাবে পতিত হয়ে এর প্রতিকারে আল্লাহর ওপর নির্ভরশীল হয়, তবে অনিতবিলম্বে আল্লাহ তাকে তরিৎ বা ধীর রিজিক দেন।’ [সুনানুত তিরমিযি : ২৮৯৬, মুসনাদ আহমদ : ৪২১৮] 

প্রচলিত কুসংস্কারের বিরুদ্ধে ধর্মীয় ব্যখ্যা, সমাজের কোন অমীমাংসিত বিষয়ে ধর্মতত্ত্ব, হাদিস, কোরআনের আয়াতের তাৎপর্য কিংবা অন্য যেকোন ধর্মের কোন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, সর্বপরি মানব জীবনের সকল দিকে ধর্মের গুরুত্ব নিয়ে লিখুন আপনিও- [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড