• শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯, ৯ চৈত্র ১৪২৫  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

নবীর নবুয়াতের ২৩ বছরে দায়িত্ব কী ছিল?

  অধিকার ডেস্ক    ০৮ মার্চ ২০১৯, ১২:৩৬

নবী
ছবি : প্রতীকী

নবী যদি আল্লাহর আয়াত প্রচার না করে তিনি নিজের কথা, সম্মতি, কাজগুলো ধর্ম বলে চালিয়ে দিত, তাহলে কি কেউ সেগুলো মানতো? 

আল্লাহর আয়াত প্রচারের সময় তিনি বার বার বলেছেন, এগুলো আল্লাহর আয়াত, তবুও মানুষ বিশ্বাস করেনি ৷ নবী নিজের মতামত প্রতিষ্ঠা করবেন কখন? 

আল্লাহ এক, তিনি বিধানদাতা, তিনি সৃষ্টিকর্তা। তিনি এক অদ্বিতীয় এবং আল্লাহর বিধান প্রচারের সময় কত বঞ্চনার শিকার হতে হলো ৷ উম্মাদ, পাগল বলে অপমান করলো ৷ নিজের কথা কখন প্রচার করলেন?

নবী ২৩ বছরে তাই প্রচার করেছেন যা আল্লাহ নাজিল করেছেন ৷ নাজিল ব্যতীত বাড়তি কোনো আইন, বাড়তি কোনো কথা ধর্মের ব্যাপারে তিনি বলেননি ৷ 

নাজিল হলে তা প্রচার করেছেন, না হলে পূর্বের নাযিলকৃত আয়াতগুলো প্রচার করেছেন ৷ রাসুলের কাজ বা দায়িত্ব ছিল ওহী প্রচার করা ও আবৃত্তি করা। 

আয়াত প্রচারের বাইরে তিনি যে কাজ করেছেন তা হলো- মদিনা রাষ্ট্রব্যবস্থা পরিচালনা, যুদ্ধ পরিচালনা, সন্ধি স্থাপন, যাকাত, উশর, জিজিয়া, ভূমিনীতি, রাজ্যনীতি, পররাষ্ট্রনীতি, নাগরিক সুবিধা, মদিনার সনদের বাস্তবায়ন ইত্যাদি কর্মকাণ্ড। 

অনুসরণ তাই, ২৩ বছরে যা আল্লাহর তরফ থেকে এসেছিল তা মেনে চলা ৷ ইহাই নবী প্রচার করেছেন বলে নবীকে অনুসরণের মাধ্যমে আয়াত মানতে বলা হয়েছে । (আরাফ ৭/৩)

আল্লাহ্‌ তাআলা কুরআনে বলেন, “এটা কি তাদের জন্য যথেষ্ট নয় যে, আমি তোমার নিকট কুরআন অবতীর্ণ করেছি যা তাদের নিকট পাঠ করা হয়? এতে অবশ্যই মুমিন সম্প্রদায়ের জন্য অনুগ্রহ ও উপদেশ রয়েছে।” (আনকাবুত : ৫১) 
 

প্রচলিত কুসংস্কারের বিরুদ্ধে ধর্মীয় ব্যখ্যা, সমাজের কোন অমীমাংসিত বিষয়ে ধর্মতত্ত্ব, হাদিস, কোরআনের আয়াতের তাৎপর্য কিংবা অন্য যেকোন ধর্মের কোন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, সর্বপরি মানব জীবনের সকল দিকে ধর্মের গুরুত্ব নিয়ে লিখুন আপনিও- [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড