• বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৬ ফাল্গুন ১৪২৬  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ট্রল করা মুমিনের কাজ নয়

  মুনশি আমিনুল ইসলাম

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:১৯
ইসলাম
ছবি : প্রতীকী

কাউকে নিয়ে ট্রল বা ব্যঙ্গ করা মুমিনের কাজ নয়। আর সব বিষয়ে মজা নেওয়া ব্যক্তিত্বহীনতার পরিচয়। কারণ মুমিন কখনো অন্যকে বিদ্রুপ করতে পারে না। কারও দোষচর্চা করতে পারে না। কাউকে মিথ্যা অপবাদ দিতে পারে না। এ প্রসঙ্গে মহান আল্লাহ বলেন, ‘হে ঈমানদারগণ! কোনো সম্প্রদায় যেন অপর সম্প্রদায়কে বিদ্রুপ না করে, হতে পারে তারা বিদ্রুপকারীদের চেয়ে উত্তম। আর কোনো নারীও যেন অন্য নারীকে বিদ্রুপ না করে, হতে পারে তারা বিদ্রুপকারীদের চেয়ে উত্তম। আর তোমরা একে অপরের নিন্দা করো না এবং তোমরা একে অপরকে মন্দ উপনামে ডেকো না। ঈমানের পর মন্দ নাম কতই না নিকৃষ্ট! আর যারা তওবা করে না, তারাই তো জালিম।’ (সুরা হুজরাত :১১)

এ আয়াতে কোনো সম্প্রদায় অন্য সম্প্রদায়কে নিয়ে বিদ্রুপ করতে নিষেধ করা হয়েছে। কিন্তু আমরা এক এলাকার মানুষ অন্য এলাকার মানুষ নিয়ে, এক জেলা অন্য জেলা নিয়ে, এক দল অন্য দলকে নিয়ে হরহামেশাই ট্রল করে থাকি। কারও কারও অবস্থা দেখে মনে হয়- এরা ট্রল করাকে কাজ মনে করে।

কারও অপারগতা, কারও অসুস্থতা, কারও মৃত্যু নিয়ে ট্রল করার প্রশ্নই ওঠে না। হজরত আবু বকর (রা.) অসুস্থ হলে একটি কবিতা পড়তেন, যার ভাবার্থ এমন- ‘প্রতিটি ব্যক্তিকে নিজ পরিবারে সুপ্রভাত বলা হয়, অথচ মৃত্যু তার জুতার ফিতার চেয়েও অতি নিকটে।’ মানুষকে যে কোনো সময় আল্লাহর ডাকে সাড়া দিতে হতে পারে। কেউ জানে না, কখন, কোথায়, কীভাবে আল্লাহ তাকে তলব করবেন। আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘কেউ জানে না, আগামীকাল সে কী অর্জন করবে। আর কেউ জানে না, কোন স্থানে সে মারা যাবে। নিশ্চয়ই আল্লাহ সর্বজ্ঞ।’ (সুরা লুকমান :৩৪)

এ কারণে মুসলিম-অমুসলিম কারও অসুস্থতা ও মৃত্যু নিয়ে ট্রল করতে নেই। হাদিসে আছে, একদিন রাসুলের (সা.) পাশ দিয়ে একটি জানাজা যাচ্ছিল। তখন তিনি দাঁড়িয়ে যান। এ সময় তাকে বলা হয়েছিল, জানাজাটি একজন ইহুদির। তিনি বলেছিলেন, ‘সেকি মানুষ নয়?’ (সহিহ বুখারি :১৩১২)

মহানবি (সা.) একজন অমুসলিমের মৃত্যুতেও সহমর্মিতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন। অথচ আমরা নোংরা রাজনীতি করতে গিয়ে হিংসার বশীভূত হয়ে অপর মুসলিমকে নিয়ে কুৎসা রটনা করছি প্রতিনিয়ত। রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন, ‘তোমরা কারও প্রতি (খারাপ) ধারণা থেকে বিরত থাকো। কেননা, কারও প্রতি (খারাপ) ধারণা করা সবচেয়ে বড় মিথ্যা। তোমরা অন্যের দোষ অন্বেষণ করো না, অন্যের পেছনে গোয়েন্দাগিরি করো না, পরস্পর হিংসাকাতর হয়ো না, একে অন্যের প্রতি বিদ্বেষভাব পোষণ করো না এবং পরস্পর বিরোধে লিপ্ত হয়ো না। বরং তোমরা সবাই আল্লাহর বান্দা ভাই ভাই হয়ে থেকো।’ (সহিহ বুখারি : ৬০৬৪)

 

প্রচলিত কুসংস্কারের বিরুদ্ধে ধর্মীয় ব্যখ্যা, সমাজের কোন অমীমাংসিত বিষয়ে ধর্মতত্ত্ব, হাদিস, কোরআনের আয়াতের তাৎপর্য কিংবা অন্য যেকোন ধর্মের কোন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, সর্বপরি মানব জীবনের সকল দিকে ধর্মের গুরুত্ব নিয়ে লিখুন আপনিও- [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড