• রোববার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির গোলটেবিল বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  কামরুজ্জামান হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি

২৪ মার্চ ২০২৩, ১৪:১০
হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির গোলটেবিল বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী
হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেন (ছবি : অধিকার)

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সঠিক পথেই রয়েছে। কথাটি বলেছেন- বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেন। গত সোমবার (২০ মার্চ) যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির কেনেডি স্কুল অ্যাশ সেন্টার আয়োজিত 'বাংলাদেশ: অ্যাচিভমেন্টস, চ্যালেঞ্জস অ্যান্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড' শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান বক্তা হিসেবে তিনি একথা বলেছেন।

গোলটেবিল আলোচনাটি উল্লেখযোগ্য দিক ছিল- কেনেডি স্কুলের ফ্যাকাল্টি সদস্য, গবেষক এবং স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ। অনুষ্ঠানটি নীতিনির্ধারক, শিক্ষাবিদ এবং বিশেষজ্ঞদের জন্য অভ্যন্তরীণ এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সাফল্য, বর্তমানে দেশ যে চ্যালেঞ্জগুলোর মুখোমুখি হচ্ছে এবং এটির প্রতিশ্রুতি নিয়ে আলোচনায় যুক্ত হওয়ার জন্য একটি অনন্য সুযোগ ছিল।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন দারিদ্র্য বিমোচন, নারীর ক্ষমতায়ন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, ডিজিটাল রূপান্তরের পাশাপাশি বিদ্যুৎ ও পরিবহন অবকাঠামো উন্নয়নসহ অর্থনৈতিক ও উন্নয়নমূলক দৃশ্যপটে দেশের অভূতপূর্ব অগ্রগতির ওপর জোর দেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের বাংলাদেশকে 'সোনার বাংলা'তে পরিণত করার জন্য সরকারের দৃঢ় প্রতিশ্রুতি এবং ফলাফলমুখী কৌশলের কথা পুনর্ব্যক্ত করে, ড. মোমেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও গতিশীল নেতৃত্বকে বাংলাদেশের এই অভূতপূর্ব উন্নয়নের কৃতিত্ব প্রদান করেন। একটি স্থিতিশীল অর্থনীতি এবং একটি বিনিয়োগ গন্তব্যে বিকশিত হওয়ার বাংলাদেশের সাফল্যের গল্প তুলে ধরেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন। অর্থনৈতিক সাফল্যের সেই লক্ষ্যে তিনি বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের বিষয়টি উল্লেখ করেন। উন্নয়নের রোডম্যাপকে আন্ডারলাইন করে তিনি ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ রূপকল্প বাস্তবায়নে প্রযুক্তি, উদ্ভাবন ও গবেষণার ভূমিকার ওপর জোর দেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আঞ্চলিক প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের ভূমিকা ও অবদানের ওপর আলোকপাত করেন, বিশেষ করে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সহযোগিতা ও অংশীদারিত্বের গুরুত্ব তুলে ধরেন। মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ তার পররাষ্ট্র নীতির উদ্দেশ্য “সকলের সাথে বন্ধুত্ব, কারও প্রতি বিদ্বেষ নয়” অনুযায়ী এই অঞ্চলে এবং এর বাইরে শান্তি, সম্প্রীতি ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আলোচনায় রোহিঙ্গা সঙ্কট, জলবায়ু পরিবর্তন, মহামারী পরবর্তী বাস্তবতার পাশাপাশি বৈশ্বিক রাজনৈতিক, আর্থিক, অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা অনিশ্চয়তার কারণে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার ওপরও আলোকপাত করা হয়।

অ্যাশ সেন্টারের আন্তর্জাতিক বিষয়ক অধ্যাপক এবং হার্ভার্ড কেনেডি স্কুলের রাজাওয়ালি ফাউন্ডেশন ইনস্টিটিউট ফর এশিয়ার পরিচালক অ্যান্থনি সাইচ স্বাগত বক্তব্য রাখেন এবং গোলটেবিল বৈঠকে উপস্থিত থাকার জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম সমাপনী বক্তব্য রাখেন এবং আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে বাংলাদেশ সরকার এবং অ্যাশ সেন্টারের মধ্যে সহযোগিতা আগামী দিনে আরও সুসংহত হবে।

প্রবাস জীবন, আকাঙ্খা, প্রত্যাশা-প্রাপ্তির সমীকরণ সবই লিখুন দৈনিক অধিকারকে [email protected] আপনার প্রবাস জীবনের প্রতিটি ক্ষুদ্র অনুভূতিও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড