• বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

৫৩ কর্মীর ছবি ভাইরাল : প্রশংসায় ভাসছেন হাইকমিশনার

  আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া প্রতিনিধি

১৪ আগস্ট ২০২২, ১৪:৩৭
৫৩ কর্মীর ছবি ভাইরাল : প্রশংসায় ভাসছেন হাইকমিশনার
মালয়েশিয়ায় উপস্থিত বাংলাদেশি শ্রমিক ও হাইকমিশনের কর্মকর্তারা (ছবি : অধিকার)

দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে মালয়েশিয়া কর্মী যাওয়া শুরু হয়েছে। জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) ছাড়পত্র নিয়ে ৫৩ জন কর্মীর প্রথম দলটির যাত্রা শুরু হয়।

কূটনীতিকরা বলছেন, মালয়েশিয়ার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশের নতুন মাইলফলক।

গত ৯ আগস্ট ৫৩ জন কর্মীকে মালয়েশিয়া বিমানবন্দরে স্বাগত জানান দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. গোলাম সারোয়ার। এ সময় কর্মীদের সাথে হাইকমিশনার ছবিও তুলেন। এই সময়ে হাই কমিশনের শ্রম উইংয়ের মিনিস্টার নাজমুস সাদাত সেলিমসহ মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা ও দুই দেশের সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

গ্রুপ ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়। ভাইরাল ছবির ক্যাপশনে অনেকে লিখেছেন, শ্রমিক বান্ধব হাইকমিশনার স্যালুট তাকে। আরেকজন লিখেছেন, আগে কখনো এই ব্যবহারের নজির আছে ভদ্রলোকের? যদি প্রবাসীদের সাথে এরকম পূর্বের নজির থাকে তাহলে কথা নেই, স্যালুট।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের আগস্টে বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ বন্ধের ঘোষণা আসে মালয়েশিয়ার পক্ষ থেকে। দীর্ঘ আলোচনা-যোগাযোগের পর গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর দুই দেশের মধ্যে এ সংক্রান্ত একটি সমঝোতা সই হয়। পরে গত জুন মাসে ঢাকায় যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে শ্রমবাজার খোলার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়। একই সঙ্গে জুনের মধ্যে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর বিষয়ে ঘোষণা দেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। কিন্তু দীর্ঘসূত্রতা কিছুতেই পিছু ছাড়ছিল না মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারের। সব দীর্ঘসূত্রতা কাটিয়ে অবশেষে দেশটিতে যাচ্ছেন বাংলাদেশি কর্মীরা।

বিএমইটি সূত্র বলছে, ক্যাথারসিস ইন্টারন্যাশনালের মাধ্যমে এসব কর্মী ফ্যাক্টরি ওয়ার্কার হিসেবে মালয়েশিয়ায় গেলেন। তাদের বেতন ১৫০০ মালয়েশিয়ান রিংগিত, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ৩২ হাজার টাকা। শর্ত অনুসারে তাদের চুক্তি তিন বছরের। ওয়ান ওয়ে প্লেন ভাড়া, বাসস্থান ও যাতায়াত ফ্রি পাবেন কর্মীরা। তবে খাবার ব্যবস্থা করতে হবে নিজেকে।

দীর্ঘ চার বছরের অচলায়তন ভেঙে মালয়েশিয়ার নতুন করে বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ শুরু হওয়াতে হাই কমিশনার গোলাম সারোয়ারে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বাংলাদেশের ও মালয়েশিয়ার সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

আগামী তিন বছরের মধ্যে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের প্রায় ৫ লক্ষাধিক নতুন লোকের কর্মসংস্থান হবে এবং এর মাধ্যমে মালয়েশিয়া থেকে বাংলাদেশের প্রেরিত মোট রেমিট্যান্স তিন বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করবে বলে আশা করছেন তিনি।

এ দিকে ৫৩ কর্মী মালয়েশিয়ায় আসার পর সার্বক্ষণিক তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন হাইকমিশনের সংশ্লিষ্টরা। কর্মীরা ভাল আছেন, জানিয়েছেন হাইকমিশনের লেবার মিনিস্টার নাজমুস সাদাত সেলিম । অন্যান্য প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেই কর্মীরা আগামী দু’একদিনের মধ্যে নতুন কাজে যোগ দেবেন, এমনটিই নিয়োগ কর্তাদের কাছ থেকে জানা গেছে।

অপর দিকে ৫৩ জন বাংলাদেশি কর্মীকে গ্রহণ করার পর দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে নোটিশের মাধ্যমে তাদের স্বাগত জানানো হয়। নোটিশে আরও বলা হয় এমওইউ স্বাক্ষর অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ দেওয়া হবে। এ পর্যন্ত ৮০ টি কোম্পানির নিয়োগ কর্তার কাছ থেকে আবেদন মন্ত্রণালয়ে জমা পড়েছে এবং সে গুলো সত্যায়নের জন্য বাংলাদেশ দূতাবাসে পাঠানো হয়েছে। সত্যায়ন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে এই কোম্পানিগুলোতে পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশি কর্মী মালয়েশিয়ায় আসবেন।

প্রবাস জীবন, আকাঙ্খা, প্রত্যাশা-প্রাপ্তির সমীকরণ সবই লিখুন দৈনিক অধিকারকে [email protected] আপনার প্রবাস জীবনের প্রতিটি ক্ষুদ্র অনুভূতিও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড