• মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ওমর ফারুক যুবলীগে থাকবে কি না এ সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রীর : যুবলীগ

  অধিকার ডেস্ক

১১ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৫০
সভা
যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত প্রেসিডিয়াম সভা (ছবি : সংগৃহীত)

ওমর ফারুক চৌধুরীর যুবলীগে থাকা বা না থাকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার প্রধানমন্ত্রীর হাতে সোপর্দ করেছে যুবলীগ। 

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক প্রেসিডিয়াম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

সভা শেষে যুবলীগ নেতারা জানান, ওমর ফারুক চৌধুরীর যুবলীগে থাকা কিংবা না থাকা অথবা তাকে যুবলীগে রাখা বা না রাখার বিষয়ে যদি কোনো সিদ্ধান্ত নিতে হয় তাহলে সেটি নেবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জাতীয় কংগ্রেসের গুরুত্বপূর্ণ এ বৈঠকটিতে সংগঠনের অধিকাংশ প্রেসিডিয়াম সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। তবে, সভায় যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর অনুপস্থিতি উপস্থিত অনেককেই অবাক করেছে।

সভা শেষে বৈঠকে অংশ নেওয়া যুবলীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দুই ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যেগুলোর মধ্যে একটি সিদ্ধান্ত হলো যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দফতর সম্পাদক কাজী আনিসুর রহমানের বহিষ্কার। এ সময় শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে যুবলীগ থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে উল্লেখ করে বৈঠকের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ।

প্রসঙ্গত, কাজী আনিসুর রহমান যুবলীগের দফতর সম্পাদক পদে নিয়োজিত ছিলেন। যুবলীগ অফিসের পিয়ন থেকে তিনি কেন্দ্রীয় নেতা হয়ে যান। এছাড়া তিনি যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত ছিলেন। দুর্নীতি-মাদক-ক্যাসিনোবিরোধী শুদ্ধি অভিযান শুরু হলে গা ঢাকা দেন বিতর্কিত এই নেতা।

অনুষ্ঠিত এ সভায় যুবলীগ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগগুলো নিয়ে আলোচনা করা হয় বলেও জানা গেছে। তবে, এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার প্রধানমন্ত্রীর ওপর ছেড়ে দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, রাজধানীতে মাদক ও ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হলে গ্রেফতার হন যুবলীগের বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী নেতা। এরপরই বিভিন্ন গণমাধ্যমে উঠে আসে এসব নেতাদের সঙ্গে যুবলীগ নেতার সখ্যের বিভিন্ন তথ্য। তাদের মদদেই রাজধানীতে অনেক যুবলীগ নেতা অবৈধ এ ক্যাসিনো ব্যবসা করেন বলেও অভিযোগ ওঠে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগও রয়েছে। এসবের পরিপ্রেক্ষিতেই পরে ওমর ফারুক চৌধুরীর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। পাশাপাশি তলব করা হয় তার ব্যাংক হিসাব। এরপর থেকে রাজনীতি থেকে অনেকাংশেই আড়ালে চলে যান ওমর ফারুক চৌধুরী। তার এসব অভিযোগের বিষয়েই শুক্রবারের সভায় আলোচনা হয়। পরে সভা শেষে যুবলীগ নেতারা জানান, যুবলীগ চেয়ারম্যানের বিষয়ে সকল সিদ্ধান্ত আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। তিনিই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। 

সপ্তম কংগ্রেস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত, শেখ শামসুল আবেদীন, আলতাব হোসেন বাচ্চু, মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, মজিবুর রহমান চৌধুরী, মো. ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান হিরণ, আবদুস সাত্তার মাসুদ, মো. আতাউর রহমান, অ্যাডভোকেট বেলাল হোসাইন প্রমুখ।

ওডি/আইএইচএন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড