• মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শুদ্ধি অভিযানে যে ভাবনায় আ. লীগ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২২:৩৪
ক্যাসিনোতে র‍্যাবের অভিযান
রাজধানীতে অবৈধ ক্যাসিনোতে র‍্যাবের অভিযান (ফাইল ফটো)

দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। টানা তিন মেয়াদে ক্ষমতায় এসে দলীয় প্রধানের নির্দেশে শুরু হয়েছে শুদ্ধি অভিযান। এক বৈঠকে ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে কঠোর অবস্থানের কথা জানান দেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপরই ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই পদে আসে পালাবদল। সেই বৈঠকেই কয়েজন যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান। এর কিছুদিন পরই র‍্যাবের অভিযানে অবৈধ ক্যাসিনোতে মাদক ও অস্ত্রসহ আটক হন নগর দক্ষিণ যুবলীগের শীর্ষ এক নেতা।

এ দিকে আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনগুলোতে চাঁদাবাজি ও দুর্নীতির দৌরাত্ম্য রুখে দিতে বড় নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন শেখ হাসিনা। যুবলীগ নেতা আটকের পরদিন গণভবনে ছাত্রলীগের নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ছাত্রলীগের পর এবার যুবলীগকে ধরেছি। কোনো নালিশ শুনব না। 

প্রধানমন্ত্রীর এমন ঘোষণাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন দল এবং দলের বাইরে সাধারণ মানুষ। দুর্নীতিবাজদের জন্য এটা বড় সতর্ক বার্তা বলেও মত দিয়েছেন রাজনীতি বিশ্লেষকরা। 

অপরদিকে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) হঠাৎ নড়েচড়ে বসেছে কেন? আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আগে ব্যবস্থা নেয় নি কেন? যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুকের এমন বক্তব্য কিছু প্রশ্নের জন্ম দেয় সাধারণ মানুষের মনে। এমন অবস্থায় প্রধান বিরোধী দল বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা সমালোচনার সুযোগ নিয়েছেন। সরকারের সমালোচনা করে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেছেন, দুর্নীতির সঙ্গে ক্ষমতাসীন দলের নেতা কর্মীরা জড়িত। এমন অবস্থায় নতুন নির্বাচনের দাবিও জানিয়েছেন তিনি।

বিরোধীমতের সমালোচনার জবাব দিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। সংবাদ মাধ্যমকে তিনি জানান, আওয়ামী লীগ দশ বছর ধরে টানা ক্ষমতায় আছে। দীর্ঘ এ সময়ের মধ্যে অনেক সাবেক মন্ত্রী, এমপি ও নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। তাই এটি নতুন কিছু নয়। অপরাধ করলে আওয়ামী লীগে শাস্তি আছে। এটাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির দৃষ্টান্ত। 

আওয়ামী লীগ এখন কেন শুদ্ধি অভিযান চালাচ্ছে- এমন কথার কোনো যুক্তি নাই। যখনি তথ্য এসেছে, তখনি সমূলে ধ্বংস করার জন্য অভিযান চালানো হয়েছে।

আওয়ামী লীগের শুদ্ধি অভিযানকে কীভাবে দেখছে মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীরা? 

শরীয়তপুর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সামিনা ইয়াসমিন সাংবাদিকদের বলেন, দলের মধ্যে অপরাধীদের ঠাঁই হবে না। দুর্নীতির বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ আপোষহীন। এ অভিযানের মাধ্যমে দল পরিষ্কার থাকবে।

ফরিদপুরের আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আইভি মাসুদ বলেন, আওয়ামী লীগের মধ্যে দুর্নীতিবাজদের ঠাঁই হবে না। এ ধরনের অভিযোগ দলের ভাবমূর্তির ক্ষতি করে। এমন অভিযান দরকার।

দেশজুড়ে শুদ্ধি অভিযান চালানোর কথা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। শনিবার কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের এক সভায় তিনি বলেন, দলের ভেতরে তৈরি হওয়া আগাছা পরিষ্কার করতে অ্যাকশন শুরু করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুধু ঢাকা নয়, সারা দেশে শুদ্ধি অভিযান চলবে। 

এ অভিযানের মাধ্যমে টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ, দুর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসীদের নির্মূল করা হবে। যত বড় মাস্তান হোক, যত বড় নেতাই হোক, যত বড় প্রভাবশালী হোক কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

এরই মধ্যে রাজধানী থেকে এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীম নামে এক প্রভাবশালী ঠিকাদারকে আটক করা হয়েছে। তিনি যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা পরিচয়ে অবৈধভাবে গড়ে তুলেন সম্পদের পাহাড়। তার কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে বিদেশি মুদ্রা, মদ, আগ্নেয়াস্ত্র, মাদক, নগদ অর্থ, ২০০ কোটি টাকার এফডিআর চেক উদ্ধার করা হয়। সেখান থেকে শামীমসহ তার সাত দেহরক্ষীকে আটক করা হয়। পরে আদালত শামীমকে ১০ দিনের পুলিশি রিমান্ডে পাঠায়। 

এ দিন ঢাকার কলাবাগান ক্রীড়াচক্র ক্লাব থেকে বিশেষ ধরনের ইয়াবা, ক্যাসিনো সামগ্রী, একটি বিদেশি পিস্তল, বিপুল পরিমাণ জুয়া খেলার সরঞ্জাম উদ্ধারের ঘটনায় ক্লাবের সভাপতি শফিকুল আলম ফিরোজসহ মোট পাঁচজনকে আটক করে র‍্যাব। তাকেও ১০ দিনের রিমান্ডে পাঠায় আদালত। 

ক্যাসিনো-কাণ্ডের পর দেশজুড়ে চলমান অভিযানের অংশ হিসেবে চট্টগ্রামের তিনটি ক্লাবে অভিযান চালায় র‌্যাব। শনিবার সন্ধ্যা সাতটা থেকে নগরীর হালিশহর আবাহনী ক্লাব, সদরঘাটের মোহামেডান ক্লাব ও আইস ফ্যাক্টরি রোডের বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রে এ অভিযান চালানো হয়। 

এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আওয়ামী লীগের নেতারাও আশা করছেন অভিযান নিয়ে কিছু সমালোচনা হলেও এটা ইতিবাচক। 

ওডি/এসএ 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড