• মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন

বহিষ্কৃত জাহিদুরকে সংসদে হৈ চৈ ফেলতে বললেন ফখরুল  

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৮ জুন ২০১৯, ১০:২৫
মির্জা ফখরুল
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর (ছবি : ফাইল ফটো)

দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে একাদশ সংসদে শপথ গ্রহণ করায় বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত জাহিদুর রহমান দলে ছিলেন এবং আগামীতে দলেই থাকবেন বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তবে জাহিদুরকে সংসদে হৈ চৈ ফেলার মতো বক্তব্য দেওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি।

সোমবার (১৭ জুন) সন্ধ্যায় ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ পৌর অডিটোরিয়ামে বিএনপির কর্মী সভায় বক্তৃতা করেন ফখরুল। ঠাকুরগাঁও-৩ (পীরগঞ্জ-রানীশংকৈল) আসন থেকে ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে জয়ী হওয়ার পর সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেওয়ায় পীরগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি পদসহ সব পর্যায় থেকে বহিষ্কৃত জাহিদুরের অনুসারীর অনেক নেতা এতে উপস্থিত ছিলেন।

জাহিদুর রহমানকে চাচা সম্বোধন করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, জাহিদুর রহমান আমার অত্যন্ত কাছের মানুষ। তাকে অপেক্ষা করার জন্য আমি বহুবার বলেছিলাম। কিন্তু তিনি শোনেননি। দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়েই তিনি শপথ নিয়েছিলেন। এজন্য দল তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। 

ধৈর্য ধরলে এমন হতো না বলে জানিয়ে ফখরুল বলেন, জাহিদুরের জন্ম বিএনপিতেই। তিনি বিএনপির নিবেদিতপ্রাণ। তার বিষয়ে দলের নেতাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তিনি বিএনপিতে ছিলেন এবং আগামীতে তিনি বিএনপিতেই থাকবেন। এরজন্য আপনাদের চিন্তার কোনো কারণ নেই।

তবে দলে ফেরার পথ সুগম করতে জাহিদুর রহমানের করণীয় কি এ সম্পর্কে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা চাই সংসদে জাহিদুর রহমান এমন একটা বক্তব্য দিন, যেন দল থেকে তার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে সারাদেশে হৈ-চৈ পড়ে যায়। আশা করি তিনি তা করবেন।

তিনি বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় যে নেত্রী কারাগারে বন্দী ছিলেন, স্বামীর (প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান) মৃত্যুর পর যে নেত্রী গণতন্ত্রের জন্য ৯ বছর সংগ্রাম করেছেন, এখন জেলের অন্ধকারে বসে তিনি গণতন্ত্রের জন্য, এদেশের মানুষের মুক্তির জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছেন। 

খালেদা জিয়ার মুক্তির লক্ষ্যে সকলকে রাজপথে নেমে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে নামার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, ঘরের মধ্যে সভা-সমাবেশ করলেই হবে না। খালেদা জিয়ার মুক্তি ও (বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন) তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে ঐক্যবদ্ধ সংগ্রাম করতে হবে। মানুষকে জাগ্রত করে রাজপথে বের করে আনতে হবে। আর এজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। 

আগামীতে দলে তরুণদেরকেই মূল্যায়ন করা হবে জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তরুণরাই পারে এদেশের পরিবর্তন ঘটাতে। আগামীতে তাদেরকেই মূল্যায়ন করা হবে।

উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি একেএম মঈনুল ইসলাম সোহাগের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল ইসলাম জিয়াসহ বিএনপির শীর্ষ নেতারা।

ওডি/এআর 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড