• বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন

‘খালেদা ৬টি বালিশ কিনেছেন ৪ লাখ টাকায়’

  অধিকার ডেস্ক    ২৫ মে ২০১৯, ১৪:৫৩

আশরাফুল আলম খোকন
প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন (ফাইল ফটো)

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের গ্রিন সিটি প্রকল্পের আসবাবপত্র কেনা-তোলা নিয়ে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ ওঠার পর টনক নড়ে সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের। এরই মধ্যে প্রত্যাহার হলেন প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদুল আলম। গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় আটকে দিয়েছে আসবাবপত্র সম্পর্কিত বিলও। প্রতিটি বালিশের মূল্য দেখানো হয়েছে পাঁচ হাজার ৯৫৭ টাকা। অন্য জিনিসের দামও অস্বাভাবিক দেখানো হয়।

বিষয়টি নিয়ে এখনো বইছে সমালোচনার ঝড়। দুদক বিষয়টি খতিয়ে দেখার কথা জানিয়েছে। এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

‘বালিশ দুর্নীতি’র বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন জানিয়েছেন, চারদলীয় শাসনামলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জন্য চার লাখ টাকা দিয়ে ৬টি বালিশ কেনা হয়েছিল।

বৃধবার (২২ মে) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক পোস্টে তিনি এ তথ্য জানান।

আশরাফুল আলম খোকন ফেসবুকে লিখেছেন, ‘বালিশের দাম নিয়ে আপনি চিন্তিত? ভাবছেন দেশ রসাতলে যাচ্ছে? ভাবনা চিন্তা করা ভালো, কিন্তু বেশি চিন্তিত হবেন না। সব দেশেই অঘটন ঘটে, এর প্রতিকার না হলে সমস্যা। শেখ হাসিনার সরকার তাৎক্ষণিক এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছেন। কেন এরকম হলো এর তদন্ত চলছে। আপাতত বিল বন্ধ। শাস্তিও হবে। কোনও অনিষ্টকারী শেখ হাসিনার হাত থেকে রেহাই পায় না। ইতিহাস তাই বলে…।’

‘কিন্তু আপনি কি জানেন, বাংলাদেশে ১৯৯১ সালের ২৯ মার্চ ৭৮ হাজার টাকা মূল্যের ৬টি বালিশ কেনা হয়েছিল ৪ লাখ ৬৮ টাকা দিয়ে। বিশ্বের বিখ্যাত কোম্পানির বালিশ। যার বর্তমান মূল্য ৪০ লাখ টাকার কাছাকাছি। এই বালিশগুলো কেনা হয়েছিল বেগম খালেদা জিয়ার জন্য।’

‘আপনি কি জানেন, এই বেগম খালেদা জিয়ার জন্যই ২০০২ সালে ইতালি থেকে ৬টি বালিশ কেনা হয়েছিল। যার প্রতিটির মূল্য ছিল ১ লাখ ৩২ হাজার টাকা।’

ওডি/এমআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড