• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

‘আ. লীগ কচুপাতার পানি নয় যে টোকা দিলেই পরে যাবে’

  আব্দুল মালেক মিয়া, স্টাফ রিপোর্টার (গাজীপুর)

০৩ নভেম্বর ২০২২, ১৩:৫৪
‘আ. লীগ কচুপাতার পানি নয় যে টোকা দিলেই পরে যাবে’

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, সংবিধানকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখালে আমরা আঙ্গুল চুষবো না। আহাম্মকের স্বর্গে বাস করেছেন? আওয়ামী লীগ কচুপাতার পানি নয়, যে টোকা দিলেই পরে যাবে। যাদের কাছে রাষ্ট্রীয় সম্পদ দুরে থাক এতিমের টাকাও নিরাপদ নয় সেই চোরের মায়ের বড় গলা। বিদেশে থেকে ইউটিউবে অপপ্রচার করে মনে করেছে এটাই শক্তি। মিথ্যাচার করে, অপপ্রচার করে পার পাবেন না।

তিনি আরও বলেন, আমাদের নেত্রী সাংবিধানিকভাবে যেমন রাষ্ট্র পরিচালনা করেন, তেমনি দলকে নিভৃত রাখেন- যাতে কোনো রকম উচ্ছৃঙ্খল না হয়। তাই আমরা অনুরোধ করি গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় রাজনীতি করেন, কেউ বাধা দেয়নি দিবেও না। কিন্তু যদি আইন আপনারা হাতে তুলে নেন যদি সংবিধানকে চ্যালেঞ্জ করে কোনো কর্মসূচি দেন তাহলে তার পরিণাম ভালো হবে না।

গত মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ মাঠে বাসন থানা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, যারা বিভিন্ন ভাবে সরকারকে হুমকি দিচ্ছে তাদের জন্ম ক্যান্টনমেন্টে। বঙ্গবন্ধুকে সপরিবার হত্যা করে খুনি জিয়া ক্যান্টনমেন্টে বসে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করে রাষ্ট্রীয় সম্পদ উচ্ছিষ্ট বিতরণ করে বিএনপিকে সৃষ্টি করেছিল। বিএনপি, আওয়ামী লীগের মত রাজপথে সৃষ্টি হয়নি।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের প্রত্যক্ষভাবে বিরোধিতাকারী অপশক্তিরা বলে পাকিস্তান ভালো ছিল। বিএনপি বিহারীদের মত নতুন দালাল সাজতে চায়। যারা পাকিস্তানিদের চায়, মুক্তিযোদ্ধারা জানে তাদের কিভাবে পাকিস্তান পাঠাতে হবে। কিছু বললেই আপনাদের বিদেশি প্রভুরা বলবে মানবাধিকার নেই। ৩০ লক্ষ লোক শহীদ হয়ে কয়েক লক্ষ লোক পঙ্গু হয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছে। সেই মুক্তিযোদ্ধারা যদি রাস্তায় নামে, কি হবে একবার ভেবে দেখেন।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেছেন, বিদেশি প্রভুদের কিছু আশ্বাসে নর্দন-কোর্দন করেন। যে প্রভুরা উস্কানি দিয়ে গাছে উঠাচ্ছে শেষে কিন্তু মই থাকবে না। আবার যদি বলেন ১০ ডিসেম্বরের পরে আওয়ামী লীগ সরকার থাকবে না। তাহলে ১১ তারিখ যারা অবৈধ ভাবে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসার স্বপ্ন দেখে, সংবিধানকে লঙ্ঘন করে, তাদের কথা বলারই সুযোগ দেয়া হবে না। আপনাদের যে পরিণত হবে, সে জন্য আওয়ামীলীগ বা শেখ হাসিনা দায়ী থাকবে না।

অনুষ্ঠানে সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহবায়ক ও মহানগরীর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আফজার হোসেন সরকার রিপনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি এমপি, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাহাবুদ্দিন ফরাজী, আনোয়ার হোসেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লাহ খান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আতাউল্লাহ মণ্ডল প্রমুখ।

সম্মেলনে অধ্যাপক (অব.) আব্দুল বারীকে সভাপতি, ফাইজুল আলম দিলীপকে সিনিয়র সহ সভাপতি, আবুল কাশেমকে সাধারণ সম্পাদক ও শফিকুল ইসলাম শফি, আমির হোসেন, রকিব সরকারকে যথাক্রমে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাম ঘোষণা করে বাসন থানা আওয়ামী লীগের ছয় সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড