• সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৪ ফাল্গুন ১৪২৬  |   ১৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

যুদ্ধাপরাধ মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সোবহানের মৃত্যু

  অধিকার ডেস্ক

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৮:১৫
আবদুস সোহবান
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আবদুস সোহবান ( ফাইল ফটো )

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আবদুস সোবহান মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সুবহানের আত্মীয় গোলাম হাদী সাঈদী। 

শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি মারা যান।

আবদুস সোবহান জামায়াতের সাবেক নায়েবে আমির ছিলেন। তিনি পাবনা-৫ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

সোবহানের আত্মীয় গোলাম হাদী সাঈদী জানান, আবদুস সোবহান কাশিমপুর কারাগারে ছিলেন। দীর্ঘদিন কারাগারে থেকে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

জানা গেছে, গত ২৪ জানুয়ারি অসুস্থ অবস্থায় আবদুস সোবহানকে কাশিমপুর কারাগার থেকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসা হয়। বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন তিনি। শুক্রবার দুপুর ১টা ৩৩ মিনিটে তিনি মারা যান।

এ বিষয়ে ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইন্সপেক্টর বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রয়েছে।

জামায়াতের কর্মপরিষদের সদস্য এহসান মাহবুব যোবায়ের জানান, হাসপাতাল ও কারাগারের আনুষ্ঠানিকতা শেষে আবদুস সোবহানের মরদেহ পাবনা নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানেই তার দাফন সম্পন্ন হবে।

আরও পড়ুন: ৫ ঘণ্টা থানায় আটক ভাইস চেয়ারম্যান, মুচলেকায় মুক্তি

২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্ত থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সোবহানকে আটক করে। ২৩ সেপ্টেম্বর তাকে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারেই ছিলেন।

২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২-এর বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল আবদুস সোবহানকে মৃত্যুদণ্ড দেন।

ওডি/এসএএফ 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: inbox.o[email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড