• বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জিয়া এক নম্বর, খালেদা দুই নম্বর রাজাকার : শেখ সেলিম

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:২৭
খালেদা
জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও শেখ সেলিম (ছবি : সংগৃহীত)

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ও তার স্ত্রী খালেদা জিয়া এক নম্বর ও দুই নম্বর রাজাকার ছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম।

শেখ সেলিম বলেন, জিয়াউর রহমান ছিল সবচেয়ে বড় রাজাকার, আমার কাছে তার প্রমাণ আছে। কেউ যদি মুক্তিযুদ্ধে বাঙালি জাতির সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করে থাকেন, তাহলে সেটা জিয়াউর রহমান করেছেন।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) বিকালে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, অনেকেই বলে জিয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিল। এ রকম কথা তার সম্পর্কে বলে কেন? আমি একটা কথা স্পষ্ট করে বলতে চাই, জিয়াউর রহমান সবচেয়ে বড় রাজাকার ছিল। আমি তার প্রমাণ দিচ্ছি। আমার কাছে তার প্রমাণ আছে। প্রমাণ ছাড়া আমি কথা বলি না।

শেখ সেলিম বলেন, কেউ যদি মহান মুক্তিযুদ্ধে এ জাতির সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করে থাকে, তবে সেটা জিয়া করেছে।

মুক্তিযুদ্ধের সময় জিয়া পাকিস্তানের এজেন্ট ছিলেন উল্লেখ করে শেখ সেলিম বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে তিন শ্রেণির লোক মুক্তিযুদ্ধে যোগদান করে। বঙ্গবন্ধুর ডাকে এক শ্রেণি মুক্তিযুদ্ধে গেছে। আরেক শ্রেণি ছিল জীবন বাঁচানোর ধান্দায়, তারা ভারতে গিয়ে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে নিজের নাম লেখিয়েছিল। আরেক শ্রেণি পাকিস্তানের এজেন্ট হিসেবে কাজ করেছে। সেই এজেন্টই জিয়া ছিল।

জিয়া ছিল সবচেয়ে বড় রাজাকার তার প্রমাণ হিসেবে আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় পাক আর্মির একজন কর্নেল ছিল। চিহ্নিত ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীর মধ্যে অন্যতম একজন হলো— এই কর্নেল আসলাম বেগ। তিনি জিয়াউর রহমানকে লিখেছেন— মেজর জিয়াউর রহমান, পাকিস্তান আর্মি ঢাকা— তোমার কাজে আমরা খুশি। তুমি (জিয়াউর রহমান) ভালো কাজ করেছো, এটা অবশ্যই আমাদের বলতে হবে। তুমি শিগগিরই নতুন কাজ পাবে। তোমার পরিবার নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। তোমার স্ত্রী (খালেদা জিয়া) ও সন্তানরা ভালো আছে।

আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর এই সদস্য বলেন, ওনাকে (খালেদা জিয়া) দেখাশোনা করার দায়িত্বে ছিলেন ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীর একজন জানজুয়া। যখন যুদ্ধাপরাধী জানজুয়া মারা যায়, তখন উনি (খালেদা জিয়া) প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে শোক বার্তা পাঠান। একজন রাজাকার ছাড়া অন্য কেউ এই যুদ্ধাপরাধীদের প্রতি সহানুভুতি দেখাতে পারে না বলেও মন্তব্য করেন শেখ সেলিম।

আরও পড়ুন : জিয়া বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলতে চেয়েছিল : প্রধানমন্ত্রী

তিনি বলেন, বেসিক্যালি এই দুজনই (জিয়াউর রহমান ও খালেদা জিয়া) এক নম্বর এবং দুই নম্বর রাজাকার ছিল।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন— আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ দলের শীর্ষ নেতারা।

ওডি/টিএএফ

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড