• বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
তিস্তা ব্যারেজের গেট খোলার ফলে নীলফামারীতে ভয়াবহ বন্যা
১/৭
তিস্তা ব্যারেজের গেট খোলার ফলে নীলফামারীতে ভয়াবহ বন্যা
তিস্তা ব্যারেজের গেট খোলার ফলে নীলফামারীতে ভয়াবহ বন্যা
২/৭
তিস্তা ব্যারেজের গেট খোলার ফলে নীলফামারীতে ভয়াবহ বন্যা
নিমিষেই বাঁধের আশেপাশের প্রায় ১৫ টি গ্রাম পানিতে তলিয়ে যায়। তাছাড়াও নদীর আশেপাশের ২ হাজার হেক্টর আমন ধানের খেত পানিতে তলিয়ে গিয়েছে। বাড়ি-ঘরে পানি প্রবেশ করে হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পরে। পানির পরিমাণ কোথাও কোমর পর্যন্ত আবার কোথাও গলা পর্যন্ত দেখা গেছে।
৩/৭
নিমিষেই বাঁধের আশেপাশের প্রায় ১৫ টি গ্রাম পানিতে তলিয়ে যায়। তাছাড়াও নদীর আশেপাশের ২ হাজার হেক্টর আমন ধানের খেত পানিতে তলিয়ে গিয়েছে। বাড়ি-ঘরে পানি প্রবেশ করে হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পরে। পানির পরিমাণ কোথাও কোমর পর্যন্ত আবার কোথাও গলা পর্যন্ত দেখা গেছে।
এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হটাৎ তিস্তা নদী ফুঁসে গিয়ে বন্যার সৃষ্টি হয়। এমন বন্যা অনেকেই দেখেননি বলে জানান। আবার অনেক প্রবীণ ব্যক্তিরা জানান, ৭৫ ও ৮৮ বন্যার চেয়ে আজকের বন্যা ভয়াবহ।
৪/৭
এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হটাৎ তিস্তা নদী ফুঁসে গিয়ে বন্যার সৃষ্টি হয়। এমন বন্যা অনেকেই দেখেননি বলে জানান। আবার অনেক প্রবীণ ব্যক্তিরা জানান, ৭৫ ও ৮৮ বন্যার চেয়ে আজকের বন্যা ভয়াবহ।
ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী, ডিমলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম, ডিমলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহবুব হাসান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইবনুল আবেদীন, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের রংপুর বিভাগীয় প্রধান প্রকৌশলী জ্যোতি প্রশাদ ঘোষ, পাউবো ডালিয়া ডিভিশনের ইনচার্জ প্রকৌশলী আসফাউদ্দৌলা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ পরিচালক আবু বক্কর ছিদ্দিক, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সেকেন্দার আলী, ডিমলা থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম, নীলফামারী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক আমিরুল ইসলাম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মেজবাহুর রহমান, ত্রাণ শাখার উপ সহকারী প্রকৌশলী ফেরদৌস আলম প্রমুখ।
৫/৭
ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী, ডিমলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম, ডিমলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহবুব হাসান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইবনুল আবেদীন, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের রংপুর বিভাগীয় প্রধান প্রকৌশলী জ্যোতি প্রশাদ ঘোষ, পাউবো ডালিয়া ডিভিশনের ইনচার্জ প্রকৌশলী আসফাউদ্দৌলা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ পরিচালক আবু বক্কর ছিদ্দিক, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সেকেন্দার আলী, ডিমলা থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম, নীলফামারী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক আমিরুল ইসলাম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মেজবাহুর রহমান, ত্রাণ শাখার উপ সহকারী প্রকৌশলী ফেরদৌস আলম প্রমুখ।
তিস্তা ব্যারেজের গেট খোলার ফলে নীলফামারীতে ভয়াবহ বন্যা
৬/৭
তিস্তা ব্যারেজের গেট খোলার ফলে নীলফামারীতে ভয়াবহ বন্যা
পরিদর্শনকালে ডিসি জানান ডিমলা উপজেলার বন্যা কবলিত পরিবারের জন্য ৪৯ মেট্রিক টন চাউল ও ১০ লাখ টাকা পর্যায়ক্রমে বিতরণ করা হবে। এছাড়াও প্যাকেটজাত শুকনো খাবার সরবরাহের জন্য মজুদ রাখা হয়েছে। পাশাপাশি অসহায় পরিবারদের রাত্রি যাপনের জন্য ৫০টি তাবু ঘর বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
৭/৭
পরিদর্শনকালে ডিসি জানান ডিমলা উপজেলার বন্যা কবলিত পরিবারের জন্য ৪৯ মেট্রিক টন চাউল ও ১০ লাখ টাকা পর্যায়ক্রমে বিতরণ করা হবে। এছাড়াও প্যাকেটজাত শুকনো খাবার সরবরাহের জন্য মজুদ রাখা হয়েছে। পাশাপাশি অসহায় পরিবারদের রাত্রি যাপনের জন্য ৫০টি তাবু ঘর বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড