• বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
শিঙায় ফুঁ দিয়ে শুরু হয় বাউৎ উৎসবে মাছ ধরা  (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
১/৫
শিঙায় ফুঁ দিয়ে শুরু হয় বাউৎ উৎসবে মাছ ধরা (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
বাউৎ উৎসবে দল বেঁধে শতাধিক মানুষ বিলে নামে মাছ ধরতে (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
২/৫
বাউৎ উৎসবে দল বেঁধে শতাধিক মানুষ বিলে নামে মাছ ধরতে (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
বাউৎ উৎসবে মেতেছিল পেশাদারের পাশাপাশি শৌখিন মাছ শিকারিরা (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
৩/৫
বাউৎ উৎসবে মেতেছিল পেশাদারের পাশাপাশি শৌখিন মাছ শিকারিরা (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
আবহমান বাংলার দীর্ঘদিনের লালিত সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের স্মারক বহন করে বাউৎ উৎসব (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
৪/৫
আবহমান বাংলার দীর্ঘদিনের লালিত সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের স্মারক বহন করে বাউৎ উৎসব (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
 এ উৎসবে মাছধরা অন্যতম নান্দনিক পদ্ধতি হলো পলো বা বাওয়া। এটি আবহমান বাংলার প্রাচীন ঐতিহ্যের অংশ। বাঁশ দিয়ে বিশেষভাবে তৈরি ঝাঁপিকেই বলা হয় পলো (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)
৫/৫
এ উৎসবে মাছধরা অন্যতম নান্দনিক পদ্ধতি হলো পলো বা বাওয়া। এটি আবহমান বাংলার প্রাচীন ঐতিহ্যের অংশ। বাঁশ দিয়ে বিশেষভাবে তৈরি ঝাঁপিকেই বলা হয় পলো (ছবি : রেজওয়ানুর রহমান)

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড