• মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কৃষিতে ক্যারিয়ার ও ভর্তি পরীক্ষা

  সাজ্জাদ হোসাইন

০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৩:৩১
কৃষি
ছবি : সংগৃহীত

আর অল্প কিছুদিনের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি যুদ্ধ শুরু হবে। এ সময় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা নির্ঘুম রাত এবং নানা চিন্তা ভাবনায় দিন কাটাচ্ছেন। এত প্রতিযোগিতার মাঝে কোথায় ভর্তি হবে, ইচ্ছে অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারবে তো এ নিয়ে অভিভাবক ও পরীক্ষার্থীদের জল্পনাকল্পনার শেষ নেই।

বেশিরভাগ শিক্ষার্থীদেরই প্রথম ইচ্ছে থাকে মেডিকেল অথবা ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার, কিন্তু এত প্রতিযোগিতা ও অপ্রতুল সিটের কারণে অনেকের ইচ্ছেটি গুড়ে বালি হয়। তাই ভালো মন্দের হিসাবে অনেক শিক্ষণার্থী কৃষি বিষয়ক বিষয়ে পড়তে আসে। তবে এই সেক্টর নিয়ে গালমন্দ করার কোনো কারণ নেই। কারণ বাংলাদেশ কৃষি প্রধান দেশ এবং প্রতিনিয়ত কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নের মাধ্যমে দেশের ও দশের উন্নতি করে যাচ্ছে এই সেক্টরের শিক্ষার্থীরা। আর তাছাড়াও চাকরির সময়ও সহজেই ভালো চাকরি পাওয়া যায়। রয়েছে বিসিএস এ স্পেশাল কোঠা। তাই ভালো চাকরির কোনো চিন্তা থাকে না।

তাই কৃষিকে অবহেলা না করে প্রথম থেকেই এর প্রতি সচেতন হওয়া উচিত। এছাড়াও কৃষি সংক্রান্ত বিষয়গুলোতে ভর্তি পরীক্ষা দিতে এসে দেখা যায় কত মানুষ এর পেছনে লেগেছে। এবারই প্রথম দেশের সাতটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় কৃষি সংক্রান্ত ডিগ্রিগুলোর গুচ্ছ পরীক্ষা নেওয়ার মাধ্যেমে ভর্তি কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে। সারাদেশে একই প্রশ্নে একই সময়ে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় শিক্ষার্থীদের বাড়তি টাকা এবং যাতায়াত ভোগান্তি হবে না।

কৃষি সংক্রান্ত বিষয়ে সর্বমোট ৩৫৫৫ সিটের বিপরীতে মোট ৩৫৫৫০ জন শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন। আগামী ১০ সেপ্টেম্বর থেকে আবেদন শুরু হয়ে, চলবে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত। ফাস্ট টাইমার, সেকেন্ড টাইমার উভয়েই এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। এমসিকিউ পদ্ধতিতে ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় ইংরেজিতে ১০, প্রাণিবিজ্ঞানে ১৫, উদ্ভিদবিজ্ঞানে ১৫, পদার্থবিজ্ঞানে ২০, রসায়নে ২০, গণিতে ২০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।

যারা মূলত মেডিকেল প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাদের জন্য আলাদাভাবে গণিতে সময় দিতে হবে এবং যারা ইঞ্জিনিয়ারিং প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাদের জন্য জীববিজ্ঞান পড়তে হবে।

প্রসঙ্গত, কৃষি সংক্রান্ত এ সব বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো-বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ, মোট আসন ১১০৮টি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর, মোট আসন ৩৩০টি, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা, মোট আসন ৭০৪টি, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট, মোট আসন ৪৩১টি, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী, মোট আসন ৫৮৭টি, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম মোট আসন ২৪৫টি এবং খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা মোট আসন ১৫০টি।

লেখক : শিক্ষার্থী, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

ওডি/আরএআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড