• বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কায়দা করে বাঁচতে হবে

  মাহবুব নাহিদ

২৬ অক্টোবর ২০২২, ১৬:১৬
কায়দা করে বাঁচতে হবে

অনেক দুর্ভিক্ষের গল্প পড়েছি, টিভিতে দেখেছি করুণ সব দৃশ্য। কত চিত্র মানসপটে ভেসে ওঠে কত দুর্ভিক্ষের। যখন এসব চোখে ভাসে তখন হৃদয় কাঁদে, চোখও জলধারায় ভাসে।

এমন দুর্ভিক্ষ দেখতে হবে আমাদের এই আশংকায় সবাই। আমাদের কুড়ে কুড়ে খাচ্ছে সেই চিন্তা। সেই দুশ্চিন্তায় বিভোর হয়ে হয়ে সবাক পৃথিবী আমাদের কাছে অবাক হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু হা হুতোশ করাই কি আমাদের কাজ? আমাদের কি আগে থেকে কিছুই ভাবা উচিত নয়। সামনের দিনগুলোয় সোনা রোদ লুকিয়ে আসতে পারে আঁধারের ঘনঘটা। সেই আঁধারে কি বসে বসে কান্না করলেই হবে নাকি সেই আঁধারেও বেঁচে থাকার রসদ খুঁজে বের করতে হবে।

এখন থেকেই আসলে আমাদের কায়দা করে বাঁচা শিখতে হবে। কায়দা করে না চলতে পারলে সামনে ঘোর বিপদ।

প্রথম কথা হচ্ছে, জীবিকার উৎস নিয়ে আগেই ভাবতে হবে। আমরা ব্যবসায় আছি নাকি চাকরিতে আছি?

যদি চাকরিতে থাকি তাহলে নিজের অবস্থান আসলে কতটুকু পোক্ত সেটা যাচাই করতে হবে। আমি যেখানে চাকরি করি তারা আসলে কিসের ব্যবসা করে। তাদের সেই ব্যবসা কতটুকু টিকবে? যদি কোনো বিপদ আসে তখন কি আমাকে ছাটাই করবে? এগুলো ভাবতেই হবে।

অনেকের মাঝেই চিন্তা থাকে একটু ভালো সুযোগ পেলেই চাকরি ছাড়ার। সেই কাজটা না করে বুঝেশুনে যাচাই বাছাই করে চাকরি পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

ব্যবসার ক্ষেত্রেও একই কথা। আমাদের খাদ্য বস্ত্র বাসস্থান চিকিৎসা শিক্ষা এই সিরিয়াল নাও থাকতে পারে। বাসস্থান আর বস্ত্র মানুষ বিপদে যখন পড়ে তখন শুধুমাত্র যতটুকু দরকার ততটুকু করে। মূল চাহিদা খাদ্য আর চিকিৎসা, এই দুই জিনিস ছাড়া চলবে না দুনিয়া। ব্যবসা করতে গেলে এই কথা রাখতে হবে মাথায়। খরচ করতে গেলেও ভাবতে হবে এই কথা।

সঞ্চয় এখন হওয়া উচিত সবচেয়ে বড় কাজ। কিন্তু সেই টাকা ব্যাংকে রাখা নিরাপদ হবে না নিশ্চয়ই। কখন কোন ব্যাংক দেউলিয়া হয়ে যায়৷ কোন ব্যাংকের টাকা উড়ে ফতুর হয়ে যায় তার ঠিক নাই। অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানেও রাখা যাবে না, সব অনিরাপদ। এক টাকায় কোটি টাকা এমন সব অফার থেকে থাকতে হবে দূরে। অনেকেই অনেক লোভ দেখাবে কিন্তু সেই ফাঁদে পা দেওয়া যাবে। ন্যাড়া আমাদের দেশে বারবার বেলতলায় যায় কারণ লোভ আমাদের পিছু ছাড়ে না। অতিরিক্ত লোভ করা বাদ দিতে হবে আমাদের।

যদিও বেশি টাকা পয়সা সাথে রাখাও নিরাপদ হবে না। কখন কোন কমিশন এসে ধরে নিবে তার ঠিক নাই। স্বর্ণ সামনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হয়ে দাঁড়াবে। গুরুত্বপূর্ণ হবে কৃষিজমি কিংবা কৃষি ব্যবসা।

অতিরিক্ত বিলাসবহুল পণ্য না কেনাই শ্রেয় এখন বিশেষ করে গাড়ি। চিত্ত বিনোদন অবশ্য থাকতে হবে নাহলে মস্তিষ্ক বন্ধ হয়ে যাবে দম বন্ধ হয়ে যাবে। বিনোদন থাকতে হবে তবে পর্যাপ্ত, বেশি নয়।

(মতামত পাতায় প্রকাশিত লেখা একান্ত লেখকের মত। এর সঙ্গে পত্রিকার সম্পাদকীয় নীতিমালার কোনো সম্পর্ক নেই।)

চলমান আলোচিত ঘটনা বা দৃষ্টি আকর্ষণযোগ্য সমসাময়িক বিষয়ে আপনার মতামত আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই, সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড