• রোববার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বাঙালি হও বিশ্বমানের

  মেহেদী হাসান রনি

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৯:৫৪
লেখক
লেখক মেহেদী হাসান রনি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ঘরবাড়ির পাশাপাশি কোনো জাতি বা সংস্কৃতিরও একটি মজবুত দীর্ঘস্থায়ী ভিত গড়া অত্যন্ত প্রয়োজন। বাংলা ভাষা বাঙালি জাতির সাথে বহুকাল হতে তার আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে আছে।

বাংলা ভাষা চর্চার সূত্রপাত এমনই একটা সময় থেকে হয়ে আসছে যখন বাংলা ভাষার স্বাধীনতা বা অস্তিত্ব নিয়ে কেউ তেমন ভাবতেনও না।

সময়ের কালক্রমে বাংলা ভাষা বিশ্বে সংস্কৃতির মঞ্চে এক দীর্ঘস্থায়ী বীজ বপন করে। যার উদাহরণ বন্দেমাতরম, জনগণ মন অধিনায়ক জয় হে ভারত ভাগ্য বিধাতা, এবং আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি।

দুঃখের হলেও সত্যি; একটা সময় এমন আসে বাংলা ভাষা রাজনৈতিক প্রহারের শিকার হয়। বহু রক্তক্ষয়ী আন্দোলনের বিনিময়ে ছিনিয়ে আনা হয় ১৯৫২ সালে বাংলা ভাষাকে মাতৃভাষা রূপে। জন্ম হয় ২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের।

বাংলা ভাষার আরও স্মরণীয় অস্তিত্ব ১৯৯৮ সালের ইউনেস্কোর ভারতবর্ষের জাতীয় সংগীতকে সর্বশ্রেষ্ঠ ঘোষণা, বিশ্বকবির নোবেল প্রাপ্তি এবং বাংলাদেশের ভাষা আন্দোলনের ২১শে ফেব্রুয়ারি। যা আজ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের সম্মানে ভূষিত।

এ সবই বাংলা ভাষার নিজস্ব অস্তিত্ব ও সম্পদ। অতএব এই ভাষা কখনো হারবার বা মুছে যাওয়ার নয়।

বাংলা ভাষার মজবুত দীর্ঘকালীন অস্তিত্ব যেমন সত্য, ঠিক তেমনি বাস্তব এই ভাষার কাণ্ডারি রূপে প্রত্যেকটি বাঙালির জাগ্রত মনোভাবকে সক্রিয় রাখার। এ কথা সত্য যে, বাংলার এত ইতিহাস, এত ব্যাপ্তি থাকা সত্যেও সারাবিশ্বে বাংলার প্রচলন অত্যন্ত কম বা নেই বললেই চলে।

তাহলে আমরা কি বাংলা ভাষাকে ভুলে যাব? বাংলাভাষার চর্চা থেকে সরে আসব? না! এক্কেবারেই নয়। বরং আরও বেশি বেশি বাংলার চর্চা আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের হাতে তুলে দিতে হবে।

অতীতের বিশ্লেষণ বলছে, এই বাংলাভাষার ওপরে বাংলা সংস্কৃতি, সাহিত্যচর্চা তথা বাংলা লেখনীর উচ্চ মর্যাদার অধিকাংশই অবাঙালি দেশগুলো থেকেই প্রাপ্ত হয়েছে। যা কোনো বাংলা প্রধান দেশ থেকে সম্ভব হয়নি।

আরও পড়ুন : বগুড়ায় এক গোলাপের দাম ১শ' টাকা

তাই বর্তমান, অতীত এবং ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে প্রত্যেক বাঙালির উচিত শুধু বাংলা নয়, বাংলার পাশাপাশি বিশ্বচর্চিত সমস্ত ভাষাতে নিজেকে পারদর্শী করে তোলা এবং নিযুক্ত রাখা। তাতে বাংলার জাতি , বাংলার ভাষা এবং বাংলা প্রজন্মের চলমান অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। এখানে বাংলা ভাষার সংকটের কোনো প্রশ্নই ওঠে না। বাংলা ভাষা ছিল, আছে, আগামীতেও থাকবে ।

চলমান আলোচিত ঘটনা বা দৃষ্টি আকর্ষণযোগ্য সমসাময়িক বিষয়ে আপনার মতামত আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই, সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড