• রোববার, ১২ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কোয়ারেন্টাইন : ভিডিও সম্পাদনা শিখুন ঘরে বসেই

  এম. এ. রশিদ

২৪ মে ২০২০, ২১:১০
এম এ রশিদ
এম. এ. রশিদ

নতুন করোনাভাইরাস কোভিড-১৯’র কারণে থমকে গেছে পুরো বিশ্ব। যেটা মানবসভ্যতা এর আগে কোনোদিন দেখেছে বলে জানা যায় না। বিষয়টি এই মুহূর্তে সবার কাছেই অনাকাঙ্ক্ষিত! মানুষেরা এখন ঘরবন্দি। থেমে গেছে পৃথিবীর অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড। আর সেই সঙ্গে কর্মহীন হয়ে পড়েছে লাখো মানুষ। নিশ্চয় একদিন এই পরিস্থিতির ইতি ঘটবে, সূচনা হবে নতুন বিশ্বের। কিন্তু বিষয় হলো— করোনা পরবর্তী বিশ্ব কেমন হবে?

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, এই করোনা বৈশ্বিক মহামন্দায় রূপ নেবে। পরবর্তী বিশ্ব হবে একদমই নতুন। দক্ষতার মানদণ্ড হবে ভিন্ন রকম।

কিছুদিন আগে থেকে শুরু হওয়া ইন্টারনেট-নির্ভর চতুর্থ শিল্প- করোনা সংকট সেটার বাস্তবায়ন এক লাফে অনেক এগিয়ে নিয়ে গেছে। বাসায় বসে কাজ করার ধারণা আমাদের দেশেও এই ক’দিনে পোক্ত হয়ে গেছে। অনেক প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা সেটাতে অভ্যস্ত হয়ে গেছে। অথচ মাসখানেক আগেও এটা ছিল অভাবনীয় একটা ব্যাপার।

প্রযুক্তির সাথে তাল মিলিয়েব ভিডিও সম্পাদনায় দক্ষতা অর্জন করে অপার সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দিতে পারেন। ভিডিও সম্পাদনা এমন একটি পেশা, যার মাধ্যমে ক্যারিয়ার গড়া- খ্যাতি, সুনাম, পরিচিতির সঙ্গে রয়েছে সম্ভাবনাময় উজ্জ্বল ভবিষ্যতের হাতছানি। পড়াশুনা ও অন্যান্য পেশায় থেকেও ভিডিও সম্পাদনা পেশায় নিযুক্ত হয়ে আপনি আয়ের উৎস বাড়াতে পারেন। ভিডিও সম্পাদনার মাধ্যমে আপনার সৃজনশীল কাজ দিয়ে চমকপ্রদ এক ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখতেই পারেন।

বাংলাদেশে এখন প্রায় ৩০-৩৫টি টিভি চ্যানেল রয়েছে। সবগুলো টিভি চ্যানেলেই প্রয়োজন দক্ষ ভিডিও সম্পাদক। টিভি চ্যানেলগুলোতে সংবাদের পাশাপাশি অসংখ্য অনুষ্ঠান, নাটক, ম্যাগাজিন, বিজ্ঞাপন প্রচারিত হয়। এসব অনুষ্ঠান টিভি চ্যানেল ছাড়া অনেক প্রযোজনা সংস্থাও নির্মাণ করে থাকে। তাই পূর্ণকালীন বা খণ্ডকালীন— দুইভাবেই ভিডিও সম্পাদক হিসেবে কাজ করা যায়।

একটা টিভি চ্যানেলে সাধারণত পাঁচটি ক্যাটাগরিতে ভিডিও সম্পাদক নেওয়া হয়। যেমন: ১. ভিডিও সম্পাদক ইনচার্জ, ২. সিনিয়র ভিডিও সম্পাদক, ৩. ভিডিও সম্পাদক, ৪. জুনিয়র ভিডিও সম্পাদক ও ৫. শিক্ষানবিশ ভিডিও সম্পাদক।

কীভাবে শুরু করবেন :

বাংলাদেশে অনেক ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। কিন্তু, করোনার এই সময়ে দূরে থাকাই যখন জরুরি, তখন আনুষ্ঠানিক আবহে শেখার সেই সুযোগ নেই। তবে, এই সমস্যা কাটাতে ইউটিউবের টিউটোরিয়াল ভিডিও আপনার জন্য হতে পারে ভালো একটা মাধ্যম। এগুলো দেখেও মোটামুটি আয়ত্তে আনতে পারবেন। আর সৃজনশীলতা? সেটার জন্য আপনি পৃথিবীর বিখ্যাত সব ভিডিও সম্পাদক বা প্রতিষ্ঠানের কাজগুলো দেখতে পারেন। ডকুমেন্টারি, সিনেমা, নাটক ইত্যাদি। কীভাবে বিচ্ছিন্ন দৃশ্যগুলোকে সাজিয়ে একটা সুন্দর চলমান গল্পে রূপ দেওয়া হয়। এতে আপনার মাথা খুলে যাবে। কথায় আছে— শোনা বা পড়ার চাইতে দেখে দেখে শেখাটা বেশি কার্যকরী।

কী কী সফটওয়্যার আর কেমন ধরনের কম্পিউটার দরকার?

বাংলাদেশে বর্তমানে যেসব সফটওয়্যার ভিডিও সম্পাদনার কাজে বেশি ব্যবহৃত হয়, সেগুলো হলো— অ্যাডোব প্রিমিয়ার প্রো, এডিয়াস, ফাইনাল কাট প্রো (এফসিপি) ইত্যাদি। তবে, দুই-একটি চ্যানেলে ভ্যালোসিটি ও ভেগাজ প্রো ব্যবহার করা হলেও এগুলো এখন বিলুপ্তির পথে। তবে সফটওয়্যার পরিচালনার জন্য একটি ভালো মানের কম্পিউটার লাগবে।

মাল্টিমিডিয়া জগতে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জ্ঞানের পরিধি যত বিস্তৃত, সাফল্য অর্জনের সম্ভাবনা তত বেশি। শুধুমাত্র কিছুদিনের প্রশিক্ষণেই আপনার বেকারত্ব- হতাশা- দারিদ্র্য স্থায়ীভাবে কেটে যেতে পারে। তাই আপনার মেধা, শৈল্পিক আর নান্দনিক মানসিকতায় ভিডিও সম্পাদনা পেশাকে আপন করে নিতে পারেন। আপনার আগামী জীবন হতে পারে সুন্দর-সাফল্যময়।

প্রযুক্তি আপনার জন্য; আপনি প্রযুক্তির জন্য।

লেখক : ভিডিও সম্পাদক, দুরন্ত টিভি

চলমান আলোচিত ঘটনা বা দৃষ্টি আকর্ষণযোগ্য সমসাময়িক বিষয়ে আপনার মতামত আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই, সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড