• বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৭ ফাল্গুন ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সাকিব আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরবে

  মাহবুব নাহিদ

৩০ অক্টোবর ২০১৯, ২২:৪৮
সাকিব
সাকিব আল হাসান (ছবি : সংগৃহীত)

বাংলাদেশের ক্রিকেট যতটুকু এগিয়েছে তার জন্য যদি কোনো ব্যক্তিদের ধন্যবাদ জানাতে হয় তবে সবার আগেই চলে আসবে তার নাম। সারা বিশ্ব ঘুরে যিনি দেশকে চিনিয়েছেন। অনেকেই আবেগে বলেও ফেলেন সাকিবের দেশ! সাকিব আল হাসান, বাংলাদেশের প্রাণ, বাংলাদেশের জান যাকে বলা হয়ে থাকে। ক্রিকেট মাঠের সেই ময়নাকে আমরা আগামী এক বছর কোনো ধরনের খেলায় দেখতে পাব না।

আইসিসির নিয়ম ভঙ্গের কারণে সাকিব আল হাসানকে এক বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে ব্যান করা হয়েছে। অর্থাৎ আগামী বছরের ২৯ অক্টোবর তিনি মাঠে ফিরতে পারবেন। আসন্ন ভারত সিরিজ, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রেলিয়াসহ মোট ৩৬টি খেলায় তাকে পাবে না টিম বাংলাদেশ। তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটেই পাওয়া যাবে না দলের মূল ভরসাকে। 

সাকিব নিজেই তার দায় স্বীকার করে নিয়েছেন। তিনি ভুল বুঝতে পেরেছেন। কিন্তু আসলে কি এই কথাগুলো তিনি মন থেকে বলেছেন? ঘটনার অন্তরালে অনেক কথাই থেকে যায়। অনেকের মনেই অনেক কথার জন্ম হবে। আর সাকিব দোষ স্বীকার না করে উপায় নেই। যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। তার এর থেকে বেঁচে আসতে হলে মেনেই নিতে হবে। কিন্তু দুঃখ হলো সবাই কেন বিষয়টাকে ঘোলাটে করে দেখতে চাচ্ছে। প্রথম কথা হচ্ছে সাকিব অপরাধ করেনি, সাকিব অপরাধ ফিরিয়ে দিয়েছে৷ এই বিষয়টা আগে মাথায় রাখতে হবে। কেউ কেন এর অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে কথা বলছে না?

২০১৭ সালের নভেম্বর মাসের ঘটনা কেন এখন মাথাচাড়া দিয়ে উঠবে? এর পিছনে কি কোনো কারণ নেই? আইসিসি কেন তার বিচারকার্য বিলম্ব করেছে? তাদের কাছে আগে কেন তথ্য যায়নি? এর উত্তর কি আছে আইসিসির কাছে?

আবার কথা হচ্ছে জুয়াড়ির সাথে সাকিবের প্রথম কথা হয় নভেম্বর মাসে, তারপর জানুয়ারিতে দুইবার আবার এপ্রিলে। আর আইসিসির এই আইনই করা হয় ফেব্রুয়ারি মাসে। সেখানে কীভাবে আগে শুরু হওয়া একটা ঘটনায় পরের আইন দিয়ে শাস্তি দিল আইসিসি? এটা কি কারো জানার ইচ্ছা নেই?

সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে সাকিবের শাস্তির খবর কীভাবে আমাদের দেশে আগেই প্রচার হয়? এর পিছনের কারণ কি?

আর স্টিভ স্মিথ আর ওয়ার্নার একটা চাক্ষুষ অপরাধ করে এক বছর সাজা পেল আর সাকিব একটা অপরাধ ফিরিয়ে দিয়েছে কিন্তু শুধু অফিশিয়ালি না জানানোর অপরাধে কীভাবে একই সাজা হয়? আইন তো সমান হওয়ার কথা, কিন্তু এটা তো সমান হলো না। নাকি বাংলাদেশ ক্রিকেটকে পিছিয়ে দেওয়ার জন্যই সাকিবের ওপর হাত?

কিছুদিন আগে দেখা গেল লিওনেল মেসি দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল এসোসিয়েশন নিয়ে কটূক্তি করায় তার দুই বছর সাজা হওয়ার কথা। কিন্তু রায় শেষে দেখা গেল নিষিদ্ধ হয়েছেন মাত্র তিন মাসের জন্য। কারণ তার বোর্ড তার জন্য লড়াই করে সাজা কমানোর ব্যবস্থা করেছেন। এক্ষেত্রে বোর্ড সভাপতি তাপিয়ার প্রভাব ছিল তা সবাই জানে। কিন্তু আমরা কেন প্রভাব দেখাতে পারলাম না? নাকি আমাদের প্রভাব নেই? যদি নাই থাকে তবে প্রভাব কীভাবে বাড়ানো যায় সেটা নিয়ে অবশ্যই ভাবতে হবে।

দিনশেষে ক্ষতি তো আমাদের ক্রিকেটের হবে। অনেকেই বলে বেড়াচ্ছে সাকিব নাকি বোর্ডকে জানিয়েছিল। সেই তর্কে যাওয়ার কারণ দেখি না। যদি সে মুখেও বলে থাকে সেটা তার মতো মানুষের শোভা পায় না। তার অবশ্যই অফিশিয়ালি এটা জানানো উচিত ছিল।

রিভিউ বা আপিলের সুযোগ নেই সাকিবের। থাকবেই কীভাবে? আমরা তো আর তিন মোড়লের একজন না৷ আমাদের খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে লড়তে হয়, আম্পায়ারদের বিরুদ্ধে লড়তে হয় আবার আইনের ফাঁকেও পড়তে হয়।

মেনে নিতে কষ্ট হবে সবার কিন্তু বাস্তব মেনে নিতেই হবে। আমরা জানি আমাদের সাকিব অপরাধ করে শাস্তি পায়নি। অপরাধ ফিরিয়ে দিয়েও শাস্তি পেয়েছে। সাকিব ফিরে আসবে আগের চেয়েও বেশি শক্তি নিয়ে কারণ সাকিবরা যোদ্ধা। যোদ্ধারা হারে না, হারায়।

চলমান আলোচিত ঘটনা বা দৃষ্টি আকর্ষণযোগ্য সমসাময়িক বিষয়ে আপনার মতামত আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই, সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড