• বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন

সংবাদপত্র সমাজের দর্পণ

  তারেক রহমান ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:০৭

সংবাদপত্র
তারেক রহমান (ছবি : সম্পাদিত)

সমাজের সামগ্রিক বিষয়াদি সংবাদপত্রের মাধ্যমে প্রকাশ পায় বলেই সংবাদপত্রকে সমাজের দর্পণ বলা হয়ে থাকে। সেই দর্পণেই ফুটে ওঠে সমাজের সকল চিত্র। সংবাদপত্র একটি জাতিকে সমৃদ্ধির উচ্চতায় নিয়ে যেতে পারে।

একটি জাতিকে জাগ্রত করতে পারে, আবার দুঃসময়ের সাথী হতে পারে। তরুণ যুবসমাজকে তাদের সঠিক দিক নির্দেশনা দিয়ে তাদের কঠিন পথকে সহজ ও সুন্দর করে তোলে।

বাংলায় ১৮১৮ সালে সমাচার দর্পণের হাত ধরেই সংবাদপত্রের পথ চলা। সেই সময়ে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে লিখা হতো। লিখার ধরণ ভিন্ন হলেও তা সমাজের সামগ্রিক বিষয়গুলো তুলে ধরতো সূচারুভাবে। সেই সময়ে গড়ে ওঠা সংবাদপত্র দিয়ে প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে জেগে উঠেছিল এদেশের মানুষ, কারণ তারা সমাজের সকল বিষয়গুলো তুলে ধরে ছিল।

এখনো সমাজের সকল চিত্র তুলে ধরে সমাজের দর্পণ হয়ে রয়েছে। আর এই দর্পণকে চকচকে ঝকঝকে করে রেখেছে সাংবাদিক ও সংবাদকর্মী। বর্তমানেও পৃথিবীর সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা সাংবাদিকতা। সমাজে ঘটে যাওয়া প্রতিদিনের ঘটনাবলী সংবাদপত্রে ফুটিয়ে তুলেন সাংবাদিক। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলেই আমরা জানতে পারি সমাজের চিত্র। সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রচারই পারে একটি জাতির উন্নয়ন ঘটাতে।

সেই সঙ্গে একজন দক্ষ ও বিচক্ষণ সাংবাদিক পারে তার দেশকে অনেক দূর নিয়ে যেতে। এজন্য দেশ ও জাতির উচিত সাংবাদিকদের সঠিক মূল্যায়ন করা। তাহলেই একটি দেশ তার লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবে। সংবাদপত্র পারে একটি দেশের গণতন্ত্রকে ধরে রাখতে, অসম্প্রাদায়িক দেশ গড়তে। সংবাদপত্র কাজ করবে মানুষের কল্যাণে। মানুষের ক্ষতির কারণ হবে এমন কোনো সংবাদ প্রকাশ থেকে বিরত থাকবে।

গণমাধ্যম হলো মানুষের স্বাধীন মত প্রকাশের একমাত্র জায়গা। তাই সংবাদপত্রকে হতে হবে নিরপেক্ষ। তাহলেই সমাজের মানুষ প্রতিষ্ঠিত হতে পারবে। সমাজের নেতিবাচক দিকগুলো তুলে ধরা সংবাদপত্রের দায়িত্ব। যেমন : মাদক, দুর্নীতির মতো নেতিবাচক কাজগুলোকে না বলা। এভাবেই সমাজের ইতি ও নেতিবাচক দিকগুলো তুলে ধরে সংবাদপত্র সমাজের দর্পণ হয়ে আছে।

লেখক : শিক্ষার্থী, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

চলমান আলোচিত ঘটনা বা দৃষ্টি আকর্ষণযোগ্য সমসাময়িক বিষয়ে আপনার মতামত আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই, সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড