• বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

এডিস মশা কামড়ালেই ডেঙ্গু হয় না : ডিএসসিসি কর্মকর্তা

  অধিকার ডেস্ক

১০ আগস্ট ২০১৯, ২৩:১৮
ডিএসসিসি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান
ডিএসসিসি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান (ছবি : সংগৃহীত)

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেছেন, এডিস মশা কামড়ালেই ডেঙ্গু হয় না। এডিস মশা কামড়ালেও জীবাণু সংক্রমণ না হওয়ায় তার ডেঙ্গু হয়নি বলে দাবি করেন ডিএসসিসির এই কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, ‘এডিস মশা কামড়ালেই ডেঙ্গু হয় না। ডেঙ্গু হতে হলে মশাটির শরীরে ডেঙ্গু রোগের জীবাণু থাকতে হয়।’

শনিবার (১০ আগস্ট) নগর ভবনে পৌর করদাতাদের মধ্যে বিনা মূল্যে অ্যারোসল স্প্রে ক্যান বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘গত রোববার সকাল ৮টার দিকে একটি মশা পিঠে কামড়ায়। আমি মশাটিকে মারি, মারার পর হাতে নিয়ে ভালো করে পরীক্ষা করে দেখলাম সেটা এডিস মশা, গায়ে সাদা সাদা দাগ, তত বড় হয়নি। সেই দিন ছিল রোববার, আজকে শনিবার। আমি এখনো ভালো আছি। আল্লাহর রহমতে আমার এখনো ডেঙ্গু হয়নি।’

মোস্তাফিজুর রহমান আরও বলেন, ‘আমি এই কথাটা কেন বললাম, বললাম এটা বোঝানোর জন্য এডিস মশা কামড়ালেই ডেঙ্গু হয় না। যেই মশার মধ্যে ডেঙ্গু রোগের জীবাণু আছে, সেটা কামড়ালেই ডেঙ্গু রোগ হয়।’

ডিমের খাবারের জন্য স্ত্রী মশা তখন মানুষকে কামড় দেয় জানিয়ে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, ‘পুরুষ মশা মানুষের রক্ত খায় না। স্ত্রী মশা মানুষের রক্ত খায় শুধুমাত্র তখন, যখন তার পেটে ডিম থাকে। ডিম থেকে লার্ভা হয়। এই ডিমটা বড় হতে প্রোটিন দরকার হয়। এই প্রোটিন মানুষের রক্ত থেকে আসে। ডিমের খাবারের জন্য স্ত্রী মশা তখন মানুষকে কামড় দিতে পাগল হয়। তখন তারা মানুষকে কামড় দেয়।’

এ সময় রক্ত মশার খাবার এ কথা ‘কই পাইসেন’ উল্লেখ তিনি আরও বলেন, ‘মশা ফলের রস খায়, পাতার রস খায়। এগুলো খেয়ে মশা বাঁচে।’

মোস্তাফিজুর রহমানের দাবি, ডেঙ্গু বাহী এমন মশার পরিমাণ মাত্র ২৫%-৩০% । সেগুলো যদি এডিসের জীবাণু বহন করে তবেই শুধু তার কামড়ে ডেঙ্গু হবে।

পরে মশার ওষুধ স্প্রে করার নিয়ম সম্পর্কেও বিস্তারিত জানান ডিএসসিসির এই কর্মকর্তা।

ওডি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড