• সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

চিকিৎসার রাজনীতি খালেদা জানলে ক্ষোভ প্রকাশ করবেন : তথ্যমন্ত্রী 

  নিজস্ব প্রতিবেদক ২৬ মে ২০১৯, ১৫:২৪

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশ সংবাদপত্রের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেন। (ছবি : পিআইডি)

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেশের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। 

তবে তার চিকিৎসার বিষয় নিয়ে বিএনপি নেতাদের রাজনীতি খালেদা জিয়া জানলে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করবেন বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী।  

রবিবার (২৬ মে) দুপুরে সচিবালয়ে বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদের (বিএসবি) সাথে মতবিনিময়ের সময় সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী।  

তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দিতে সরকার সচেষ্ট, তাকে দেশের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তার জন্য সার্বক্ষণিক একজন নার্স, একজন ফিজিওথেরাপিস্ট, একজন ডাক্তার রয়েছেন। তারা সবসময় খালেদা জিয়ার খোঁজখবর নিচ্ছেন। এছাড়া খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও কাজের লোকও রয়েছেন। 

বিএনপি চেয়ারপারসনের শারীরিক পরিস্থিতি সম্পর্কে তথ্যমন্ত্রী বলেন, কিছুদিন আগে জিহ্বায় ঘা এর কারণে স্বাভাবিক খাবার খেতে পারেননি খালেদা জিয়া। এখন তিনি সুস্থ আছেন। 

তিনি আরও বলেন, তার হাঁটুর ব্যথা ১৫-২০ বছর আগের। এটা নিয়েই তিনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব এবং বিএনপির মতো দলের চেয়ারপারসনের দায়িত্ব পালন করেছেন। 

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে বিএনপি নেতাদের অপরাজনীতি না করার আহ্বান জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তারা যেভাবে বলছেন খালেদা জিয়ার জীবন সংকটাপন্ন। এটা ঠিক নয়। এটা যদি খালেদা জিয়া জানতে পারেন তাহলে তিনিই উষ্মা বা মৃদু ক্ষোভ প্রকাশ করবেন।

এছাড়া জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ঐক্যফ্রন্টে ঐক্য নেই। যারা নিজেদের ঐক্য ধরে রাখতে পারে না, তারা কিভাবে একটি বৃহত্তর ঐক্য করবে?

এছাড়া দেশের অনলাইন মিডিয়াগুলোকে খুব শিগগিরই নিবন্ধনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘দেশে অনলাইন মিডিয়ার সংখ্যা প্রায় ৩ হাজার ৫০০। আইনসহ অনলাইন নীতিমালা সম্পূর্ণ হলে গণমাধ্যমে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে। আমরা সহসায় অনলাইনকে নিবন্ধনের আওতায় নিয়ে আসবো। 

তিনি জানান, দেশে দৈনিক পত্রিকার সংখ্যা ১ হাজার ২০০ এবং দৈনিক, সপ্তাহিক, পাক্ষিক ও মাসিক মিলে আছে ৩ হাজার ৫০০টি। আর অনলাইন নিউজ পোর্টালই আছে ৩ হাজার ৫০০। 

মন্ত্রী বলেন, অনলাইন সম্প্রচার আইন ভেটিং এর জন্য আছে। খুব শিগগির আইনটি পাস করানোর জন্য সংসদে যাবে। আইনটি পাস হলে অনলাইন গণমাধ্যমে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে।

ওডি/এআর 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড