• রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কাদেরের দ্বিতীয় ইনিংসের চ্যালেঞ্জ ‘সড়কে শৃঙ্খলা’ 

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৯ মে ২০১৯, ১৩:৩৯
ওবায়দুল কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের (ছবি : ফাইল ফটো)

দীর্ঘ আড়াই মাস পর সচিবালয়ে নিজ কর্মস্থলে ফিরেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। কর্মস্থলে ফিরেই জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করার ঘোষণা দেন তিনি। সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রথম ইনিংস শেষ করেছি। ইনশাল্লাহ, এবার দ্বিতীয় ইনিংস খেলবো। দ্বিতীয় ইনিংসের বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে- সড়কে ও পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা। আশা করি তা আনতে পারবো। 

তিনি আরও বলেন, ‘মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসে জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছি। শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ আছি।’ 

রবিবার (১৯ মে) সকাল ১০টায় সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে ফেরেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী। নিজ দপ্তরে ফিরে প্রথমেই রুটিন ফাইল ওয়ার্ক করেন। পরে পৌনে ১১টায় নিজ কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন চলমান উন্নয়ন প্রকল্প বিষয়ক সভায় যোগ দেন ওবায়দুল কাদের। এ সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন মন্ত্রী।   

তিনি বলেন, এখন থেকে ২ মাস ১৬ দিন আগে আপনাদের (সাংবাদিক) সঙ্গে কথা বলেছিলাম। তারপর দীর্ঘদিন অনুপস্থিত ছিলাম। হয়তো সারাজীবনের জন্যই অনুপস্থিত ছিলাম! কিন্তু দল-মত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে মানুষের অশেষ দোয়া ও প্রধানমন্ত্রীর সবিশেষ চেষ্টায় আমি ফিরে এসেছি।

নিজ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতাও জানিয়েছেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, আমার অনুপস্থিতিতেও আপনারা কাজে কোনো ঘাটতি তৈরি করেননি। এটা আমি সিঙ্গাপুরে থাকা অবস্থায়ই প্রধানমন্ত্রীর কাছে শুনেছি। তিনি আমায় বলেছেন, তোমার মন্ত্রণালয় ঠিকঠাক মতো চলেছে।

আসন্ন ঈদ উপলক্ষে মহাসড়কের অবস্থার কথা তুলে ধরে এ সময় কাদের বলেন, আমাদের প্রধান সমস্যা ঢাকা-টাঙ্গাইল ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক। তবে এবার ঈদে মানুষ ভোগান্তিতে পড়বে না এটা বলতে পারি। মন্ত্রী বলেন, যানজট নিরসন, মেগা প্রকল্পের বাস্তবায়ন এগুলো এখন আমার প্রধান চ্যালেঞ্জ। সড়ক ব্যবস্থা আগের চেয়ে ভালো। এবার ঈদ যাত্রায় কোনও ভোগান্তি হবে না। আশা করছি, এবার ঈদ যাত্রা স্বস্তিদায়ক হবে। তিনি আরও জানান, আগামী ২০ মে থেকে বিআরটিসির ঈদের টিকিট বিক্রি শুরু হবে।

তিনি বলেন, ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কে ৪টি আন্ডার পাসের কাজ শেষ হবে ঈদের আগেই। ২৫ মে মেঘনা-গোমতি সেতুর উদ্বোধন হবে। পরিবহন খাতের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিআরটিসির বাস ও ট্রাক চলে আসছে। গণপরিবহনের ঘাটতি পূরণ হবে।

নিজের চিকিৎসার বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ১৬ জুলাই চেকআপ করাতে যাবো। ভারী কাজ করতে চিকিৎসকেরা নিষেধ করেছেন। দুই মাস পরপর চেকআপ করাতে হবে। 

তিনি বলেন, আগের মতো রাস্তায় রাস্তায় রোদ-বৃষ্টি একাকার করে কাজ করতে পারবো না। তবে ধীরে ধীরে ২/৪ মাস পর আগের মতো সুস্থ হয়ে উঠবো, ইনশাল্লাহ।’

এ দিকে দলীয় বিষয়ে পার্টি অফিসে কথা বলবো বলে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আগামীকাল সোমবার (২০ মে) দলের কেন্দ্রীয় অফিসে যাব। সেই সময় দলীয় বিষয়ে কথা বলব। 

গত ৩ মার্চ ভোরে ঢাকার নিজ বাসায় শ্বাসকষ্ট শুরু হলে ওবায়দুল কাদেরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের (বিএসএমএমইউ) ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়।

এরপর ভারতের বিখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠীর পরামর্শে ৪ মার্চ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ২০ মার্চ ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি হয়।

কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর গত ৫ এপ্রিল মাউন্ট এলিজাবেথ থেকে ছাড়পত্র পান ওবায়দুল কাদের। তবে ওই হাসপাতালের কাছেই ভাড়া বাসায় থেকে যান তিনি। সেখানে থেকে তিনি ফলোআপ চিকিৎসায় ছিলেন। গত বুধবার দেশে ফেরেন সেতুমন্ত্রী।

ওডি/এআর 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড