• সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

‘ময়মনসিংহে গ্রেফতার জঙ্গিরাই বসিলার সন্ধান দেয়’

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩০
‘ময়মনসিংহে গ্রেফতার জঙ্গিরাই বসিলার সন্ধান দেয়’
সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন র‍্যাব সদর দফতরের আইন ও মিডিয়া শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন (ছবি : সংগৃহীত)

ময়মনসিংহের খাগডহর এলাকা থেকে চলতি মাসের ৪ সেপ্টেম্বর গ্রেফতার ৪ জঙ্গি রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলায় অবস্থিত জঙ্গি আস্তানার সন্ধান দেয়। তারা জানায়, বসিলার বাসাটিতে জেএমবির শীর্ষস্থানীয় একজন নেতা বসবাস করেন। মূলত এসব তথ্যের ভিত্তিতে বসিলার জঙ্গি আস্তানায় অভিযানটি পরিচালনা করে রেপিড একশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) ডগ স্কোয়াড ও বম্ব ডিস্পোজাল ইউনিট।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে বসিলার জঙ্গি আস্তানার অভিযান শেষে র‍্যাব সদর দফতরের আইন ও মিডিয়া শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন গণমাধ্যমে এসব তথ্য দেন।

কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেছেন, ময়মনসিংহ থেকে গ্রেফতার জেএমবির ৪ সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদ করে বসিলার এই জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়া যায়। গ্রেফতারকৃত জঙ্গিরা জিজ্ঞাসাবাদে বসিলা থেকে আটক জঙ্গির বিষয়ে চাঞ্চল্যকর কিছু তথ্য দেয়।

তিনি আরও বলেন, মূলত এসব তথ্যেরভিত্তিতে র‍্যাব ঢাকার বাইরে জামালপুর ও রাজশাহীসহ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে। পরবর্তীকালে গোপন সংবাদেরভিত্তিতে বুধবার মধ্য রাত থেকে বসিলা জঙ্গি আস্তানাটিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে র‍্যাব সদস্যরা বর্তমান সময়ে জেএমবির এক শীর্ষ নেতাকে আটক করতে সক্ষম হয়। আটক জঙ্গির নাম এমদাদুল হক ওরফে উজ্জ্বল মাস্টার।

আরও পড়ুন : বসিলায় জঙ্গি আস্তানা থেকে অস্ত্র ও বিস্ফোরক উদ্ধার

খন্দকার আল মঈন জানান, অভিযানস্থল থেকে পিস্তল, গুলি, নগদ পৌনে তিন লাখ টাকা, রাসায়নিক দ্রব্য, দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি বুলেট প্রুফ জ্যাকেট ও বেশকিছু জিহাদি বই জব্দ করা হয়। এরপর আস্তানা থেকে আটক জঙ্গিকে র‍্যাব সদর দফতরে নেওয়া হয়েছে। মূলত এখন সেখানেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এছাড়া সে জেএমবির কোন পর্যায়ের সদস্য তাও জানার চেষ্টা চলছে।

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বসিলার বাসার দারোয়ান ও আটক জঙ্গিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে চলতি মাসের ২ তারিখে ভবনটির দোতালায় একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নেয়। বাসা ভাড়া নেওয়ার সময় সে প্রিন্টিং প্রেসে কাজ করার কথা জানিয়েছিল।

আরও পড়ুন : গণটিকার দ্বিতীয় ডোজ শেষ হচ্ছে আজ

এমনকি সে তখন ৫ হাজার টাকা অগ্রিমও দিয়েছিল। এক সপ্তাহের মধ্যে পরিবারের লোকজন এলে জাতীয় পরিচয়পত্র দেবে এমন শর্তে বাসাটি ভাড়া নেয় আটক জঙ্গি ও আরেকজন। বাসাটিতে আরও দুইজন লোকের আসা যাওয়া ছিল বলে জানা গেছে। তারা গতকাল বাসাটি থেকে বেরিয়ে যায় বলেও জানান খন্দকার আল মঈন।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড