• বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ছাপানো পত্রিকা বিক্রিতে বিরাট ধস

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৬ মার্চ ২০২০, ১৫:১৬
পত্রিকা
সবাই মিলে পত্রিকা পড়ার এই দৃশ্যটি এখন আর দেখা যায় না (ছবি : সংগৃহীত)

কাগজে করোনাভাইরাস ছড়ায় এমন আশঙ্কার আরণে অধিকাংশ গ্রাহক ছাপা পত্রিকা নেওয়া বন্ধ করেছেন। এমন অবস্থায় ছাপানো পত্রিকা বিক্রিতে নেমেছে বিরাট ধস। সংবাদপত্রের গ্রাহকেরা বাসা এবং অফিসে বিপুলভাবে ছাপা কাগজের সাবস্ক্রিপশন বাতিল করা শুরু করেছেন।- খবর বিবিসি বাংলা।

শুধুমাত্র ঢাকা শহরেই সংবাদপত্র বিক্রি ৫০ শতাংশ কমে গেছে বলে জানাচ্ছে ঢাকা ভিত্তিক সংবাদপত্র হকারদের সংগঠন সংবাদপত্র হকার্স কল্যাণ বহুমুখী সমবায় সমিতি।

সমিতির প্রধান অ্যাকাউন্ট্যান্ট মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, অনেক বাসাই লকডাউন করে দিয়েছে, কাউকেই তো ঢুকতে দিচ্ছে না। দুধ, কাজের লোক কাউকেই ঢুকতে দিচ্ছে না। 

তিনি বলছেন, অনেকে ফোন দিয়ে বলছে যে পত্রিকা দিয়েন না এবং এটা বলছেন একদম হুট করেই। একজন বন্ধ করলেই আরেকজনের মাথায়ও এটা কাজ করে যে আমরাও বন্ধ করে দেই।

পত্রিকা হকারদের এই সমিতি নিশ্চিত করেছে যে তাদের সদস্যরা এর আগে দিনে ৩০ লক্ষ টাকার পত্রিকা বিক্রি করতেন, কিন্তু এরই মধ্যে বিক্রি ১৫ লক্ষ টাকায় নেমে এসেছে। জানা যায়।, যে গোটা দেশে পত্রিকাটির মূদ্রন কমানো হয়েছে ৫০ থেকে ৬০ হাজারের মতো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সাংবাদিক বলেন, মানুষ এখন ভয়ে আছে, মনে করছে সবকিছুতে ভাইরাস, তাই ভরসা করতে পারছে না।

নুসরাত পারুল, ঢাকার উত্তরায় থাকেন। তিনিও পত্রিকা নেয়া বন্ধ করেছেন। পুরো মাসের বিল দিয়ে ১৯ তারিখ থেকে পত্রিকা বন্ধ করেছি। বলেছি ৩১শে মার্চ পর্যন্ত না দিতে। 

সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নিউজ পেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ বা নোয়াব হকারদের মধ্যে ৩,০০০ হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং ২৩,০০০ মাস্ক ও ২৩,০০০ গ্লাভস বিলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সংগঠনটি একটি বিবৃতিও দিয়েছে, যেখানে বলা হয়েছে যে ছাপানো পত্রিকা করোনাভাইরাস বহন করে না।

ঢাকা মেডিকেলের একজন চিকিৎসক শাহরিয়ার আমিন পত্রিকা রাখা বন্ধ করেননি বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, পেপার তো রাখি আগে থেকেই, বন্ধ করলাম না। পড়ি না অবশ্য বেশি, আর ওরা বারবার বলে কাগজ দিয়ে করোনা ছড়ায় না। 

ওডি/ 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড