• শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ৫ মাঘ ১৪২৭  |   ১৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ক্ষমা চাইল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

  অধিকার ডেস্ক

১৫ জানুয়ারি ২০২০, ১০:২৮
ক্ষমা চাইল অ্যামনেস্টি
ফেসবুকে বাংলাদেশ নিয়ে বিভ্রান্তিকর পোস্টের জন্য ক্ষমা চাইল অ্যামনেস্টি (ছবি : সংগৃহীত)

যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার ধ্বংসযজ্ঞের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে বাংলাদেশের নাম ব্যবহার করেছিল আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। তবে এমন ভুলের জন্য বাংলাদেশের জনগণের ক্ষমাও চেয়েছে মানবাধিকার সংগঠনটি।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) নিজেদের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ভুল পোস্টের জন্য নতুন এক পোস্ট দিয়ে ওই ভুলের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করে সংস্থাটি।

সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে দেওয়া নতুন পোস্টে উল্লেখ করা হয়, ‘সংঘাত ও যুদ্ধময় দেশ, যেখানে মানুষ আক্রমণ, সংঘাত ও মৃত্যুর মুখোমুখি হচ্ছে ফেসবুক বিজ্ঞাপনে বাংলাদেশকে অন্তর্ভুক্ত করায় ক্ষমা চাচ্ছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। আমরা এই ভুলের জন্য বাংলাদেশের জনগণের এবং যারা এর মাধ্যমে মর্মাহত হয়েছেন, তাদের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাচ্ছি।’

চলতি মাসের ১০ তারিখে ফেসবুকে সিরিয়ার একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত এলাকার ছবি আপলোড করে সেখানে শুধু বাংলাদেশের নাম উল্লেখ করে অ্যামনেস্টি। সংস্থাটি সেখানে যুদ্ধ আক্রান্ত দেশে মানুষের মৃত্যুমুখে পতিত হওয়ার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানায়।

অ্যামনেস্টির সেই বিভ্রান্তিকর পোস্ট

ওই পোস্টে মানবাধিকার সংগঠনটি লেখে, ‘বাংলাদেশ এবং পৃথিবীর অন্যান্য জায়গায় নিরপরাধ মানুষ আক্রমণের শিকার, সংঘাত ও মৃত্যুর মুখোমুখি হচ্ছে- কেবল মাত্র ভুল সময়ে ভুল জায়গায় থাকার কারণে। যুদ্ধ ও সংঘাতের সময় ভয়ংকর নির্যাতনকে তুলে ধরতে আমরা সংগ্রাম করছি। এ ধরনের গল্প শোনানোর জন্য হাজার হাজার মানুষের সঙ্গে আন্দোলনে যোগ দিন।’

আরও পড়ুন : ঢাকার নির্বাচন নিয়ে ইসির প্রতি রাব্বানীর অনুরোধ

অবশ্য শুক্রবার ওই পোস্ট দেওয়ার কিছুক্ষণ পরই তা মুছে দেওয়া হয়। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ফেসবুক পেজে বাংলাদেশ থেকে সেটি আর দেখা যায়নি।

ওডি/এএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: +৮৮০১৯০৭-৪৮৪৮00, +৮৮০১৯০৭৪৮৪৭০২  

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড