• রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬  |   ১৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

একের পর এক ট্রেন দুর্ঘটনা, মেট্রোরেল নিয়ে প্রশ্ন রওশনের

  অধিকার ডেস্ক

১৫ নভেম্বর ২০১৯, ০০:১১
জাতীয় সংসদ
একের পর এক ট্রেন দুর্ঘটনায় সংসদে প্রশ্ন তুলেছেন বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ (ছবি : ফাইল ফটো)

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া একের পর এক ট্রেন দুর্ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ। তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, মাটির ওপরেই তো ট্রেন ঠিকমতো চলছে না, তাহলে মেট্রোরেল কীভাবে চালানো হবে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) একাদশ জাতীয় সংসদের পঞ্চম অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে রওশন এরশাদ এই প্রশ্ন তোলেন।

তিনি বলেন, মানুষ একের পর এক রেল দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। আমরা মাটির ওপর দিয়ে ঠিকমতো ট্রেন চালাতে পারি না বলেই এমন দুর্ঘটনা ঘটে। তাহলে কীভাবে আমরা মেট্রোরেল চালাব। শূন্যের উপর দিয়ে মেট্রোরেল করা হচ্ছে। এই ট্রেন যে পড়বে না, তার নিশ্চয়তা কী। পড়ে তো অবশ্যই যাবে। যেখানে ট্রেনই ঠিকমতো চালাতে পারি না, সেখানে আবার মেট্রোরেল বা পাতালরেল কীভাবে চালাব।

সাম্প্রতিক নানা প্রসঙ্গ টেনে বর্তমান সরকারের উদ্দেশ্যে বিরোধী দলের এই নেতা বলেন, বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি, কুমিল্লার সোহাগী জাহান তনু, পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আকতারের স্ত্রী মাহমুদা আকতারসহ এ পর্যন্ত যত হত্যাযজ্ঞ ঘটেছে, সবগুলোর দ্রুত বিচার সম্পন্ন করে মানুষের মধ্যে আস্থা ফিরিয়ে আনুন।

রওশন এরশাদ বলেন, কিছু কিছু হত্যাকাণ্ড রয়েছে যেগুলোর বিচার দ্রুত সম্পন্ন হয়। আবার কিছু হত্যাকাণ্ডের বিচারই হচ্ছে না। সম্প্রতি নুসরাত হত্যাকাণ্ডের বিচার দ্রুত সম্পন্ন হলেও সাংবাদিক দম্পত্তি সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের বিচার এখন পর্যন্ত শুরুই হয়নি। পাশাপাশি চলমান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যে সময়ে ঢাকা ও চট্টগ্রামে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হয়, এ সময় কিছু ক্লাব ও বাড়িতে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্রসহ নগদ অর্থ পাওয়া গেছে। ক্যাসিনোবিরোধী এই অভিযানে প্রধানমন্ত্রী নিজের দলের নেতাদেরও ছাড় দেননি। তিনি প্রশ্ন তোলেন, এসব ক্লাবে চলমান ক্যাসিনোর খবর স্থানীয় থানাগুলো কেন দেখেনি।

নিরাপদ খাদ্যের প্রসঙ্গে রওশন এরশাদ বলেন, বর্তমানে নিশ্চিন্ত মনে কোনো খাবারই খাওয়া যায় না। হোটেলগুলো ২০ বছর আগের ঝোল ও ডাল বিক্রি করছে। এ সময় বর্তমানে খাদ্য নিরাপত্তা আইনের প্রয়োগ নেই বলে আরও যোগ করেন তিনি।

একইভাবে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধির বিষয়টিতে বিরোধী দলের এই নেতা বলেন, তারা মানুষ গড়ার কারিগর। উপযুক্ত বেতন-ভাতা দিয়ে তাদের যোগ্য মানুষ গড়ার বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা প্রয়োজন।

ওডি/আইএইচএন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড