• শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রাত পোহালেই ঢাকায় দেখা যাবে সুমিকে

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২১:২০
সুমি আক্তার
এয়ার অ্যারাবিয়ার জি৯-৫১৭ ফ্লাইটে দেশে আসছেন সুমি আক্তার (ছবি : সংগৃহীত)

রাত পোহালেই বাংলাদেশের মাটিতে থাকবেন সৌদি আরবে নির্যাতিত নারী গৃহকর্মী সুমি আক্তার।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সকাল সোয়া সাতটায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সুমির থাকার কথা রয়েছে।

এ দিন সুমিকে নিয়ে এয়ার অ্যারাবিয়ার জি৯-৫১৭ ফ্লাইটটি ঢাকায় অবতরণ করবে। একই ফ্লাইটে সৌদিতে নির্যাতিত আরও ৯১ নারী গৃহকর্মী দেশে ফিরছেন। ব্র্যাকের মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের প্রধান মো. শরিফুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শরিফুল হাসান বলেন, সৌদি আরবের শ্রম আদালত সুমির বাংলাদেশে ফেরার পক্ষে রায় দেন। ফলে তাকে কফিলের (নিয়োগকর্তা) দাবি করা অর্থ দিতে হবে না।

প্রসঙ্গত, রূপসী বাংলা ওভারসিজের মাধ্যমে এ বছরের ৩০ মে সৌদি আরবে যান সুমি আক্তার। ভালো কাজের আশায় আরব দেশটিতে পাড়ি জমান কম বয়সী এ নারী। সম্প্রতি সুমি ফেসবুক লাইভে আসেন। এ সময় তিনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে তার ওপর চলা পাশবিক নির্যাতনের বর্ণনা দেন। তাকে দেশে ফেরানোর জন্য আকুতি জানান। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

ওই ভিডিও ফেসবুক, ইউটিউবসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। ভিডিওতে সুমি নির্যাতনের নানা বর্ণনা দিয়ে বলেন, ‘আমি মনে হয় বাঁচব না।’ এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ে। পরে অবশ্য তার বেঁচে থাকার খবরও জানা যায়।

এসবে দৃষ্টি পড়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের। সংবাদমাধ্যমের খবরে বিষয়টি জানতে পারেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। তিনি সৌদিতে অবস্থানরত বাংলাদেশি সুমিকে উদ্ধারে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের গত ৩ নভেম্বর নির্দেশনা দেন।

এরই প্রেক্ষিতে সৌদি রাষ্ট্রদূতের কর্মকর্তারা নির্যাতনের শিকার সুমির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সুমিকে উদ্ধার করে সেইফ হোমে নেওয়া হয়।

এর আগে সুমি তার পরিবারকে জানান, দালালরা তাকে বিদেশে ভালো কাজের জন্য পাঠায়নি। বরং তারা তাকে বিক্রি করে দিয়েছেন। দেশটিতে যাওয়ার ৭-৮ দিন পরই তার ওপর যৌন হয়রানি ও নানা নির্যাতন শুরু হয়। তাকে মাঝে মধ্যেই মারধর করা হতো।

সুমির গ্রামের বাড়ি পঞ্চগড়ের বোদা সদর থানায়। তারা বাবা রফিকুল ইসলাম। তার স্বামী নুরুল ইসলাম। আশুলিয়ার চারাবাগের নুরুলের সঙ্গে দুই বছর আগে তার বিয়ে হয়।

নুরুল ইসলাম বলেন, আমার স্ত্রী সৌদিতে বড় বিপদে পড়েছে। সুমিকে অনেক নির্যাতন করা হয়েছে। তাকে মারধর করা হয়েছে। এজন্য আমি থানায় মামলা করেছি। আমি আমার স্ত্রীকে দেশের মাটিতে দেখতে চাই।

ওডি/এমআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড