• শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৩ কার্তিক ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জার্মান শেফার্ড লেলিয়ে দিয়ে বন্দুক নিয়ে মসজিদ কমিটিকে ধাওয়া

  অধিকার ডেস্ক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:৪১
সিসিটিভির ফুটেজে লিটন
সিসিটিভির ফুটেজে লিটন (ছবি : সংগৃহীত)

রাজধানীর মাদারটেকে পোষা কুকুর লেলিয়ে দিয়ে এয়ারগান নিয়ে মসজিদ কমিটির সদস্যদের ধাওয়া দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে এয়ারগানসহ আটক করা হয়েছে। 

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মাদারটেক মসজিদ সংলগ্ন সড়কে এ ঘটনা ঘটে। পরে রাস্তার পাশে থাকা সিসিটিভির ফুটেজ ও স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে এয়ারগানটি জব্দ ও লিটন নামে একজনকে আটক করে পুলিশ।

জানা গেছে, কুকুর ও এয়ারগান নিয়ে ধাওয়া দেওয়া ওই যুবকের নাম লিটন খান। সে সুইজারল্যান্ড প্রবাসী। লিটন মানসিকভাবে অসুস্থ বলে জানা গেছে, তার চিকিৎসা চলছে।

সবুজবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব আলম জানান, পাখি শিকারের এয়ারগানটি পরীক্ষা করে দেখা যায়, এটি দীর্ঘদিন ধরে নষ্ট। মসজিদ কমিটির লোকদের ভয় দেখানোর জন্য পাখি শিকারের বন্দুক নিয়ে তাড়া করেছিলেন বলে জানিয়েছেন লিটন। পরে মুচলেকা রেখে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, ‘লিটন মাদারটেকে মসজিদের পাশে ভাড়া বাসায় থাকেন। তার একটি জার্মান প্রজাতির শেফার্ড কুকুর রয়েছে। নামাজ পড়তে আসা মুসল্লিদের ওই কুকুর প্রায়ই বিরক্ত করে। এ নিয়ে মসজিদ কমিটির কয়েকজন লিটনের বাসায় অভিযোগ জানাতে গেলে, কথাকাটির একপর্যায়ে হাতাহাতিও হয়। দুপক্ষই আহত হওয়ার পর, লিটন তার শেফার্ড কুকুর লেলিয়ে দিয়ে মসজিদ কমিটির লোকদের তাড়া করে। সেই সঙ্গে তিনি নিজেও তার বাসায় থাকা নষ্ট এয়ারগান নিয়ে পিছু পিছু ছুটেন। পরে মসজিদ কমিটির লোকজন দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় লিটনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়।’

ওসি আরও বলেন, ‘লিটন সুইজারল্যান্ড থেকে দেশে এসেছেন দুই মাস আগে। আগে অন্য এলাকায় থাকতেন। মসজিদের পাশের বাসায় উঠেছেন ১ সেপ্টেম্বর। তিনি একজন মানসিক রোগী। তার চিকিৎসা চলছে। এছাড়া এয়ারগানটি পুরনো ও নষ্ট। সবকিছু বিবেচনায় তাকে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’

ওডি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড